বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ৫ কার্তিক ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

দিনাজপুরে ২টি ট্রেনের সংঘর্ষে আহত অর্ধশতাধিক

1-318

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে দু’টি ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়েছে। এতে আহত হয়েছে প্রায় ৫০ জন যাত্রী। সোমবার রাত সাড়ে ৩টায় ফুলবাড়ী রেল স্টেশন এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। পার্বতীপুর থেকে ছেড়ে আসা সীমান্ত এক্সপ্রেস ও ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা একতা এক্সপ্রেসের মধ্যে এই দুর্ঘটনা ঘটে। এতে একটি বগি ধুমড়ে-মুচড়ে যায় এবং তিনটি বগি লাইনচ্যুত হয়। এ দুর্ঘটনার কারণে উত্তরাঞ্চলের সাথে সারা দেশের ট্রেন যোগাযোগ প্রায় আট ঘণ্টা বন্ধ ছিল। ফুলবাড়ী রেল স্টেশন ও ফুলবাড়ী থানা সূত্রে জানা গেছে, পার্বতীপুর থেকে আট ঘণ্টা বিলম্বে ছেড়ে আসা খুলনাগামী আন্তঃনগর সীমান্ত এক্সপ্রেস ট্রেনটি ফুলবাড়ী রেল স্টেশনে ১নং প্লাটফর্মে দাঁড়িয়ে ছিল। অপর দিকে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা একতা এক্সপ্রেস ট্রেনটিও ১নং প্লাটফর্মে প্রবেশ করে। ফলে দু’টির মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। আন্তঃনগর একতা এক্সপ্রেস ট্রেনের ধাক্কায় দাঁড়িয়ে থাকা সীমান্ত এক্সপ্রেসের ইঞ্জিনের পেছনের বগিটি দুমড়ে-মুছড়ে লাইনচ্যুত হয়। এতে উভয় ট্রেনের অন্তত অর্ধশতাধিক ট্রেন যাত্রী আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে চারজনকে দিনাজপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তারা হলেনÑ আমজাদ হোসেন (৪৫), আব্দুল মান্নান (৩৫), মনোয়ারা (৭০) ও রাজু আহমেদ (১৯)। আহত অন্য যাত্রীদের ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে কামরুল হাসান (২৮), পিতা সামশুল হক, পীরগঞ্জ, ঠাকুরগাঁও; বাবলু (৩০), পিতা মফেসাল হক, উলিপুর, কুড়িগ্রাম; নূর ইসলাম (৫৭), ফাইমুদ্দিন, মিঠাপুকুর, রংপুর; আলহাজ লুৎফর রহমান (৫৫), পিতা মৃত নজিব উদ্দিন, বেগমগঞ্জ, নোয়াখালী; রাজু (২৫), পিতা তোফাজ্জল, পীরগঞ্জ, রংপুর; করিমুল (২৪), পিতা তবিবর, পার্বতীপুর, দিনাজপুর; জিয়ারুল (৩০), পিতা মৃত আব্বাস, আমবাড়ী, পার্বতীপুর; মেহেরাফ (৩৫), হাবড়া, পার্বতীপুর; শেখ আনোয়ার, পিতা মৃত আব্দুল বারী, আরএমএস অফিস, খুলনা; ইউনুস (৫৫), পিতা ইছাহাক, আরএমএস অফিস, খুলনা; আমজাদ (৫০) পিতা মৃত মনির, রাজবাড়ী, দিনাজপুর; আব্দুল মান্নান (৩৮), পিতা আজিমুদ্দিন, চিরিরবন্দর, দিনাজপুর; ফজলু (৪৫), পিতা আব্দুস সামাদ, নবাবগঞ্জ, দিনাজপুর; গোলাম রাব্বানী (৩৭), পিতা মৃত জবেদ আলী, ভবানীপুর, দিনাজপুরকে ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেয়া হয়। পার্বতীপুর কেন্দ্রীয় লোকমোটিভ কারখানার (কেলোকা) প্রধান নির্বাহী হাসান মনছুর ও সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানার বিভাগীয় তত্ত্বাবধায়ক মঞ্জুরুল আলম চৌধুরীর নেতৃত্বে দু’টি টিম সকাল ৭টায় ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। ফুলবাড়ী রেল স্টেশন অফিস সূত্রে জানা গেছে, ঘটনার সময় স্টেশন মাস্টার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন সহকারী স্টেশন মাস্টার (এএসএম) আব্দুল হামিদ। ফুলবাড়ী সার্কেল এএসপি সুশান্ত সরকার ও ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ রবিউল ইসলাম খান ঘটনার পরপরই ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধারকাজ শুরু করেন ও জন সাধারণের যানমালের নিরাপত্তায় বিশেষ দায়িত্ব পালন করেন বলেন জানান। অপর দিকে ঘটনার পর ফুলবাড়ী ফায়ার সার্ভিসের একটি টিম উদ্ধারকাজ শুরু করে। প্রায় আট ঘণ্টা পর দুপুর ১২টার দিকে উদ্ধারকাজ শেষ হলে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়। দুর্ঘটনার পর ফুলবাড়ী রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার আ: হামিদ, একতা এক্সপ্রেস ট্রেনের চালক, সহকারী চালক ও পরিচালকসহ চারজনকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। দুর্ঘটনাকে কেন্দ্র করে রেলওয়ে পশ্চিম জোনের দু’টি ও জেলা প্রশাসনের নেতৃত্বে একটিসহ মোট তিনটি তদন্ত কমিটি গঠন হয়েছে। তদন্ত কমিটিকে তিন কার্য দিবসের মধ্যে প্রবিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। দিনাজপুর জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে গঠিত তদন্ত কমিটিতে রয়েছেন দিনাজপুর জেলা প্রশাসক আহম্মেদ আল রাজী, দিনাজপুর পুলিশ সুপার সরোয়ার মোর্শেদ শামীম, ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মনিরুজ্জামান, সহকারী পুলিশ সুপার সার্কেল সুশান্ত সরকার, ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ রবিউল ইসলাম খান ও তদন্ত অফিসার হরিদাশ মহন্ত। অপর দিকে রেলওয়ে পশ্চিম জোনের জিএম ফেরদৌস আলম ও বিভাগীয় জিএম পংকোজ কুমার দে সহ বিভাগীয় প্রধানদের সমন্বয়ে গঠিত তদন্ত কমিটিতে রয়েছেন প্রধান প্রকৌশলী কাজী রফিকুল আলম, প্রধান প্রকৌশলী সঙ্কেত ও টেলিযোগাযোগ আবুল কালাম, প্রধান পরিচালক কর্মকর্তা মোশারফ হোসেন, প্রধান যন্ত্র প্রকৌশলী দুলাল কুমার রায় ও মাঠপর্যায় তদন্ত কমিটির প্রধান বিভাগীয় পরিবহন কর্মকর্তা সুজিত কুমার বিশ্বাস, বিভাগীয় প্রকৌশলী মনিরুল ইসলাম ফিরোজী, বিভাগীয় সঙ্কেত ও টেলিযোগাযোগ প্রকৌশলী মিজানুর রহমান, বিভাগীয় মেডিক্যাল অফিসার আনোয়ার হোসেন, বিভাগীয় যন্ত্র প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

উৎস- নয়াদিগন্ত

Leave a Reply