রবিবার, ১৩ জুন ২০২১, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

কালো পতাকায় শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি ২০ দলের

37017_f4

কালো পতাকা মিছিলের মাধ্যমে সারা দেশে ব্যাপক শোডাউন করেছে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট। গাজায় ইসরাইলি হামলার প্রতিবাদে শান্তিপূর্ণ এ কর্মসূচির মাধ্যমে শুরু হয়েছে বিরোধী জোটের নতুন আন্দোলন। ৫ই জানুয়ারি নির্বাচন পরবর্তী সময়ে রাজধানীতে বিরোধী জোটের এটাই ছিল বৃহত্তম কর্মসূচি। গত বছরের ৫ই মে শাপলা চত্বরে হেফাজতে ইসলামের সমাবেশের পর সর্বাধিক মানুষের সমাগম ঘটে কালো পতাকা মিছিলে। গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির মধ্যেই হাতে কালো পতাকা, ব্যানার, বুকে কালো ব্যাজ ও মাথায় কালো কাপড় বেঁধে রাজপথে নামে গণমানুষের স্রোত। মানুষের ব্যাপক অংশগ্রহণের কারণে মিছিলটির অগ্রভাগ মালিবাগ মোড়ে গিয়ে পৌঁছলে শেষ ভাগ থেকে যায় নয়াপল্টনেই। কাকরাইল মোড় পয়েন্ট অতিক্রম করতেই মিছিলের সময় লাগে ৫০ মিনিটের বেশি। এ সময় নয়াপল্টন থেকে মালিবাগ মোড় পর্যন্ত প্রতিটি পয়েন্টে মোতায়েন করা হয় বিপুল সংখ্যক পুলিশ। কালো পতাকা মিছিলকে কেন্দ্র করে পুলিশের কড়া পাহারার ভেতর বিকাল তিনটায় লাখো নেতাকর্মী জমায়েত হয় নয়াপল্টনে। কমিটি গঠনের পর ঢাকা মহানগরের বিভিন্ন ওয়ার্ড, থানা বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে যে প্রাণচাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে তার স্ফুরণ ঘটে এ মিছিলে। রাস্তার দু’পাশের পথচারী ও আশপাশের ভবন থেকে হাজার হাজার মানুষ মিছিলকে স্বাগত জানায়। কিন্তু কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই শান্তিপূর্ণভাবে মিছিলটি শেষ হয়। কালো পতাকা মিছিলের মাধ্যমে গাজায় ইসরাইলের বর্বর, নির্মম ও নৃশংস হত্যাযজ্ঞের প্রতিবাদ ও হামলার শিকার ফিলিস্তিনের মানুষের পাশে থাকার ঘোষণা দেয় ২০ দল। পাশাপাশি রাজধানীতে এ ইস্যুতেই বড় ধরনের শোডাউন করে নিজেদের অবস্থান জানান দেয় বিরোধী জোট। মিছিল শুরু হলে রাজধানীর মৌচাক থেকে কাকরাইল হয়ে ফকিরাপুল পর্যন্ত যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। শান্তিপূর্ণ মিছিলের জন্য ২০ দলীয় জোটের পক্ষ থেকে প্রতিটি দল ও সংগঠনকে পর্যায়ক্রমে সাজানো হয়। সচরাচর বিএনপির সহযোগী সংগঠন ছাত্রদল এ ধরনের মিছিল বা র‌্যালির শুরুর দিকে থাকলেও এই প্রথম মহিলা দলকে মিছিলের শুরুতে রাখা হয়। এরপর বিএনপি, অঙ্গদল ও শরিকদলগুলোকে সাজানো হয় মালার মতো করে। মহিলা দলের পর ছাত্রদল, জাতীয় পার্টি (জাফর), স্বেচ্ছাসেবক দল, জামায়াতে ইসলামী, বিজেপি, মহানগর বিএনপি, ইসলামী ঐক্যজোট, মৎস্যজীবী দল, মহানগর বিএনপি, এলডিপি, জাগপা, কল্যাণ পার্টি, শ্রমিক দল, ওলামা দল, লেবার পার্টি, জমিয়তে ওলামায়ে ইসলাম, এনপিপি, ডেমোক্রেটিক লীগ (ডিএল), মহানগর বিএনপি, খেলাফত মজলিশ, ন্যাপ ভাসানী, মুসলিম লীগ এবং সর্বশেষ যুবদলের নেতাকর্মীরা