Tuesday, January 22Welcome khabarica24 Online

সারা-দেশ

কুষ্টিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১, আহত ১০

কুষ্টিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১, আহত ১০

কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় সড়ক দুর্ঘটনায় ১ জন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে অন্তত ১০ জন। কুষ্টিয়া-প্রাগপুর সড়কের সাতবাড়িয়া নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ভেড়ামারা থানা পুলিশ জানায়, আজ সকাল সাড়ে ৮টার দিকে কুষ্টিয়াগামী একটি যাত্রীবাহী বাস বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাককে সাইড দিতে ঘনকুয়াশার কারনে দেখতে না পেয়ে উল্টে খাদে পড়ে। এতে জুলিয়া খাতুন (৩০) নামে একজন যাত্রী ঘটনাস্থলেই নিহত হয় এবং অন্তত ১০ জন যাত্রী আহত হয়। আহতদের ভেড়ামারা ও কুষ্টিয়া হাসপাতালসহ বিভিন্ন স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করেছে। সে ঝিনাইদহ জেলার কালিগঞ্জ উপজেলার আড়পাড়া গ্রামের রইচ উদ্দিনের স্ত্রী।
মাধবপুরে সংঘর্ষে কৃষকের মৃত্যু

মাধবপুরে সংঘর্ষে কৃষকের মৃত্যু

মাধবপুর(হবিগঞ্জ), ১ ফেব্রুয়ারি: হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার সুন্দরপুর গ্রামে দুপক্ষের সংঘর্ষের ঘটনায় কৃষক আব্দুল হাই (৪৮) শুক্রবার রাতে সিলেট এমএজি ওসমানী কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।স্থানীয় সূত্রে জানা যায় মাধবপুর উপজেলার সুন্দরপুর গ্রামের আমিরুল মিয়ার সঙ্গে আব্দুল হাইয়ের জমিতে পানি সেচ দেওয়াকে কেন্দ্র করে শুক্রবার দুুপুরে দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ ঘটে। এতে পাঁচজন আহত হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় আব্দুল হাইকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতাল থেকে সিলেট এমএজি ওসমানী কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার রাতে তার মৃত্যু ঘটে।ময়নাতদন্ত শেষে নিহতের লাশ পরিবারের  কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ব্যাপারে মাধবপুর থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অমল কুমার ধর। উৎস- যুগান্তর

২ বাংলাদেশিকে ধরে নিয়ে গেছে বিএসএফ

নওগাঁর সাপাহার উপজেলার করমুডাঙ্গা সীমান্ত এলাকা থেকে শনিবার দুই বাংলাদেশী যুবককে ধরে নিয়ে গেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)। আটককৃতরা হলেন- আরিফ হোসেন (২৭) ও হুমায়ন আহমেদ (২৫)।বিজিবি ও স্থানীয়রা জানিয়েছে, সকাল ৬টার দিকে করমুডাঙ্গা সীমান্ত এলাকার নোম্যান্সল্যান্ডের মেইন পিলার ২৪০/৫ আর এলাকা দিয়ে করমুডাঙ্গা গ্রামের দাউদ আলীর ছেলে আরিফ ও রেজাউল ইসলামের ছেলে হুমায়ন ভারত থেকে গরু নিয়ে ফিরছিলেন। এ সময় ভারতের তালতলী বিএসএফ ক্যাম্পের টহল দল তাদেরকে ধরে নিয়ে যায়। বিজিবির ৪৬ ব্যাটলিয়ন (পত্নীতলা) এর অধিনায়ক লে. কর্নেল সালাউদ্দিন জানান, তাদের ফেরত চেয়ে বিএসএফকে চিঠি দেয়া হয়েছিল। সকাল ১১টার দিকে কোম্পানি পর্যায়ে পতাকা বৈঠক হয়েছে। বৈঠকে বিএসএফ জানিয়েছে, আটক দুই বাংলাদেশীকে ভারতের বামনগোলা থানা পুলিশে হস্তান্তর করা হয়েছে। উৎস- যুগান্তর
চট্টগ্রামে সিরাত মাহফিলে তোপের মুখে এমপি নদভী

