Wednesday, July 17Welcome khabarica24 Online

সংবাদ শিরোনাম

আলোচনার জন্য হাসিনা ও খালেদাকে ছয় কংগ্রেস সদস্যের চিঠি

আলোচনার জন্য হাসিনা ও খালেদাকে ছয় কংগ্রেস সদস্যের চিঠি

অবাধ, নিরপেক্ষ ও বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচন আয়োজনের লক্ষ্যে অবিলম্বে সংলাপে বাসার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কাছে চিঠি পাঠিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রে ছয় কংগ্রেস সদস্য। বাংলাদেশে নির্বাচনকালীন সরকার প্রশ্নে রাজনৈতিক অচলাবস্থা দেখা দেয়ার প্রেক্ষাপটে শনিবার তারা এই চিঠি পাঠান।চিঠি পাঠানো কংগ্রেস সদস্যরা হলেন ইলিয়ট এল ইঙ্গেল, অ্যাডওয়ার্ড আর রয়েজ, স্টিভ চ্যাবট, যোশেফ ক্রাউলি, জর্জ হোল্ডিং ও গ্রেস মেং।প্রধানমন্ত্রীর কাছে লেখা চিঠিতে তারা বলেন, ‘আসন্ন নির্বাচন যাতে অবাধ, নিরপেক্ষভাবে অনুষ্ঠিত তা তা নিশ্চিত করার জন্য অবিলম্বে সরাসরি আলোচনা শুরুর জন্য আপনার প্রতি দৃঢ়ভাবে আহ্বান জানাচ্ছি।’আওয়ামী লীগের সাথে আলোচনার জন্য বিএনপি চেয়ারপারসনের কাছেও তারা প্রায় একই ভাষায় চিঠি দিয়েছেন।তারা বলেন, এই দল দুটি সরাসরি দ্রুত আলোচনায় না বসলে এবং সামনে এগানোর পদক্ষেপের ব্যাপারে সব পক্
বিশেষ অভিযানে সঙ্গে থাকবেন আতঙ্কিত আ.লীগ নেতা-কর্মীরা

বিশেষ অভিযানে সঙ্গে থাকবেন আতঙ্কিত আ.লীগ নেতা-কর্মীরা

দেশব্যাপী সহিংসতা ও নাশকতা বেড়ে যাওয়ায় আতঙ্কে আছেন আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা। বিশেষ করে সাংসদ আসাদুজ্জামান নূরের গাড়িবহরে হামলার পর এই আতঙ্ক আরও বেড়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ১৭ ডিসেম্বর মঙ্গলবার থেকে সারা দেশে বিশেষ অভিযানে চালানো হবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা। দলটির সূত্রগুলো বলছে, নাশকতা ও নৈরাজ্য প্রতিরোধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি থাকবেন আওয়ামী লীগ এবং এর অঙ্গ-সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনগুলোর নেতা-কর্মীরা। দলীয়প্রধান শেখ হাসিনার নির্দেশে ১৭ ডিসেম্বর থেকে ৫ জানুয়ারি নির্বাচনের দিন পর্যন্ত মাঠে থাকবেন তাঁরা। আওয়ামী লীগের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন সাংগঠনিক সম্পাদক বলেন, ‘আতঙ্কে আছি। কী যে হচ্ছে, কিছুই বুঝতে পারছি না। এলাকায় অনেক দিন যাইনি। আসাদুজ্জামান নূর যেখানে আক্রমণের শিকার হন, সেখানে আমাদের কী হবে?’ আওয়ামী লীগের সূত্রগুলো বলছে, ‘নাশকতা’ প্রতিহত ক
ফেব্রুয়ারি মাসে ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের কাজ শুরু : যোগাযোগমন্ত্রী

ফেব্রুয়ারি মাসে ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের কাজ শুরু : যোগাযোগমন্ত্রী

  দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির অংশগ্রহনের আর কোন সুযোগ নেই বলে মন্তব্য করেছেন অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। রোববার সেতু ভবনে ঢাকা এলিভেডেট এক্সপ্রেস ওয়ের একটি চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন। অনুষ্ঠানে সেতু বিভাগের সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম, প্রধান প্রকৌশলী কবির হোসেনসহ যোগাযোগ ও সেতু বিভাগের অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সমঝোতার আর কোন সুযোগ নেই উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, সমঝোতার পথ ক্ষীণ। ইতোমধ্যে ১৫১ জন প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এখন সমঝোতা হলে ১১তম সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারবে বিএনপি। দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির অংশগ্রহনের আর কোন সুযোগ নেই।এলিভেটেড এক্সপ্রেস ওয়ের পরবর্তী জেনারেশন প্রজেক্ট পাবলিক পার্টনারশিপের মাধ্যমে এই এলিভেটেড এক্সপ্রেস ওয়ে নির্মাণ হতে যাচ্ছে বলে
১৫১ জন প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত

১৫১ জন প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত

একতরফা আওয়ামী নির্বাচনে প্রায় দেড়শ প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন। শনিবার পর্যন্ত নির্বাচন কমিশনের তথ্য অনুযায়ী, ১৫১ জন প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ার পথে রয়েছেন। যা স্বাধীনতার পর জাতীয় নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ার নতুন রেকর্ড। এর আগে ৯৬ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারির নির্বাচনে ৫৯ জন প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছিলেন।জানা গেছে, এসব প্রার্থীর বিপক্ষে মনোনয়ন জমা না দেয়া এবং প্রত্যাহারের কারনে  তারা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হবেন। এদের মধ্যে আওয়ামী লীগের ১২৭, জাতীয় পার্টি ১৮, জাতীয় পার্টি (জেপি) ১, জাসদ ৩টি এবং ওয়ার্কার্স পার্টি ২টি আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন। একই সঙ্গে দেশের রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে সর্বোচ্চ সংখ্যক রাজনৈতিক দল এই নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে না। ফলে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন একতরফাভাবে করত
নির্বাচনে যাবে না এরশাদ

নির্বাচনে যাবে না এরশাদ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সরকার অনেক ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছে। কিন্তু তিনি আর নৈরাজ্য সহ্য করবেন না। বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারীদের কঠোর হাতে দমন করবেন।আজ শনিবার রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে মহান বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনায় সভায় প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।বিরোধীদলীয় নেতা খালেদা জিয়ার উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘অনেক ধৈর্যের পরিচয় দিচ্ছি। নারী-শিশু হত্যা করবেন, ছেলেমেয়েদের পরীক্ষা দিতে দেবেন না, আর আমরা বসে বসে সহ্য করব, তা হবে না।’ তিনি বলেন, ‘জনগণের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করবেন, জনগণও জানে কীভাবে যুদ্ধে জয়ী হতে হয়। যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বাংলার মাটিতে করবই করব। এ যুদ্ধে বাংলার জনগণ জয়ী হবেই।’খালেদা জিয়ার উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘জামায়াতকে নিয়ে থাকতে চান, থাকেন। খুন-খারাবি করবেন না। এসবের জবাব কীভাবে দিতে হয়, তা আমরা জানি। জনগণের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে জয়ী
নির্বাচনে যাবে না এরশাদ

