বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

নারী ভোটার বাড়াতে ইসি’র নানা উদ্যোগ

35227_x2

প্রথম পর্যায়ের ভোটার তালিকা হালনাগাদে আশঙ্কাজনক ভাবে কমেছে নারী ভোটারের সংখ্যা। এ জন্য পরবর্তী দুই ধাপে নারী ভোটার বাড়াতে নানামুখী পদক্ষেপ নিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। নারী ভোটারদের ছবি তোলার জন্য নিয়োগ করা হচ্ছে নারী আলোকচিত্রী। এছাড়া, জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে নারী ও শিশুবিষয়ক বিভিন্ন সংস্থারও সহায়তা কামনা করেছে কমিশন। মাঠ পর্যায়ের নির্বাচন কর্মকর্তাদের কাছে নারী ভোটার কম হওয়ার কারণ খুঁজে বের করতে চিঠি দিয়েছে কমিশন। পাশাপাশি বিশেষ সহায়তা চেয়ে মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়েও চিঠি দেয়া হয়েছে। এবিষয়ে মঙ্গলবার নির্বাচন কমিশনার আবু হাফিজ বলেন, এবার ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রমে নারী ভোটারের সংখ্যা তুলনামূলক কম। নারী ভোটার কম হওয়ার কারণ খুঁজে বের করতে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তাদের চিঠি দেয়া হয়েছে। অনেক জেলা নির্বাচন কর্মকর্তাই জানিয়েছেন কিছু অঞ্চলের নারীরা রক্ষণশীল হওয়ায় তারা পুরুষ আলোকচিত্রীর কাছে ছবি তুলতে চায় না। এ কারণে এসব অঞ্চলের নারীরা ভোটার হতে আগ্রহী নয়। এ জন্য নারীদের ছবি তোলার জন্য নারী আলোকচিত্রী নিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন বলে জানান আবু হাফিজ। দেশজুড়ে ছবিসহ ভোটার তালিকা হালনাগাদের প্রথম পর্যায়ে ১৮১ উপজেলার কাজ শেষ হয়েছে। প্রথম পর্যায়ের ১৮১ উপজেলায় হালনাগাদের তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, পুরুষ ভোটার সংখ্যা নারী ভোটারের চেয়ে অনেক বেশি।
এ পর্যায়ে মোট পুরুষ ভোটার হয়েছেন ৬০ হাজার ৮০৫ জন অন্যদিকে নারী ভোটার হয়েছেন ৪৪ হাজার ৮৪৪ জন। তবে বরাবরই ভোটার তালিকা হালনাগাদে নারী ভোটার বেশি হয়ে আসছিলো। বর্তমানে দ্বিতীয় পর্যায়ের ২১৩ উপজেলায় হালনাগাদ কার্যক্রম চলছে। মহিলা ভোটার অন্তর্ভুক্তির হার আশঙ্কাজনকভাবে কম পরিলক্ষিত হয়েছে উল্লেখ করে চিঠিতে সচেতনতামূলক কর্মসূচি নিতে মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সহায়তা চাওয়া হয়েছে। ইসি’র জ্যেষ্ঠ সহকারী সচিব মাহফুজা আক্তার স্বাক্ষরিত মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে দেয়া চিঠিতে বলা হয়, মহিলা ভোটার অন্তর্ভুক্তির হার বাড়াতে অধিদপ্তরের সহায়তা কামনা করছে ইসি। এক্ষেত্রে মহিলাদের ভোটার হতে বিভিন্ন প্রচার-প্রচারণা ও সচেতনতামূলক কর্মসূচি নেয়ার অনুরোধ জানানো হয়। প্রথম ধাপে হালনাগাদ কার্যক্রম ১৫ই মে থেকে চলে ২৬শে মে পর্যন্ত, দ্বিতীয় ধাপে ১৫ই জুন থেকে চলে ২৪শে জুন পর্যন্ত এবং তৃতীয় ধাপে ১লা সেপ্টেম্বর থেকে ১০ই সেপ্টেম্বর ২০১৪ পর্যন্ত তথ্য সংগ্রহকারীগণ বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটার হওয়ার যোগ্যদের তথ্য সংগ্রহ করবেন।