মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১১ কার্তিক ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

নির্বাচনী আচরণ বিধির খসড়া চূড়ান্ত

nerbasonkomeson

নিজস্ব প্রতিনিধি

নির্বাচনী আচরণ বিধির খসড়া চূড়ান্ত করেছে নির্বাচন কমিশন। বুধবার দুপুরে শেরেবাংলানগরে ইসি সচিবালয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিব উদ্দীন আহমেদ জানান, এই বিধিমালায় সরকারি সুযোগ সুবিধা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী, বিরোধীদলীয় নেতা, মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী ও সংসদ সদস্যরা রাজনৈতিক কর্মসূচিতে অংশ নিতে পারবেন না।
কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ বলেন, আমাদের বর্তমান আচরণবিধি নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন করার উপযোগী। তাই বিশেষ কিছু পরিবর্তন আনা হয়েছে।
বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি উলেস্নখ করে তিনি বলেন, দুই দলের মধ্যে সরকার পদ্ধতি নিয়ে আলোচনার যে সুযোগ তৈরি হয়েছে আমরা এটাকে নির্বাচনের সুন্দর পরিবর্তন হিসেবে দেখছি আমরা। তাই আমরা আশা করছি খুব তারাতারি একটি সমাধান হবে। মন্ত্রী-এমপি পদের ক্ষেত্রে আচরণবিধির বাধ্যবাধকতা বিষয়ে তিনি বলেন, লেভেল পেস্নয়িং ফিল্ড তৈরির জন্য মন্ত্রী-এমপিরা তাদের সরকারী কর্মসূচির সাথে রাজনৈতিক কর্মসূচি এক করতে পরবেন না। নির্বাচনী প্রচারণায় সরকারী কোন সুযোগ সুবিধা ভোগ করতে পারবেন না। প্রধানমন্ত্রী ও বিরোধীদলীয় নেতার ক্ষেত্রে একই বিধান উলেস্নখ করে সিইসি বলেন, দলীয় প্রধান বা সরকারী সুবিধা ভোগী হিসেবে উনারা নির্বাচনী প্রচার করতে পারবেন না। তবে নিজ খরচে বা নিজেদের ব্যবস্থাপনায় কর্মসূচি পালন করতে পারবেন না। সরকারী সার্কিট হাউজে অবস্থান করলেও রাজনৈতিক কোন মিটিং মিছিলে অংশ নিতে পারবেন না। আচরণবিধি লংঘনের শাস্তির বিষয়ে কাজী রকিব বলেন, পূর্বের আচরণবিধিতে উলেস্নখিত আচরণবিধি লংঘনের শাস্তি বহাল থাকবে। মন্ত্রীদের কর্মকান্ড নিয়ন্ত্রণ সম্পর্কে তিনি বলেন, মন্ত্রীরা তাদের রুটিন কাজ করবে। কোন প্রকার সুদূরপ্রসারী কোন উন্নয়ন প্রকল্প হাতে নিতে পারবেন না। সরকারী মাধ্যমে প্রচার সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, মন্ত্রী-এমপিরা তাদের রুটিন ওয়ার্কের প্রয়োজনে সরকারী গণমাধ্যম ব্যবহার করতে পারবেন। তবে নির্বাচনী প্রচারে রেডিও-টেলিভিশন ব্যবহার করতে পারবেন না।

Leave a Reply