শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ৭ কার্তিক ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

থাইল্যান্ডে ব্যাংকক দখল অভিযান

4247

থাইল্যান্ডে চলমান সরকার পতন গণআন্দোলন নস্যাৎ করতে শনিবার কয়েকজন অজ্ঞাত বন্দুকধারী তাদেরকে লক্ষ্য করে গুলি চালিয়েছে। এতে ঘটনাস্থলেই ইয়ুত্থানা অং আর্ট (৩০) নামের এক বিক্ষোভকারী নিহত হন আরও চরজন গুরুতর আহত হয়েছেন। তদের মধ্যে দু’জনের অবস্থা আশংকাজনক বলে জানিয়েছেন কর্তব্যরত চিকিৎসকরা। ‘নেটওয়ার্ক অব স্টুডেন্টস অ্যান্ড পিপল ফর রিফর্ম অব থাইল্যান্ডে’র নিরাপত্তাপ্রধান নাসির ইমা বলেন, মধ্যরাতে (আনুমানিক ৩.৩০ মিনিট) হঠাৎ সোনালী রঙের একটি টয়োটা গাড়ি বিক্ষোভকারীদের বিশ্রামস্থল চামাই মারুচেট ব্রিজের পাশে এসে দাঁড়ায়। পরপরই গাড়িটির পেছনের আসনে বসে থাকা ২-৩ জন যুবক আন্দোলন কর্মীদের লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি চালানো শুরু করে। যে বন্দুক দিয়ে তারা গুলি চালিয়েছে সেটি এম-১৬ রাইফেল ছিল বলে জানিয়েছেন নাসির। ঘুমে কাতর বিক্ষোভকারীরা কিছু বুঝে ওঠার আগেই গাড়িটি ঝড়ো গতিতে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। পরে পুলিশ এসে দুর্ঘটনাকবলিত স্থানের নিরাপত্তা আরও জোরদার করেছেন।
থাইল্যান্ডের সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের এ আন্দোলনে গুলি চালানোর ঘটনায় আরও ফুঁসে উঠেছেন বিক্ষোভকারীরা। তাদের মতে, ন্যক্কারজনক এ হামলার পেছনে সরকারের মদদ রয়েছে। সরকারের সজ্ঞানেই এই হামলা চালানো হয়েছে। তবে ইংলাক নেতৃত্বাধীন এই সরকার কোনো পথেই সফল হতে পারবে না। এদিকে গণআন্দোলন ভণ্ডুল করতে বিক্ষোভকারীদের ওপর গুলি চালানোয় তেলে-বেগুনে জ্বলে উঠেছেন গণঅভ্যুত্থানের নেতা সুথেপ থাগসুবান। ব্যাংককের ডেমোক্রেসি মনুমেন্টে বিক্ষোভকারীদের মঞ্চে শনিবার সরকার পতন আন্দোলনের নতুন পরিকল্পনার ঘোষণা দিয়েছেন সুথেপ। ক্ষোভে উš§ুক্ত বিক্ষোভকারীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘রাজধানী ব্যাংকক দখলই হবে আমাদের নতুন বছরের নতুন পদক্ষেপ। ব্যাংককের এক ইঞ্চি মাটিও আমরা ইংলাক বা তার সমর্থকদের জন্য ফাঁকা রাখব না। সরকার পতন আন্দোলনের এটাই হবে প্রথম পদক্ষেপ।যতদিন পর্যন্ত না ইংলাক সরকার পদত্যাগ করছে ততদিন পর্যন্ত আমরা ব্যাংককেই থাকব। ব্যাংককই হবে আমাদের ভিটেবাড়ি। সুথেপ বলেন, আপনারা প্রত্যেকে নিজের পরিবারের সঙ্গে নববর্ষের ছুটি উপভোগ করবেন। ছুুটি শেষেই যাত্রা শুরু করবেন ব্যাংককের উদ্দেশ্যে।২-৩ মাস টিকে থাকার মতো অন্নবস্ত্র ও গাঁট বেঁধে নিয়ে আসবেন। কারণ এসবই হবে আমাদের প্রথম ধাপের আক্রমণ। সমবেত সমাবেশ লক্ষ্য করে সুথেপ আরও বলেন, ব্যাংকককে আমরা কতদিন অবরুদ্ধ করে রাখব তা আমি জানি না। তবে সরকার পতন না হওয়া পর্যন্ত আমাদের ব্যাংককেই থাকতে হবে।অন্যদিকে, সুথেপের ব্যাংকক দখল আন্দোলনই থাইল্যান্ডে সেনা অভ্যুত্থান ঘটানোর সুযোগ সৃষ্টি করবে। আর এর জন্য সুথেপ থাগসুবানই দায়ী থাকবেন বলে বিবৃতি দিয়েছেন ইউনাইটেড ফ্রন্ট ফর ডেমোক্রেসি এগেইনসট ডিকটেটরশিপ (ইউডিডি) সংগঠনের নেতা জাটুপর্ন প্রমপান। তিনি বলেন, সেনাবাহিনী মুখে যাই বলুক ভেতর ভেতর তারা মাঠে নামার প্রস্তুতি নিচ্ছে। দেশের এ অবস্থায় বিরোধীরা যদি সেনাবাহিনীকে প্রশ্রয় দেয় তবে তা থাই গণতন্ত্রের জন্য ধ্বংসাত্মক পরিণতি ডেকে আনবে। তিনি আরও বলেন, থাইল্যান্ডের গণতন্ত্রপ্রিয় মানুষ সেনাতন্ত্র নয়, গণতন্ত্র চায়। যতবারই দেশে সেনা শাসন নেমেছে ততবারই জনগণ তার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছে। জাটুপর্ন বলেন, সামরিক হস্তক্ষেপে নয়, গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতেই থাইল্যান্ডের চলমান রাজনৈতিক অস্থিরতার নিষ্পত্তি চায় জনগণ। থাইল্যান্ডের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ইংলাক সিনাওয়াত্রার পদত্যাগের দাবিতে টানা দুই মাস ধরে বিক্ষোভ করছে বিরোধীদল। এর আগে দেশটির সেনাপ্রধান এক ঘোষণায় জানান, সেনাবাহিনী রাজনীতিতে হস্তক্ষেপ করবে না। তিনি কোনো ধরনের সামরিক অভ্যুত্থানের আশংকাও নাকচ করেন। দেশটিতে এই পর্যন্ত ১৮ বার সেনা অভ্যুত্থান হয়েছে।প্রধানমন্ত্রী ইংলাক সিনাওয়াত্রা তার ক্ষমতাচ্যুত এবং দেশান্তরিত বড় ভাই থাকসিন সিনাওয়াত্রার মতোই দেশ চালাচ্ছেন- এই অভিযোগে সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ শুরু করেন সুথেপ থাগসুবান। সংসদ থেকে পদত্যাগ করে তিনি আন্দোলন শুরু করেন গত ১ নভেম্বর থেকে। বিক্ষোভ ব্যাপক রূপ নেয়ায় নতুন নির্বাচনের ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী ইংলাক। আগামী ২ ফেব্র“য়ারি নির্বাচন হওয়ার কথা।
তবে বিক্ষোভকারীরা বলছে, ইংলাককে ক্ষমতায় রেখে তারা কোনো নির্বাচনে যাবেন না। ২০১১ সালের নির্বাচনে জয়ী হয়ে পুয়ে থাই পার্টির নেতৃত্বে জোট সরকার গঠন করেন ইংলাক।

Leave a Reply