শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ১৫ শ্রাবণ ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

১৮-দলীয় জোট এর ডাকা অবরোধে দেশ অচল

fire

নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের দাবি না মেনে  দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার প্রতিবাদে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোটের ডাকা অবরোধে কার্যত দেশ অচল হয়ে পড়েছে।বিভিন্ন স্থানে ট্রেন লাইনে আগুন দেয়া ও অগ্নিসংোগের ঘটনায় সারাদেশে রেলের সিডিউল লন্ডভন্ড হয়ে যায়। ঢাকা থেকে দুরপাল্লার কোন বাস বা পণ্যবাহী ট্রাক কোথাও ছেড়ে যায়নি। অবরোধের প্রথম দিন দেশব্যাপী সংঘর্ষে ১ বিজিবি সদস্যসহ নিহত হয়েছে ৭ জন। এরমধ্যে কুমিল্লায় ২, সাতক্ষীরায় ২, বরিশালে ১ বগুড়া ও সিরাজগঞ্জে ২ যুবদল কর্মী নিহত হয়। সংঘর্ষে বিএনপি যুবদল, ছাত্রদল ও যুবলীগের শতাধিক নেতাকর্মী আহত হয়েছে। বিভিন্ন জেলা, উপজেলা এমনকি ইউনিয়ন পর্যায়ে সড়কপথে অগ্নিসংযোগ-গাছের গুড়ি ফেলে অবরোধ করে যান চলাচল এবং বিভিন্ন স্থানে রেলপথের স্লিপার তুলে নিয়ে ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে অবরোধকারীরা। পুলিশ বিভিন্ন জেলা থেকে শতাধিক ১৮ দলের নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে। মঙ্গলবার ভোর ৬টা থেকে বৃহস্পতিবার ভোর ৬টা পর্যন্ত চলবে ৪৮ ঘন্টার এ অবরোধ কর্মসূচি।সিরাজগঞ্জ শহরের জগাইমোড় এলাকায় ১৮ দলীয় জোটের নেতাকর্মীদের সঙ্গে সংঘর্ষের সময় পুলিশের গুলিতে সাকমান হোসেন (২৭) নামে এক যুবদল নেতা নিহত হয়েছে। গুলিবিদ্ধ হয়েছেন আরও ২০ জন। সকাল সাড়ে ৮টায় এ ঘটনা ঘটে।কুমিল্লার লাকসাম উপজেলায় নোয়াখালী সড়কে বিএনপি-জামায়াতের মিছিলে পুলিশ গুলি করলে বাবুল মিয়া নামে এক রিকশা চালক নিহত হয়েছেন। সকাল ১১টায় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করলে পুলিশ অবরোধকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে প্রায় দেড়শ’ রাউন্ড গুলি করে। এতে বাবুল মিয়া ঘটনাস্থলেই নিহত হন। গুলিবিদ্ধ হন ১৫ জন।এদিকে সোমবার রাতে পুলিশের গুলিতে নিহত দেলোয়ার হোসেনের লাশ মংগলবার দুপুরে শহরের চার্থায় তার বাসায় নেয়া হয়। এসময় পুলিশ দ্রুত লাশ দাফনের চাপ দিলে স্থানীয়দের সাথে বিতর্ক সৃষ্টি হয়। পুলিশের ভুমিকায় স্থানীয় মহল্লার লোকজন ক্ষুব্ধ হয়ে হামলা চালিয়ে পুলিশ ভ্যানে আগুন ধরিয়ে দেয়। পরে পুলিশ সটকে পড়লেও বিজিবি সদস্য মোতায়েন করা হয়। কিন্তু ক্ষুব্ধ জনতা বিজিবির ওপর হামলা করলে রিপন(২৮) নামে এক বিজিবি সদস্য গুরুতর আহত হয়। পরে তাকে হাসপাতালে নেয়া হলে মারা যায়।বরিশালে পিকেটারের ছোঁড়া ইটের আঘাতে আহত কাঁচামাল ব্যবসায়ী রফিকুল ইসলাম (২৬) মঙ্গলবার দুপুরে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। এর আগে মঙ্গলবার ভোরে গৌরনদীর সীমান্তবর্তী ভূরঘাটা মজিদবাড়ি বাসস্ট্যান্ডে বাসে ১৮দলের পিকেটারদের ছোঁড়া ইটের আঘাতে রফিকুল ইসলাম গুরুতর আহত হয়। পরে তাকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।এসময় একজন পুলিশ সদস্য গুরুতর আহত হয়েছে। সকালে সাতক্ষীরার কলোরোয়ায় অবরোধকারীদের হামলায় মাহবুবুর রহমান বাবু নামে এক যুবলীগ নেতা নিহত হয়েছেন। বাবু নিজগ্রাম সলিপার থেকে কলরোয়া সদরে মোটরসাইকেল চালিয়ে যাওয়ার সময় অবরোধকারীদের হামলার মুখে পড়ে নিহত হন। এরপর বিকালে কলারোয়া উপজেলায় রবিউল ইসলাম নামে এক স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা নিহত হয়েছেন। সে স্থানীয় দিয়ারা ইউনিয়নের স্বেচ্ছাসবক লীগের আহবায়ক। নতুন বাজার এলাকায় বিকেলে চা খাওয়ার সময় দৃবৃত্তরা তাকে কুপিয় জখম করে। পরে হাসপাতালে নেয়া হলে তার মৃত্যু হয়।রাজধানীর বাসাবো, তেজগাঁও, সবুজবাগ, মহাখালীতে বিএনপি-জামায়াত মিছিল করেছে। এসময় কয়েকটি কয়েকটেলের বিস্ফোরণ ঘটায় তারা। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে শিবিরের মিছিলে গুলি করে পুলিশ। এতে তিনজন গুলিবিদ্ধ হয়েছে। তেজগাঁও ও উত্তরার আজমপুরে রেললাইনে অগ্নিসংযোগ ও গাছের গুড়ি ফেলে রেল লাইন অবরোধ করে ১৮ দলীয় জোটের নেতাকর্মীরা।কয়েকটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া রাজধানীতে মূলত: নিরুত্তাপ অবরোধ চললেও দেশব্যাপী অবরোধে ব্যাপক সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়েছে। অবরোধের প্রথম দিনেই দেশ কার্যত অচল প্রায়। গোটা দেশ থেকে ঢাকা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।  চট্টগ্রাম, রাজশাহী, কুমিল্লা, ময়মনসিংহ, চাঁদপুর, নরসিংদীতে রেললাইনে আগুন ও ফিসপ্লেট তুলে নেয়ায় রেল চলাচল বন্ধ রয়েছে। এছাড়া খুলনা, দিনাজপুর, মেহেরপুর, নাটোর, সিরাজগঞ্জ, সাতক্ষীরা,  পটুয়াখালীসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় সড়ক ও রেলপথ অবরোধ করেছে ১৮ দলীয় জোটের নেতাকর্মীরা। এসময় পুলিশের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষে বেশ কয়েকজন গুলিবিদ্ধসহ অন্তত: ৬২ জন আহত হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। নিহত হয়েছে তিনজন। সিরাজগঞ্জে সাকমান নামে যুবদল নেতা নিহত হওয়ার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার সকাল-সন্ধ্যায় সিরাজগঞ্জে হরতাল আহ্বান করেছে জেলা বিএনপি।বগুড়ায় বিকেলে বনানী মোড়ে ১৬ দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষ বাধে। এসময় ইউসুফ নামে একজন যুবদল কর্মী নিহত হয়। এ ঘটনায় ২০জন আহত হয়েছে।
উৎস- যুগান্তর

 

 

Leave a Reply