মিছিলে যোগ দেন। মিছিলে জামায়াত-শিবির নেতাকর্মীদের উপস্থিতি ছিল লক্ষ্যণীয়। ঢাকা মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক মির্জা আব্বাস মিছিলপূর্ব সংক্ষিপ্ত সমাবেশে নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, এই মিছিল সরকারের বিরুদ্ধে নয়, গাজায় হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে। তাই এখানে সরকারবিরোধী কোন স্লোগান হবে না। তবে মিছিলটি একপর্যায়ে মুখরিত হয়ে ওঠে সরকারের সমালোচনা করে উচ্চারিত স্লোগানে। কালো পতাকা মিছিলে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলাম, ব্রি. জে. (অব.) আসম হান্নান শাহ, এম কে আনোয়ার, ড. মঈন খান, ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া, মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা শামসুজ্জামান দুদু, আবদুল আউয়াল মিন্টু, ২০ দলীয় জোটের নেতাদের মধ্যে খেলাফতে মজলিসের আমীর মাওলানা মুহাম্মদ ইসহাক, ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মাওলানা আবদুল লতিফ নেজামী, জাগপা সভাপতি শফিউল আলম প্রধান, জাতীয় পার্টি (জাফর) মহাসচিব মোস্তফা জামাল হায়দার, কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মে. জে. (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, এনপিপির ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, লেবার পার্টির সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, এনডিপি সভাপতি গোলাম মোর্ত্তুজা, বাংলাদেশ ন্যাপের জেবেল রহমান গণি, জামায়াতের কর্মপরিষদ সদস্য ড. আবদুল্লা মো. তাহের, সেলিম উদ্দিন খান, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব আমান উল্লাহ আমান, বরকত উল্লাহ বুলু, রিজভী আহমেদ, মো. শাহজাহান, সালাহউদ্দিন আহমেদ, যুবদল সভাপতি সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, ঢাকা মহানগর বিএনপির সদস্যসচিব হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা খায়রুল কবির খোকন, নাজিমউদ্দিন আলম, নাসির উদ্দিন অসীম, নুরে আরা সাফা, শিরিন সুলতানা, সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু, ছাত্রদল সভাপতি আবদুল কাদের ভূঁইয়া জুয়েল, শ্রমিক দল সভাপতি আনোয়ার হোসাইন, ওলামা দল সভাপতি হাফেজ এমএ মালেকসহ যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, ছাত্রদল, মহিলা দল, ওলামা দল, শ্রমিক দল, তাঁতী দল, ঢাকা মহানগর বিএনপির বিভিন্ন ওয়ার্ড-থানা শাখার নেতাকর্মীরা মিছিলে অংশ নেন। উল্লেখ্য, আগামী ১৯শে আগস্ট রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালা ও বিরোধী নেতাকর্মীদের নির্যাতনের প্রতিবাদে সমাবেশ করবে ২০ দলীয় জোট।
