শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ১৫ শ্রাবণ ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে ইসির বৈঠক

ec

 

বাংলাদেশে নির্বাচন নিয়ে রাজনৈতিক সংকটের মধ্যে দেশের আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীগুলোর সঙ্গে বৈঠকে বসেছে নির্বাচন কমিশন। বিকাল ৩টায় শেরেবাংলা নগরে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের সভাকক্ষে এই বৈঠক শুরু হয়। আগামী ৫ই জানুয়ারি অনুষ্ঠেয় ১০ম সংসদ নির্বাচনের প্রস্তুতি হিসেবে এ বৈঠক থেকেই সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত হবে বলে জানা গেছে।নির্বাচন কমিশন সূত্র জানায়, আইন শৃঙ্খলাবাহিনীগুলোর সঙ্গে বৈঠকে নির্বাচনী দায়িত্বে কবে থেকে সেনা মোতায়েন করা হবে এবং এরপর সেনাবাহিনী কতদিন মাঠে থাকবে এই বৈঠকে তা নির্ধারিত হবে।বৃহস্পতিবার বিকালে শেরেবাংলা নগরে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দীন আহমেদ বলেন, প্রত্যেকবারের মতো এবারও নির্বাচন পরিচালনায় আমাদের সেনা বাহিনীর সহযোগিতা নিতে হবে। আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি শান্ত রাখার জন্য সেনাবাহিনীর বিকল্প নেই। দেশের সার্বিক অবস্থায় নির্বাচন কমিশনের ব্যবস্থা সম্পর্কে শুক্রবারই জানা যাবে বলেও জানান তিনি।
এদিকে নির্বাচন কমিশনার মোহাম্মদ শাহনেওয়াজ বিবিসির সাথে আলাপাকালে বলেছেন, সেনাবাহিনীর জ্যেষ্ঠ প্রতিনিধি, গোয়েন্দা বাহিনীর সদস্য, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, বিভিন্ন জেলার রিটার্নিং অফিসাররা আজকের বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন। তিনি জানান, সবার কাছ থেকে সব জেলার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি তারা জানবেন, বিভিন্ন জায়গার গোয়েন্দা রিপোর্টও নেয়া হবে। এবং সবকিছু জেনে নির্বাচনের জন্য কবে থেকে সেনা মোতায়েনসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নিয়োজিত করা হবে সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে।মিঃ শাহনেওয়াজ বলেন, সেনাবাহিনীর উপস্থিতি অনেক জায়গায় শান্ত পরিবেশ সৃষ্টি করে এটা বারবার দেখা গেছে। মূলত সুন্দরভাবে ভোট গ্রহণ করার জন্য এবং যারা ভোটার তারা যেন নির্বিঘ্নে ও নিশ্চিন্তে যেন ভোট দিতে পারে সেজন্য সেনা নিয়োগের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।নির্বাচনে সেনা মোতায়েনের পর তা কতদিন পর্যন্ত সে বিষয়েও আলোচনার মাধ্যমে আজ সিদ্ধান্ত আসতে পারে বলে জানিয়েছেন মোঃ শাহনেওয়াজ। দেশের পরিস্থিতির উপর সব কিছু নির্ভর করবে জানিয়ে তিনি বলেন, যেসব জায়গায় ইতিমধ্যে প্রার্থীরা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন, সেসব জায়গাতে সেনা মোতায়েন হবে না।

Leave a Reply