চট্টগ্রামে সিরাত মাহফিলে তোপের মুখে এমপি নদভী

চট্টগ্রামের সাতকানিয়া-লোহাগাড়া আসনের নবনির্বাচিত সরকার দলীয় এমপি আবু রেজা মোহাম্মদ নেজাম উদ্দীন নদভী একটি সিরাত মাহফিলে অংশ নিয়ে জনতার তোপের মুখে পড়েন। রাত ৮টার দিকে লোহাগাড়ার চুনটি ঐতিহাসিক সিরাতুন্নবী মাহফিলে এ ঘটনা ঘটে। তিনি মঞ্চে বক্তব্য দিতে উঠলে  উপস্থিত মুসল্লিরা হইচই শুরু করেন। এক পর্যায়ে তাকে লক্ষ্য করে জুতা নিক্ষেপ করা হয়। অবস্থা বেগতিক  দেখে এমপি নদভী আয়োজকদের সহায়তায় মঞ্চ ছেড়ে চলে যান। জানা গেছে, প্রায় ১০০ বছর ধরে চুনটি এলাকায় ১৯ দিনব্যাপী এই সিরাতুন্নবী মাহফিল পালিত হয়ে আসছে। আজ ছিল এ বছরের সিরাতুন্নবী মাহফিলের শেষ দিন। সমাপনী দিনে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা আমিনুল ইসলাম আমিনের বক্তব্য  শেষে এমপি নদভী বক্তব্য দিতে উঠেন।
শিবির সন্দেহে শাবির ৮৪ শিক্ষার্থী আটক

শিবির সন্দেহে শাবির ৮৪ শিক্ষার্থী আটক

ইসলামী ছাত্রশিবিরের সমর্থক সন্দেহে শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮৪ শিক্ষার্থীকে আটক করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাতে সিলেটের বিভিন্ন বাড়িতে অভিযান চালিয়ে এসব শিক্ষার্থীদের আটক করা হয়।শুক্রবার ভোররাতে বিশ্ববিদ্যালয় এলাকার গোলাপি হাউজ থেকে ৪০ জন, গুলশান থেকে ২১ জন, মহসিন কটেজ থেকে ছয়জনসহ প্রায় ২৫টি মেসে অভিযান চালিয়ে জালালাবাদ থানা পুলিশ ৮৪ জনকে আটক করে। এদের মধ্যে প্রায় ৭০ জন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের কর্মী এবং আছেন কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীরাও। এ প্রসঙ্গে জালালাবাদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি গৌসুল হোসেন জানান, শহরতলীর তেমুখীতে পুলিশের ওপর হামলা ও বিশ্ববিদ্যালয়ে শিবিরের ভাঙচুরের কারণে অভিযানটি চালানো হয়েছে। অভিযানে শিবিরনিয়ন্ত্রিত বিভিন্ন মেস থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ ৮৪ জনকে শিবিরের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে আটক করা হয়েছে। আটককৃতদের মধ্যে হামলার সঙ্গে যাদের সম্
ফেনীতে ক্রসফায়ারে যুবদল নেতা নিহত

ফেনীতে ক্রসফায়ারে যুবদল নেতা নিহত

ফেনীর ফাজিলপুরে র‌্যাব ও পুলিশের যৌথ অভিযানের সময় বন্দুকযুদ্ধে যুবদল নেতা গোলাম সরওয়ার (২৮) নিহত হয়েছেন। বন্দুকযুদ্ধে র‌্যাব ও পুলিশের সাত সদস্য আহত হন। উদ্ধার করা হয় একটি কাটা রাইফেল ও একটি দেশিয় তৈরি এলজি।ফেনী সদর উপজেলার উত্তর ফাজিলপুর গ্রামের লস্কর তালুক নামক স্থানে বৃহস্পতিবার বিকেলে বন্দুকযুদ্ধের এ ঘটনা ঘটে। গোলাম সরওয়ার উত্তর ফাজিলপুর গ্রামের নুর ইসলামের ছেলে এবং স্থানীয় ফাজিলপুর ইউনিয়ন যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি।ফেনী বোগদাদিয়া ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই ফিরোজ আলম র‌্যাব-পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে গোলাম সরওয়ারের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।তিনি জানান, তার বিরুদ্ধে আটটি মামলা তদন্তাধীন আছে। তবে স্থানীয় বিএনপি নেতারা জানিয়েছেন, যুব দল নেতা গোলাম সরওয়ারকে পুলিশ ক্রসফায়ারের নামে হত্যা করেছে। উৎস- যুগান্তর