কালো পতাকা মিছিল-পূর্ব সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ফিলিস্তিনের গাজায় ইসরাইলি বাহিনীর বর্বর হামলায় নিরীহ নারী ও শিশুসহ প্রায় দুই সহস্রাধিক মুসলমান নিহত হয়েছে। এই বর্বর হামলার বিরুদ্ধে আমাদের এই শান্তিপূর্ণ কালো পতাকা মিছিল। আমরা ইসরাইলের প্রতি আহ্বান জানাবো, অবিলম্বে ওই হত্যাযজ্ঞ বন্ধ করুন। তাদের দখল করা জমি, বাড়ি-ঘরসহ ন্যায্য অধিকার ফিরিয়ে দিন। এই নৃশংস হত্যাযজ্ঞের নিন্দা জানিয়ে মির্জা আলমগীর বলেন, আমরা বিশ্ববাসীকে জানাতে চাই, ইসরাইলের আগ্রাসনের শিকার ফিলিস্তিনের নিরীহ মুসলমানদের পাশে বাংলাদেশের মানুষ আছে এবং থাকবে। বাংলাদেশের মানুষ গণতন্ত্রের পক্ষে রয়েছে। আপনারাও গাজার মানুষের পাশে দাঁড়ান। সভাপতির বক্তৃতায় ঢাকা শান্তিপূর্ণ মিছিলে উপস্থিত হওয়ার জন্য ২০ দলের পক্ষ থেকে দলের নেতাকর্মীদের কৃতজ্ঞতা ও শুভেচ্ছা জানান মির্জা আব্বাস। মিছিল-পূর্ব সংক্ষিপ্ত সমাবেশ পরিচালনা করেন মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব ও স্বেচ্ছাসেবক দল সভাপতি হাবিব-উন নবী খান সোহেল।
৩০ মিনিটে জনসমুদ্রে পরিণত নয়াপল্টন
কালো পতাকা মিছিলে যোগ দিতে দুপুর একটা থেকেই নয়াপল্টন কার্যালয়ের সামনে জড়ো হতে শুরু করেন ২০ দলের নেতাকর্মীরা। এ সময় দু’টি ট্রাক জোড়া দিয়ে কার্যালয়ের সামনে তৈরি করা হয় অস্থায়ী মঞ্চ। কার্যালয়ের আশপাশে টাঙানো হয় কয়েকটি মাইক। প্রথমে বিচ্ছিন্নভাবে ২০ দলের নেতাকর্মীরা নয়াপল্টনে জড়ো হতে থাকেন। বেলা ২টার পর থেকে রাজধানীর বিভিন্ন থানা ও ওয়ার্ডের নেতাকর্মীরা খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে নয়াপল্টনে আসতে থাকেন। কিন্তু পৌনে তিনটা থেকে সোয়া তিনটা মাত্র ৩০ মিনিটে রীতিমতো জনসমুদ্র হয়ে পড়ে নয়াপল্টন ও আশপাশের এলাকা। এ সময় তাদের সবার হাতে ছিল কালো পতাকা ও গাজায় নিরীহ নারী-শিশুদের ওপর ইসরাইলি নারকীয় হামলার ছবি সংবলিত ব্যানার। জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা আরবিতে লেখা ব্যানার ও গাজায় নারকীয় হামলার ছবি সংবলিত ফেস্টুন নিয়ে মিছিলে যোগ দেন। তারা ইসরাইলি গণহত্যা বন্ধের প্রতিবাদে মুহুর্মুহু স্লোগানে প্রকম্পিত করে তোলেন নয়াপল্টন এলাকা। এরপর বিকাল ৩টা ৪০ মিনিটে নয়াপল্টন কার্যালয়ের সামনে থেকে কালো পতাকা মিছিল শুরু হয়। একপর্যায়ে মিছিলের অগ্রভাগ নাইটেঙ্গেল মোড়, কাকরাইল, শান্তিনগর হয়ে মালিবাগ মোড়ে গিয়ে ঠেকলেও মিছিলের শেষভাগ নয়াপল্টন কার্যালয়ে থেকে যায়। বিকাল পৌনে ৫টায় শান্তিপূর্ণভাবেই শেষ হয় কালো পতাকা মিছিল। এদিকে বিরোধী জোটের কালো পতাকা মিছিলকে ঘিরে ব্যাপক নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলা হয়। দুপুর থেকেই নয়াপল্টন এলাকার প্রতিটি অলিগলিতে ব্যাপক সংখ্যক পুলিশ ও সাদা পোশাকের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের মোতায়েন করা হয়। তবে কোন র‌্যাব সদস্যকে নয়াপল্টন এলাকায় আইনশৃঙ্খলার দায়িত্ব পালন করতে দেখা যায়নি।
খুলনায় কালো পতাকা মিছিল
