শুক্রবার, ১৫ অক্টোবর ২০২১, ৩০ আশ্বিন ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

দেবযানীকে ফেরত পাঠাল যুক্তরাষ্ট্র

devyani
ভিসা জালিয়াতি ও ভুল তথ্য দেয়ার অভিযোগে ভারতীয় কূটনীতিক দেবযানী খোবড়াগাড়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বৃহস্পতিবার মার্কিন প্রশাসনকে দেবযানীকে দেশে ফেরত পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে দেশটির আদালত। তার গ্রেফতার করা নিয়ে ভারত ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে প্রায় এক মাস ধরে চলা কূটনৈতিক টানাপোড়েনের মধ্যেই নিউইয়র্কের গ্র্যান্ড জুরি বৃহস্পতিবার দেবযানীর বিচার শুরুর এই আদেশ দেয়। ওই ঘটনায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখায় ভারত। নয়াদিল্লিতে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস ও কূটনীতিকদের সুযোগ-সুবিধা কমিয়ে দেয়ার পাশাপাশি দেবযানীকে অপমান করার জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে ক্ষমা চাইতে বলা হয়। ভারত সরকার দেবযানীর মামলা প্রত্যাহার করে নেয়ার দাবি জানালেও যুক্তরাষ্ট্র তার বিচারের বিষয়ে কোনো ছাড় দিতে রাজি হয়নি। বরং অভিযোগ গঠনের সময় পেছানোর যে আবেদন দেবযানী করেছিলেন, যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে তাও খারিজ হয়ে যায়।এর আগে কূটনৈতিক লড়াইয়ের মধ্যে বিচার এড়াতে দেবযানীকে নিউইয়র্ক কনস্যুলেট থেকে জাতিসংঘে ভারতের স্থায়ী মিশনে বদলি করে ভারত। অন্যদিকে দেবযানীর বিচার করার জন্য যুক্তরাষ্ট্র তাকে কূটনৈতিক সুরক্ষার আওতার বাইরে রাখতে চাপ দেয়। ভারত তাতে ‘না’ বলার পরই দেবযানীকে দেশে ফেরত পাঠানোর কথা বলে যুক্তরাষ্ট্র।এজন্য বৃহস্পতিবার তাকে জি-১ ভিসা দেয়া হয়। এর মাধ্যমেই সন্তানদের যুক্তরাষ্ট্রে রেখে পূর্ণ কূটনৈতিক মর্যাদা নিয়ে দেশে ফিরছেন দেবযানী। ভারতে রওনা হওয়ার আগে দেবযানী তার বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগ ‘মিথ্যা’ ও ‘ভিত্তিহীন’ উল্লেখ করে নিজেকে নির্দোষ দাবি করেছেন। ভবিষ্যতে পুরো ঘটনার কোনো ছাপ তার পরিবারের ওপর পড়বে না বলেও তিনি আশা প্রকাশ করেছেন। এদিকে মেয়ের দেশে ফেরার বিষয়টিকে ইতিবাচক হিসেবেই দেখছেন তার বাবা উত্তম খোবরাগাড়ে। তিনি বলেন, “দেবযানী নিজের দেশের সার্বভৌমত্ব উঁচুতে রাখতে লড়াই করেছে। বিতর্ক এড়াতে বিকল্প প্রস্তাব পাওয়ার পরই সে নিজের আরাম-আয়েশের বিষয়টি ত্যাগ করেছে।” এদিকে, দেবযানীকে ফেরত পাঠানোর পাল্টা প্রতিক্রিয়া হিসেবে ভারত সরকার শুক্রবার নয়াদিল্লিস্থ মার্কিন দূতাবাস থেকে একজন কূটনীতিককে প্রত্যাহার করে নেয়ার জন্য ওয়াশিংটনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে। নিউইয়র্কের ভারতীয় কনস্যুলেটের বহুল আলোচিত কর্মকর্তা দেবযানী খোবরাগাড়ে ভারতের উদ্দেশে আমেরিকা ত্যাগ করার পর এ আহ্বান জানাল নয়াদিল্লি।ভুল তথ্য দিয়ে কাজের মেয়ে সঙ্গীতা রিচার্ডের জন্য মার্কিন ভিসা সংগ্রহ এবং সঙ্গীতাকে প্রতিশ্র“ত পারিশ্রমিকের চেয়ে অনেক কম অর্থ দেয়ার অভিযোগে গত মাসে খোবরাগাড়েকে আটক করে মার্কিন কর্তৃপক্ষ। নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা তার দেহ তল্লাশির নামে তাকে বিবস্ত্র করে কিছুক্ষণের জন্য মেঝেতে ফেলে রাখে।ভারত সরকার এ ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানায় এবং নয়াদিল্লিস্থ মার্কিন দূতাবাস ও মার্কিন নাগরিকদের ওপর কড়াকড়ি আরোপ করে।

উৎস- যুগান্তর

Leave a Reply