নির্বাচনে যাবে না এরশাদ

  নির্বাচনে না যাওয়ার সিদ্ধান্তে অটল রয়েছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। শনিবার নিজ বাসভবনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান এরশাদের বিশেষ উপদেষ্টা ও মুখপাত্র ববি হাজ্জাজ। সংবাদ সম্মেলনে ববি হাজ্জাজ বলেন, 'নেতাকর্মীদের বিভ্রান্ত না হওয়া আহ্বান জানিয়ে এরশাদ বলেছেন, তিনিসহ পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্যরা মনোনয়ন প্রত্যাহারের আবেদন জমা দিলেও রিটার্নিং অফিসাররা আইনগত জটিলতার কারণে তা গ্রহণ করেনি। এতে বিভ্রান্ত হওয়ার কিছু নেই। জাতীয় পার্টি নির্বাচনে যাবে না।'  এরশাদ এ নির্বাচনে নেই। কারণ এ নির্বাচনে গণতান্ত্রিক সরকার আসবে না।  তিনি আরো বলেন, জাতীয় পার্টির কতিপয় নেতা (প্রেসিডিয়াম সদস্য তাজুল ইসলাম) নির্বাচন নিয়ে গণমাধ্যমে বিভিন্ন বিবৃতি দিচ্ছেন। যা নেতাকর্মীদের মাঝে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। শুধুমাত্র মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য জিএম কাদের বক্তব্যই জাতীয়
আসাদুজ্জামান নূরের গাড়ি বহরে হামলায় নিহত ২

আসাদুজ্জামান নূরের গাড়ি বহরে হামলায় নিহত ২

  নীলফামারীর রামগঞ্জে সংসদ সদস্য আসাদুজ্জামান নূরের গাড়ি বহরে জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা হামলা চালালে ২ জন নিহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। এ সময় পুলিশের সঙ্গে জামায়াত-শিবিরের সংঘর্ষে অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন। শনিবার বিকেল ৫টার দিকে সদর উপজেলার টুপামারী ইউনিয়নের রামগঞ্জ বাজারে এ হামলার ঘটনা ঘটে। হামলায় আসাদুজ্জামান নূর অক্ষত থাকলেও তার ব্যবহৃত গাড়িটি ভাঙচুর করা হয়েছে। নিহতরা হলেন- কৃষকলীগ নেতা খোরশেদ আলী চৌধুরী ও বিএনপি নেতা সিদ্দিক গাজী। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, লক্ষ্মীচাপ কাঁচারী বাজার থেকে নীলফামারী শহরে ফেরার পথে রামগঞ্জ বাজারে জামায়াত শিবিরের নেতাকর্মীরা নূরের গাড়ি বহরে অতর্কিত হামলা চালায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ বেশ কয়েক রাউন্ড টিয়ারশেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। এ সময় সংঘর্ষে এসময় ১ জন কৃষক লীগ নেতা এ ১ জন বিএনপি নেতা নিহত ও অন্তত ২০ জন আহত হন। আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি ক
প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি বি. চৌধুরী, রব ও কাদের সিদ্দিকীর

প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি বি. চৌধুরী, রব ও কাদের সিদ্দিকীর

  তফসিল স্থগিত করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে পদত্যাগ করার আহ্বান জানিয়েছেন বিকল্পধারা বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট ডা. বদরুদ্দোজা চৌধুরী, জেএসডি সভাপতি আসম আবদুর রব এবং কৃষক-শ্রমিক-জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী। একই সঙ্গে বিরোধী নেতাকে সহিংস কর্মসূচি প্রত্যাহার করে শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলন করার আহ্বান জানানো হয়। শুক্রবার এক যুক্ত বিবৃতিতে প্রধানমন্ত্রী ও বিরোধী নেতার প্রতি এ আহ্বান জানান তারা। বিবৃতিতে শীর্ষ এ তিন নেতা বলেন, বাংলাদেশের সাম্প্রতিক ধ্বংসোন্মুখ রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে আমরা গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করছি। একদিকে সরকার ও প্রধানমন্ত্রীর একগুঁয়েমি এবং বিরোধী দলহীন একতরফা নির্বাচনের পথে এগিয়ে চলা, অন্যদিকে বিরোধীদলীয় নেতার আহ্বানে বিরামহীন অবরোধ এবং কোথাও কোথাও হরতালের কারণে রাজনীতি সহিংস হয়ে উঠেছে এবং জনজীবনে বিপর্যয় নেমে এসেছে। তারা বলেন, বিরামহীন অবরোধের কারণে দেশের অর্থ