মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

মন্ত্রিসভার বৈঠকে মহসিন আলীকে সতর্ক করলেন প্রধানমন্ত্রী

134_133376

নানা বিতর্কিত বক্তব্য ও কর্মকাণ্ডের কারণে সমাজকল্যাণ মন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলীকে সতর্ক করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মন্ত্রিসভা বৈঠকে অনির্ধারিত আলোচনায় প্রধানমন্ত্রী মন্ত্রীকে সতর্ক করেন। সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সভাকক্ষে সোমবার এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। প্রধানমন্ত্রী এ সভায় সভাপতিত্ব করেন।মন্ত্রিসভা বৈঠকে উপস্থিত একজন মন্ত্রী মহসিন আলীকে সতর্ক করার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।প্রধানমন্ত্রী অনির্ধারিত আলোচনায় মহসিন আলীকে উদ্দেশ করে রসিকতার ছলে বলেন, কি হলো আপনার? মঞ্চে সিগারেট খেলেন, পত্রিকায় আসলো। এরপর সিগারেট ছেড়ে দিলেন। এগুলো তো আপনার জন্য ভালোই। এরপর শেখ হাসিনা সংবাদপত্র ও সাংবাদিকতা নিয়ে নানা বিতর্কিত মন্তব্যের প্রসঙ্গ তুলে সমাজকল্যাণ মন্ত্রীকে সতর্ক করে দেন, যাতে তিনি ভবিষ্যতে এ ধরনের কোন মন্তব্য করে বিতর্ক সৃষ্টি না করেন।বৈঠকে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম সমাজকল্যাণ মন্ত্রীর উদ্দেশে বলেন, খবিশ, রাবিশ কাছাকাছি শব্দ। এভাবে খবিশ বলা কোথায় পেলেন?মহসিন আলীও নাকি তৎক্ষণাৎ জবাব দেন, খবিশ, রাবিশ এক জায়গা থেকেই এসেছে কিনা তাই।সিনিয়র একজন মন্ত্রী আলোচনায় অংশ নিয়ে বলেন, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বিভিন্ন সময়ে ‘রাবিশ’ শব্দটি ব্যবহার করে বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন। মহসিন আলীও সাংবাদিকদের ‘খবিশ’ বলে বিতর্কের সৃষ্টি করেছেন। দু’জনেরই নির্বাচনী এলাকা সিলেট বিভাগে। নিয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকে সিলেটের দু’মন্ত্রী নিয়ে সমালোচনা করেন সিনিয়র মন্ত্রীরা।
উল্লেখ্য, শনিবার সিলেট জেলা পরিষদ মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সমাজকল্যাণ মন্ত্রী সাংবাদিকদের খবিশ, চরিত্রহীন বলে আখ্যায়িত করলে দেশব্যাপী সমালোচনার ঝড় উঠে। এরপর সাংবাদিকদের ক্ষোভের মুখে রবিবার তিনি দুঃখও প্রকাশ করেন। এর আগেও একটি বিদ্যালয়ের অনুষ্ঠানের মঞ্চে শিশুদের সামনে ধূমপান করে বিতর্কিত হন মহসিন আলী। পরে তিনি এ ঘটনায়ও দুঃখ প্রকাশ করেন।২৩ জুলাই রাজধানীর সমাজসেবা অধিদফতর মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে প্রায় পুরোটা সময় ঘুমিয়ে কাটিয়ে দেন। প্রধানমন্ত্রী তনয়া পুতুলের উপস্থিতিতে এ অনুষ্ঠানের ছবি বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হলে সরকারের সমালোচনা হয়।