স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা থেকে জানান, ফিলিস্তিনের গাজায় ইসরাইলি বাহিনীর নারকীয় গণহত্যার প্রতিবাদে কেন্দ্র ঘোষিত কালো পতাকা মিছিল করেছে ২০ দলীয় জোট খুলনা মহানগর ও জেলা শাখা। সকাল ১১টায় নগরীর কেডি ঘোষ রোড থেকে শুরু হয়ে মিছিলটি নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। নগর বিএনপির সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জুর সভাপতিত্বে ও আসাদুজ্জামান মুরাদের পরিচালনায় সমাবেশে কেসিসির মেয়র মনিরুজ্জামান মনি, জেলা সাধারণ সম্পাদক শফিকুল আলম মনা, সাবেক এমপি কাজী সেকেন্দার আলী ডালিম, মোল্যা আবুল কাশেম, মীর কায়সেদ আলী, ফখরুল আলম, অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, জামায়াতের মহানগরী নায়েবে আমীর শফিকুল আলম ও সহকারী সেক্রেটারি খান গোলাম রসুল, বিজেপির সভাপতি এডভোকেট লতিফুর রহমান লাবু প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
বরিশালে কালো পতাকা মিছিল
স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল থেকে জানান, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে বরিশালে কালো পতাকা মৌন মিছিল করেছে বিএনপি। গতকাল সকাল সাড়ে ১১টায় নগরীর অশ্বিনী কুমার হল সংলগ্ন জেলা ও মহানগর বিএনপির কার্যালয়ের সামনে থেকে পাচঁশতাধিক নেতাকর্মী জড়ো হয়ে কালো পতাকা মিছিল বের করে। বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও মহানগর সভাপতি মজিবর রহমান সরোয়ারের নেতৃত্বে মিছিলে বরিশাল (দক্ষিণ) বিএনপি সভাপতি এবায়দুল হক চান, উত্তর জেলা বিএনপির সভাপতি মেজবাহ উদ্দিন ফরহাদ, মহানগর সম্পাদক কামরুল হাসান শাহিন, দক্ষিণ জেলা সম্পাদক আবুল কালাম শাহিন, কাউন্সিলর জিয়া উদ্দিন সিকদার, সদর উপজেলা সভাপতি এনায়েত হোসেন বাচ্চুসহ সিনিয়র নেতারা অংশ নেন। ওদিকে গাজায় ইসরাইলি হামলার প্রতিবাদে ইসলামী আন্দোলন মিছিল করেছে বরিশাল মহানগরে। পূর্ব ঘোষণা ছাড়া হাজার হাজার নেতাকর্মীর এ মিছিল নগরীকে কাপিয়ে দেয়। বিকাল সোয়া ৫টা থেকে শুরু হওয়া মিছিলটি প্রায় ৩ কিলোমিটার লম্বা ছিল। সাধারণ মানুষর মতে গত ৩ বছরের মধ্যে এটি ছিল বরিশালে সর্ববৃহৎ মিছিল। ইশা আন্দোলনের মুহতারাম আমির, চরমোনাই পীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল কমিমের নেতৃত্বে মিছিলে আনুমানিক ২৫-৩০ হাজার মানুষ অংশ নেয়।
রাজশাহীতে কালো পতাকা মিছিল
স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী থেকে জানান, ফিলিস্তিনে নারী ও শিশুদের ওপর ইসরাইলের নৃশংস হামলার প্রতিবাদ জানিয়ে রাজশাহীতে কালো পতাকা মিছিল ও সমাবেশ করেছে বিএনপি। রাজশাহী মহানগর বিএনপির উদ্যোগে শনিবার দুপুরে এই কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। নগরীর ভুবনমোহন পার্ক থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিলটি বের হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও মহানগর সভাপতি মিজানুর রহমান মিনুর নেতৃত্বে মিছিলে বিএনপি নির্বাহী কমিটির সদস্য শহিদুন নাহার কাজি হেনা, মহানগর বিএনপির সম্পাদক শফিকুল হক মিলন, বোয়ালিয়া থানা সভাপতি সাইদুর রহমান পিন্টু অংশ নেন। অন্যদিকে রাজশাহী জেলা বিএনপির উদ্যোগে পবা উপজেলার নওহাটা মোড় ও মোহনপুর উপজেলায় কালো পতাকা মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসব কর্মসূচিতে নেতৃত্ব দেন বিএনপির কেন্দ্রীয় বিশেষ সম্পাদক ও জেলা সভাপতি নাদিম মোস্তফা।
