মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ৮ আষাঢ় ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

বাংলাদেশ সফর করবেন ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট

untitled-4_43105

ব্রাজিলের পুনঃনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট দিলমা রৌসেফকে বাংলাদেশে সফরের আনুষ্ঠানিক আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। গত ১০ নভেম্বর নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূত মিজারুল কায়েস রাজধানী ব্রাসিলিয়াতে রাষ্ট্রপতি ভবনে পরিচয়পত্র পেশকালে বাংলাদেশ সরকারের তরফ থেকে এই আমন্ত্রণ জানান ব্রাজিলীয় সরকার প্রধানকে। এ সময় দিলমা রৌসেফ সানন্দে আমন্ত্রণ গ্রহন করে তার মেয়াদকালীন নিকট ভবিষ্যতের যে কোন সুবিধাজনক সময়ে বাংলাদেশ সফর করবেন বলে তিনি জানান।

প্রেসিডেন্ট হাউস ‘প্লানাল্টো প্যালেস’-এ আয়োজিত পরিচয়পত্র (ক্রেডেনশিয়াল) প্রদান অনুষ্ঠানে এ সময় উপস্থিত ছিলেন ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী লুইস আলবের্তো ফিগুয়েরেদো মাশাদোসহ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র কর্মকর্তারা। দ্বিতীয় দফায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার জন্য বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উষ্ণ অভিনন্দন পৌঁছে দেন রাষ্ট্রদূত মিজারুল কায়েস। শুভেচ্ছা গ্রহণ করে প্রেসিডেন্ট দিলমা বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতকে আশ্বাস দেন তার দায়িত্বপালনকালে সরকারের তরফ থেকে সর্বাত্মক সহযোগিতা প্রদানের।

সাম্প্রতিক জাতীয় নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট দিলমা রৌসেফের অভাবনীয় সাফল্যের কথা স্মরণ করে নিজের তৃপ্তির কথা জানান রাষ্ট্রদূত কায়েস। একই সাথে তিনি ব্রাজিলীয় সরকার প্রধানকে বিশেষভাবে কৃতজ্ঞতা জানান আগের মেয়াদে দায়িত্বে থাকাকালীন বাংলাদেশের সঙ্গে ব্রাজিলের দ্বি-পাক্ষিক অর্থনৈতিক ও বাণিজ্যিক সম্পর্কের ব্যাপক প্রসারে প্রেসিডেন্ট হিসেবে অসামান্য অবদান রাখার জন্য। এর আগে সোমবার সকালে ব্রাজিলীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ব্যবস্থাপনায় বিশেষ মোটর শোভাযাত্রা সহকারে নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূত মিজারুল কায়েসকে সস্ত্রীক বাংলাদেশ দূতাবাস ভবন থেকে সরাসরি প্রেসিডেন্ট প্রাসাদে নিয়ে যাওয়া হয়। দূতাবাসের ডেপুটি চিফ অব মিশন নাহিদা রহমান সুমনা মোটর শোভাযাত্রায় রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে ছিলেন।

উল্লেখ্য, ২৪ সেপ্টেম্বর ব্রাজিলীয় রাজধানীর অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বাংলাদেশ দূতাবাসে রাষ্ট্রদূত হিসেবে যোগ দেন মেধাবী কূটনীতিক মিজারুল কায়েস। সাবেক পররাষ্ট্র সচিব এই ক্যারিয়ার ডিপ্লোমেট সর্বশেষ লন্ডনে বাংলাদেশের হাইকমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ল্যাটিন আমেরিকার ‘ইকোনমিক জায়ান্ট’ ব্রাজিলের সাথে বাংলাদেশের চলমান বন্ধুত্বপূর্ণ দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে আগামী দিনে নবদিগন্তের সূচনা হবে, এই প্রতিবেদকের সাথে আলাপকালে এমন আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন রাষ্ট্রদূত মিজারুল কায়েস।