Sunday, September 23Welcome khabarica24 Online

বাংলাদেশে বিনিয়োগ বাড়াতে চায় ভারত

শিল্প খাতের আনুষঙ্গিক উপকরণসহ (এক্সেসরিজ) ভারী শিল্প কারখানায় বিনিয়োগ আরও বাড়াতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে ভারত। শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমুর সঙ্গে গতকাল সৌজন্য সাক্ষাতে এ আগ্রহের কথা জানান বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাই কমিশনার পঙ্কজ শরণ। বৈঠকে শিল্প সচিব মোহাম্মদ মঈনউদ্দীন আবদুল্লাহ্‌সহ শিল্প মন্ত্রণালয় ও ভারতীয় হাই কমিশনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। সাক্ষাৎ শেষে শিল্পমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ভারতের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে অনুষ্ঠিত বৈঠকে বিভিন্ন বিষয়ে দ্বিপক্ষীয় আলোচনা হয়েছে। ভারত বাণিজ্য বৈষম্য কমাতে বাংলাদেশে বিনিয়োগের আগ্রহ দেখিয়েছে। বাংলাদেশে গাড়ির টায়ারসহ বিভিন্ন এক্সেসরিজের কারখানা নির্মাণ করতে চায় ভারত। এ জন্য সে দেশের বড় বড় শিল্প মালিকরা বাংলাদেশ ভ্রমণ করবেন বলে ভারতের রাষ্ট্রদূত জানিয়েছেন। তিনি আরও বলেন, এছাড়া ভারতে বাংলাদেশী পণ্যের রপ্তানি বাড়াতে বিদ্যমান অশুল্ক বাধা দূরীকরণ ও বিএসটিআইকে আরও শক্তিশালী করতে সহায়তা করবে ভারত। তবে বৈঠকের বিষয়ে ভারতের রাষ্ট্রদূত পঙ্কজ শরণ গণমাধ্যমের সামনে কথা বলেননি। মন্ত্রী বলেন, ভারতে পণ্য রপ্তানির ক্ষেত্রে বিদ্যমান প্রতিবন্ধকতা দূরীকরণে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। যেসব পণ্যের অনুকূলে বিএসটিআই’র মানসনদ ভারতীয় জাতীয় মান নির্ধারণী সংস্থা এনএবিএল ও এনএবিসিবি’র অ্যাক্রেডিটেশন অর্জন করেছে, বাংলাদেশী উদ্যোক্তারা সেগুলো সহজেই ভারতে রপ্তানির সুযোগ পাবেন। বৈঠকে সরকারের শিল্পনীতি, বিএসটিআই’র আধুনিকায়ন, দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্যের ক্ষেত্রে বিদ্যমান প্রতিবন্ধকতা দূরীকরণ, তথ্য-প্রযুক্তি খাতের সহায়তাসহ অন্য বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। শিল্পমন্ত্রী বলেন, স্বনির্ভর শিল্প খাত গড়ে তুলতে বাংলাদেশে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের প্রসারের ওপর বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার। তিনি বলেন, দেশের শিল্প খাতের উন্নয়নে ভারতের সঙ্গে ইস্যুভিত্তিক আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। শিল্প খাতে দ্বিপক্ষীয় সহায়তার ক্ষেত্র চিহ্নিত করতে বাংলাদেশ অগ্রাধিকার তালিকা প্রণয়ন করবে। বৈঠক শেষে ভারতীয় হাই কমিশনার পঙ্কজ শরণ গণমাধ্যমের সামনে কোন বক্তব্য না দিলেও বৈঠক সূত্র জানায়, বাংলাদেশের ফার্মাসিউটিক্যাল ও এসএমই খাতের উন্নয়নের প্রশংসা করেছেন তিনি।

Leave a Reply