মৌলভীবাজারে কালো পতাকা মিছিল
মৌলভীবাজার প্রতিনিধি জানান, গাজায় ইসরাইলি হামলার প্রতিবাদে মৌলভীবাজার জেলা বিএনপি কালো পতাকা মিছিল করেছে। দুপুর সাড়ে ১২টায় জেলা বিএনপির সভাপতি এম নাসের রহমানের নেতৃত্বে জেলা শহরের পৌর পার্ক থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে সেন্ট্রাল সড়ক প্রদক্ষিণ করে গার্ডেন সিটির সম্মুখে গিয়ে শেষ হয়। জেলা বিএনপি নেতা মুজিবুর রহমান মুজিব, ইউছুপ আলী, এম এ মুকিত, মৌলভী আবদুল ওয়ালী সিদ্দিকী, আনোয়ার আক্তার চৌধুরী শিউলি, আতিকুল ওয়াহেদ, ফখরুল ইসলাম, আব্দুর রহিম রিপন, রানা খান শাহিন, ফারুক আহমদ, মুজিবুর রহমান মজনু, সৈয়দ ফয়ছল আহমদ, হেলু মিয়া মিছিলে অংশ নেন।
রংপুরে কালো পতাকা মিছিল ও সমাবেশ
জাভেদ ইকবাল রংপুর থেকে জানান, কেন্দ্রীয় কর্মসুচির অংশ হিসেবে রংপুরে কালো পতাকা মিছিল ও সমাবেশ করেছে জেলা ও মহানগর বিএনপি। গ্র্যান্ড হোটেল মোড়ের দলীয় কার্যালয় থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে। দলীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশে জেলা বিএনপির সভাপতি এমদাদুল হক ভরসা, সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, মহানগর বিএনপির সভাপতি মোজাফ্‌ফর হোসেন, সম্পাদক সামসুজ্জামান সামু ও বিএনপি নেতা পরিতোষ চক্রবর্তী বক্তব্য দেন।
ময়মনসিংহে কালো পতাকা মিছিলে পুলিশের বাধা
স্টাফ রিপোর্টার, ময়মনসিংহ থেকে জানান, ফিলিস্তিনের গাজায় ইসরাইলের গণহত্যার প্রতিবাদ ও হত্যা বন্ধের দাবিতে ময়মনসিংহে ২০ দলীয় জোটের কালো পতাকা মিছিলে বাধা দিয়েছে পুলিশ। দুপুরে শহরের হরিকিশোর রায় রোডের জেলা বিএনপির কার্যালয় থেকে কালো পতাকা মিছিল বের করে নেতাকর্মীরা। মিছিলটি শহরের নতুন বাজার ট্রাফিক মোড় হয়ে বিদ্যাময়ী সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ের সামনে গেলে পুলিশ বাধাঁ দেয়। তবে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই মিছিল শেষ করে বিরোধী নেতাকর্মীরা।
গাজীপুরে কালো পতাকা মিছিল ও সমাবেশ
স্টাফ রিপোর্টার, গাজীপুর থেকে জানান, গাজায় গণহত্যা বন্ধের দাবিতে কালো পতাকা মিছিল ও সমাবেশে করেছে গাজীপুর জেলা বিএনপি। গতকাল সকালে শহরের রাজবাড়ি রোডের দলীয় কার্যালয় থেকে মিছিলটি বের হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে নগরীর শিববাড়ি মোড়ে গিয়ে শেষ হয়। মিছিলপূর্ব সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা ও সাবেক এমপি হাসান উদ্দিন সরকার। বিএনপি নেতা আহমেদ আলী রুশদীর সভাপতিত্বে সমাবেশে জেলা বিএনপির যুগ্ন সম্পাদক ডা. মাজহারুল আলম, কাজী মাহবুব-উল হক গোলাপ, সাখাওয়াত হোসেন সবুজ, হান্নান মিয়া হান্নু, জয়নাল আবেদীন তালুকদার বক্তব্য দেন।
নাটোরে কালো পতাকা মিছিল-সমাবেশ
নাটোর প্রতিনিধি: কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে কালো পতাকা মিছিল ও সমাবেশ করেছে নাটোর বিএনপি। গতকাল দুপুরে শহরের আলাইপুরস্থ জেলা বিএনপির দলীয় কার্যালয় থেকে দলের নেতা-কর্মীরা কালো পতাকা হাতে মিছিল বের করে। মিছিলটি প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে শহরের আলাইপুর উত্তরা সুপার মার্কেট হয়ে পুনরায় দলীয় কার্যালয়ের সামনে ফিরে যায়। পরে সেখানে এক সমাবেশে বক্তব্য দেন জেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক আমিনুল হক, সিনিয়র সহসভাপতি কাজী গোলাম মোর্শেদ।
পিরোজপুরে বিএনপি একাংশের কালো পতাকা মিছিল
মাহামুদুর রহমান মাসুদ, পিরোজপুর প্রতিনিধি জানান, নিরস্ত্র ফিলিস্তিনীদের উপর ইসরাইলি হামলার প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে পিরোজপুরে কালো পতাকা মিছিল ও সমাবেশ করেছে ২০ দলীয় ঐক্যজোট। অন্যদিকে বিএনপির অপর একটি গ্রুপ শহরে আলাদা কালোপতাকা মিছিল ও সমাবেশ করেছে। সকালে জেলা বিএনপির কার্যালয় থেকে একটি মিছিল বের হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে জেলা পরিষদ মার্কেটের সামনে সমাবেশে মিলিত হয়। সমাবেশে জেলা বিএনপির সভাপতি গাজী নুরুজ্জামান বাবুল, সম্পাদক আলমগীর হোসেনসহ সিনিয়র নেতারা বক্তব্য দেন। অপর দিকে বিএনপির কার্যালয় থেকে ২০ দলীয় পতাকা মিছিল বের হবার পরপরই জেলা বিএনপির একাংশ আলাদা মিছিল বের করে এবং গোপালকৃষ্ণ টাউন ক্লাবের সমানে সংক্ষিপ্ত সমাবশে মিলিত হয়।
বাগেরহাটে কালো পতাকা মিছিল
বাগেরহাট প্রতিনিধি জানান, কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে কালো পতাকা মিছিল ও সমাবেশ করেছে বাগেরহাট বিএনপি। শনিবার দুপুরে শহরের মুনিগঞ্জস্থ বিএনপি দলীয় কার্যালয় থেকে মিছিল শুরু হয়ে পুরাতন বাজার চৌরাস্তার মোড়ে এক সংক্ষিপ্ত পথসভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় জেলা বিএনপির সভাপতি এমএ সালাম, সেক্রেটারী আলী রেজা বাবু, পৌর বিএনপির সভাপতি শেখ শাহেদ আলী রবি, যুবদল সভাপতি মেহবুবুল হক কিশোর বক্তব্য দেন।
ঠাকুরগাঁও বিএনপির কালো পতাকা মিছিল
ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি জানান, গাজায় মুসলমানদের উপর হামলা ও নিরীহ মানুষকে হত্যার প্রতিবাদে ঠাকুরগাঁওয়ে বিক্ষোভ মিছিল করেছে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট। দুপুর ১২টায় জেলা বিএনপি কার্যালয় থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে একইস্থানে গিয়ে শেষ হয়। পরে জেলা বিএনপির সহসভাপতি মির্জা ফয়সল আমিনের সভাপতিত্বে সমাবেশে সিনিয়র নেতারা বক্তব্য দেন।
সুনামগঞ্জ বিএনপির কালো পতাকা মিছিল
সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, কেন্দ্রিয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে কালো পতাকা মিছিল করেছে সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপি। গতকাল দুপুরে শহরের পৌর বিপনী থেকে কালো পতাকা মিছিল বের হয়। শহরের প্রধান প্রধান সড়ক পদক্ষিণ শেষে ট্রাফিক পয়েন্টে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। জেলা বিএনপির আহ্বায়ক নাসির উদ্দিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সমাবেশে জেলা বিএনপির প্রথম সদস্য কলিম উদ্দিন মিলন, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ফারুক আহমদ, বিএনপি নেতা গিলমান আহমদ, অ্যাডভোকেট মাসুক আলম, রেজাউল হক, আবুল মনসুর শওকত, এটিএম হেলাল, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান রাকাব উদ্দিন ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক আব্দুল্লাহ আল নোমান প্রমুখ।
ফরিদপুরে কালো পতাকা মিছিল ও সমাবেশ
ফরিদপুর প্রতিনিধি জানান, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে গতকাল বিকেলে কালো পতাকা মিছিল ও সমাবেশ করেছে ফরিদপুর জেলা বিএনপি। ফরিদপুর প্রেসক্লাবের সামনে থেকে বিএনপির নেতাকর্মীরা মিছিল নিয়ে মুজিব সড়ক ঘুরে জনতা ব্যাংকের মোড়ে গিয়ে শেষ করে। সেখানে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে জেলা বিএনপির সভাপতি জহিরুল ইসলাম শাহজাদা মিয়া, সম্পাদক সৈয়দ মোদাররেছ আলী ইছা বক্তব্য দেন। মিছিলে জেলা বিএনপির সহসভাপতি আজম খান, আবুল কাশেম, সাংগঠনিক সম্পাদক রশিদুল ইসলাম লিটন, স্বেচ্ছাসেবকদলের আহ্বায়ক জুলফিকার হোসেন জুয়েলসহ সিনিয়র নেতারা অংশ নেন।
কুড়িগ্রামে বিএনপির পৃথক কর্মসূচি
স্টাফ রিপোর্টার, কুড়িগ্রাম থেকে জানান, কুড়িগ্রামে আলাদাভাবে কালো পতাকা মিছিল করেছে জেলা বিএনপির দুটি গ্রুপ। সারা দেশে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ কর্মসূচির অংশ হিসেবে শনিবার পোস্ট অফিস পাড়াস্থ দলীয় কার্যালয় থেকে একটি মিছিল দাদামোড় হয়ে শহর প্রদক্ষিণ শেষে দলীয় কার্যালয়ে প্রতিবাদ সমাবেশে অংশ নেয়। অপর গ্রুপটি ঘোষপাড়া থেকে মিছিল বের করে শহর প্রদক্ষিণ শেষে দাদামোড় সমাবেশ করে।
খাগড়াছড়িতে কালো পতাকা মিছিল
জেলা প্রতিনিধি, খাগড়াছড়ি থেকে জানান, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে কালো পতাকা মিছিল ও সমাবেশ করেছে জেলা বিএনপি ও অঙ্গ-সহযোগী সংগঠন। কড়া পুলিশি নিরাপত্তায় আদালত সড়কস্থ দলীয় কার্যালয় থেকে বিক্ষোভ মিছিলটি জেলা শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে আদালত পাড়ায় শেষ হয়। জেলা বিএনপির সিনিয় সহসভাপতি প্রবীণ চন্দ্র চাকমার সভাপতিত্বে সমাবেশে জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান মিল্লাত, যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম সবুজ, মহিলা দলের সভানেত্রী শাহনাজ বেগম রোজি বক্তব্য দেন।
নেত্রকোনায় কালো পতাকা মিছিল
নেত্রকোনা প্রতিনিধি জানান, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে কালো পতাকা মিছিল করেছে নেত্রকোনা জেলা বিএনপি। জেলা বিএনপির আহ্বায়ক সাবেক এমপি আশরাফ উদ্দিন খানের নেতৃত্বে মিছিলে সাবেক সম্পাদক আবু তাহের তালুকদার, আবদুল মান্নান তালুকদার, মজিবুর রহমান খান, তাজেজুল ইসলাম সুজাত, ইমরান খান চৌধুরী, সৈয়দ জাহেদুল ইসলাম, এডভোকেট রফিকুল ইসলাম জুয়েল, এস.এম মনিরুজ্জামান দুদু, আমিন, সাহাব উদ্দিন রিপন, খোকন কাউন্সিলর, নজরুল ইসলাম মিয়া অংশ নেন।