পাকিস্তান ভিসা না দেওয়ায় সাইকেলে প্রতিবাদ ভ্রমণ মুক্তিযোদ্ধা জাফরের!

তিলক বড়ুয়া : এর পূর্বে দেশের ৬৪ জেলা ভ্রমণ করেছেন ২ বার। ভারতের আজমীর শরীফও ইতোমধ্যে ভ্রমণ করেছেন সাইকেলযোগে। তাঁর এই কার্যকলাপে স্বত:স্ফূর্ত হয়ে ইরানও তাঁকে ভিসা দেয়। ইচ্ছা এভাবেই পুরো বিশ্বের সৌন্দর্য দেখবেন নিজের মতো করে। পৃথিবীর এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে ঘুরে বেড়াবেন- জীবন সায়ান্নে এসে এই ছিল তাঁর শেষ আশা। এরই ধারাবাহিকতায় পাকিস্তান ভ্রমণের জন্য দেশটির দূতাবাসে আবেদন করেন মুক্তিযোদ্ধা জাফর ফরাজী। কিন্তু বাধ সাধে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে পরাজিত এই দেশটির দূতাবাস। পাকিস্তানে যাওয়ার জন্য ভিসার আবেদন করলে নামের আগে ‘মুক্তিযোদ্ধা’ দেখে ভিসা দেয়না তারা। এর প্রতিবাদে পুণরায় ৬৪ জেলা ভ্রমণে নামেন ৬১ বছর বয়সী এই মুক্তিযোদ্ধা। এরই ধারাবাহিকতায় ৪০ তম জেলা ভমণ করতে গিয়ে সম্প্রতি তিনি আসেন চট্টগ্রামের মীরসরাইতে। মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার ডাসার ইউনিয়নের পূর্ব কমলাপুর গ্রামে জন্ম নেওয়া প্
জামায়াতবিহীন বিএনপির সমাবেশ

জামায়াতবিহীন বিএনপির সমাবেশ

রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গতকালের গণসমাবেশে বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোটের বেশির ভাগ শরিক দলের নেতারা উপস্থিত থাকলেও জামায়াতে ইসলামীর কাউকে প্রকাশ্যে দেখা যায়নি। সরকারবিরোধী আন্দোলনে এর আগে বিএনপির ডাকা সমাবেশ ও কর্মসূচির অগ্রভাগে জোরালোভাবে উপস্থিত থাকত জামায়াতে ইসলামী ও এর অঙ্গসংগঠন ছাত্রশিবিরের নেতা-কর্মীরা। নিজেদের দাবি লেখা ব্যানার-ফেস্টুন নিয়ে স্লোগানের রব তুলত তারা। কিন্তু গতকাল এর কিছুই ছিল না। দুপুর সোয়া ২টায় শুরু হয়ে সন্ধ্যা পৌনে ৬টা পর্যন্ত চলে সমাবেশ। এতে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে যোগ দেয় বিনপির তৃণমূল নেতা-কর্মীরা। চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বক্তব্য শোনার পাশাপাশি তাদের অনেকেই কেন্দ্রীয় ও ঢাকার নেতাদের বিরুদ্ধে ক্ষুব্ধ মন্তব্য করে। তারা বলে, কেন্দ্রীয় ও ঢাকার নেতাদের কারণেই সরকারবিরোধী আন্দোলনে বিএনপি ব্যর্থ হয়েছে। অজ্ঞাত স্থান থেকে প্রেস বিজ্ঞপ্তি বা ভিডিওবার্তা পাঠিয়ে আ