মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ২৮ বৈশাখ ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

চাকরিচ্যুত ৩ র‌্যাব কর্মকর্তাকে গ্রেফতারের নির্দেশ

highcorut_5149

নারায়ণগঞ্জে ৭ জনকে অপহরণ ও হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত চাকরিচ্যুত তিন র‌্যাব কর্মকর্তাকে গ্রেফতারের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের স্বরাষ্ট্র সচিবকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। অভিযুক্ত তিন কর্মকর্তা হচ্ছেন র‌্যাব-১১ এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল তারেক সাঈদ মাহমুদ, সাবেক অধিনায়ক মেজর আরিফ হোসেন ও লে. কমান্ডার এম এম রানা। নারায়ণগঞ্জের তদন্ত প্রক্রিয়া পর্যবেক্ষণে সাবেক একজন প্রধান বিচারপতি অথবা আপিল বিভাগের বর্তমান একজন বিচারপতির নেতৃত্বে স্বাধীন ও নিরপেক্ষ বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিশন গঠনের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে করা রিট আবেদনের শুনানি শেষে রবিবার এ আদেশ দেন বিচারপতি মির্জা হোসেইন হায়দার ও বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশিদ আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ। রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন ড. কামাল হোসেন। সকালে রিট আবেদনটি দায়ের করেন নিহত আইনজীবী অ্যাডভোকেট চন্দন সরকারের জামাতা ডা. বিজয় কুমার পাল, নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট শাখাওয়াত হোসেন খান ও আমরা নারায়ণগঞ্জবাসীর নির্বাহী সভাপতি মাহবুবুর রহমান ইসমাইল। রিটে বিবাদী করা হয়েছে স্বরাষ্ট্র সচিব, আইন সচিব, জনপ্রশাসন সচিব ও জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যানকে। নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র-২ নজরুল ইসলাম ও আইনজীবী চন্দন কুমার সরকারসহ সাতজনকে অপহরণ ও খুনের ঘটনায় র‌্যাব ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীসহ অন্যদের জড়িত থাকার অভিযোগসহ সার্বিক বিষয়ে তদন্তে হাইকোর্টের নির্দেশে গত ৭ মে কমিটি গঠন করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। বিচারপতি মো. রেজাউল হক ও বিচারপতি গোবিন্দ চন্দ্র ঠাকুরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে গত ৫ মে এ তদন্ত কমিটি গঠনের নির্দেশ দিয়েছিলেন। র‌্যাবের সহযোগিতায় সাতজনকে অপহরণের পর হত্যার ঘটনায় ৬ কোটি টাকা লেনদেনের অভিযোগ ওঠার পর হাইকোর্টের এ নির্দেশ আসে।
জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. শাহজাহান আলী মোল্লাকে প্রধান করে সাত সদস্য বিশিষ্ট প্রশাসনিক ওই কমিটি গঠন করা হয়। এ কমিটি ইতোমধ্যেই নারায়ণগঞ্জের ঘটনাস্থল ও লাশ উদ্ধারের স্থান পরিদর্শন, নিহতদের পরিবারের সদস্যদের সাক্ষ্যগ্রহণসহ তদন্ত কাজ শুরু করেছেন। আগামী ১২ মে সোমবার ও ১৫ মে বৃহস্পতিবার প্রশাসনিক এ তদন্ত কমিটি নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে সেভেন মার্ডারের বিষয়ে গণশুনানি করবেন। যে কেউ এ গণশুনানিতে তথ্য দিতে পারবেন। অন্যদিকে র‌্যাব-১১ এর সদস্যদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তদন্তে ৪ সদস্যের পৃথক তদন্ত কমিটি গঠন করেছে র‌্যাব। অভিযুক্ত তিন র‌্যাব কর্মকর্তাকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে।