বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১, ১৪ শ্রাবণ ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

টানা অবরোধে বিচ্ছিন্ন রাজধানী

hortal-shapla

বিরোধীদলের ডাকা টানা অবরোধ কর্মসূচিতে সারাদেশ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে রাজধানী ঢাকা। সোমবার তৃতীয় দিনে ঢাকা থেকে দুরপাল্রার কোন বাস ছেড়ে যায়নি। এমনকি ঢাকার বাইরে থেকে কোন পরিবহন ঢাকায় প্রবেশ করতে পারেনি। অভ্যন্তরীণ রুটে কিছু বাস চলাচল করলেও সংখ্যা ছিল খুবই কম। দোকানপাট তেমন খোলেনি। রাস্তায় মানুষের সংখ্যা কমে গেছে। স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ। ব্যাংক ব্যবসায়ও ধ্বস নেমেছে। ব্যাংকগুলোতে লেনদেন কমেছে আশংকাজনক হারে। এদিকে অবরোধের সমর্থনে সোমবার রাজধানীতে বাস টেম্পো ও অটোরিক্সায় অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। সকালে লালবাগ এলাকায় ঢাকেশ্বরী মন্দিরের পার্শ্বে সেফটি পরিবহনের একটি বাসে আগুন দেয় অবরোধকারীরা। এটি পল্লবী রুটে চলাচল করতো। সকালে মিটফোর্ড এলাকায় একটি ম্পো এবং অটোরক্সিায় অগ্নিসংযোগ করা হলে রাস্তায় গাড়ি চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এছাড়াও রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে যুবদল, ছাত্রদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলসহ ছাত্রশিবিরি মিছিল করেছে।রাজধানীর কারওয়ান বাজারে পুলিশকে লক্ষ্য করে ককটেল নিক্ষেপ করেছে অবরোধকারীরা। ১৮ দলের ডাকা অবরোধের তৃতীয় দিন সোমবার সকাল সাতটার দিকে কারওয়ান বাজারে সিএ ভবনের সামনে এ ঘটনা ঘটে।প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সকাল সাতটার দিকে কারওয়ান বাজার এলাকায় অবরোধের সমর্থনে বেশ কয়েকজনের একটি দল মিছিল বের করে। সিএ ভবনের সামনে আগে থেকেই দাঁড়িয়ে থাকা পুলিশের একটি গাড়িকে লক্ষ্য করে মিছিল থেকে পরপর তিনটি ককটেল ছোঁড়া হয়। এরপরই মিছিলকারীরা দ্রুত পালিয়ে যান। তবে এ ঘটনায় পুলিশের কোনো সদস্য আহত হননি। পুলিশ কাউকে আটক করতে পারেনি।যাত্রাবাড়ীর ধোলাইপাড় নয়াবাজার ব্রিজের কাছে দুটি গাড়িতে আগুন দিয়েছে অবরোধকারীরা। ১৮ দলের ডাকা ৭২ ঘন্টা অবরোধের তৃতীয় দিন সোমবার সকাল ৯টায় একটি টেম্পো ও একটি অটোরিকশায় আগুন দেয় তারা।প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, অবরোধের সমর্থনে মিছিল নিয়ে এসে কয়েকজন যুবক ওই এলাকায় গাড়ি দুটিতে আগুন দিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায়। তবে এতে কেউ আহত হননি বলে জানা যায়।লালবাগ পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার আবদুস সালাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনার পর ওই এলাকায় পুলিশ তল্লাশি চালিয়েছে। তবে কেউ আটক হয়নি।
উৎস-যুগান্তর

Leave a Reply