দিনাজপুরে কালো পতাকা মিছিল
শাহ্‌ আলম শাহী, দিনাজপুর থেকে জানান, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে আলাদাভাবে কালোপতাকা মিছিল করেছে ২০ দলীয় জোট ও ইসলামী আন্দোলন। নগরীর জেল রোডস্থ বিএনপি কার্যালয় থেকে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট কালো পতাকার মিছিল নিয়ে শহর প্রদক্ষিণ করে। মিছিলটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে আবার বিএনপি কার্যালয়ে এস শেষ হয়। এর আগে একই দাবীতে ইসলামী আন্দোলন শহরে ইসরায়েল বিরোধী একটি বিক্ষোভ মিছিল করে।
রাজবাড়ীতে কালো পতাকা মিছিল
রাজবাড়ী প্রতিনিধি জানান, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে কালো পতাকা মিছিল করেছে জেলা বিএনপি। বিকেল সাড়ে ৫ টায় জেলা বিএনপি কার্যালয় থেকে কালো পতাকা মিছিল বের হলে পুলিশ তাতে বাধা দেয়। এক পর্যায়ে পুলিশী পাহারায় মিছিলটি কার্যালয় হতে শহরের পান্না চত্বর পর্যন্ত সড়ক প্রদক্ষিণ করে। মিছিলে কয়েকশ বিএনপি নেতাকর্মী অংশ নেন। জেলা বিএনপির সহ সভাপতি ও সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এডভোকেট এম এ খালেক, সাংগঠনিক সম্পাদক আফসার আলী সরদার, পৌর বিএনপির সভাপতি মনজুরুল আলম দুলাল মিছিলে নেতৃত্ব দেন।
দোহারে কালো পতাকা মিছিল
দোহার (ঢাকা) প্রতিনিধি জানান, ফিলিস্তিনির গাজায় ইসরায়েলি হামলার প্রতিবাদে ঢাকা জেলা বিএনপির উদ্যোগে নবাবগঞ্জে কালো পতাকা মিছিল করেছে বিএনপি ও সহযোগী সংগঠন। শনিবার বিকালে নবাবগঞ্জের গালিমপুরে অনুষ্ঠিত এ মিছিলের নেতৃত্ব দেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ও ঢাকা জেলা বিএনপির সভাপতি আব্দুল মান্নান। এসময় নবাবগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি আবেদ হোসেন, সম্পাদক হারুন-উর-রশীদ উসমানী, যগ্ম সম্পাদক আবুল বাতেনসহ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।
নীলফামারীতে কালো পতাকা মিছিল
নীলফামারী প্রতিনিধি জানান, গাজায় ইসরাইলের নির্বিচারে হামলা ও শিশু হত্যার প্রতিবাদে গতকাল নীলফামারী জেলা বিএনপি শহরে কালো পতাকা মিছিল বের করে। সকালে দলীয় কার্যালয় থেকে মিছিলটি বের হয়ে শহরে প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তৃতা করেন, জেলা বিএনপির সদস্য সচিব মামসুজ্জামান জামান, মীর সেলিম ফারুক, জহুরুল আলম প্রমুখ।
নরসিংদীতে কালো পতাকা মিছিল
নরসিংদী প্রতিনিধি জানান, ২০ দলের কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে নরসিংদী জেলা বিএনপি বের করে কালো পতাকা মিছিল। দুপুরে শহরের কাউরিয়া পাড়া ঈদগাঁ থেকে জেলা বিএনপি সভাপতি সাবেক এমপি খায়রুল কবির খোকনের নেতৃত্বে একটি বিশাল কালো পতাকা মিছিল বের হয়। মিছিলটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে রেল স্টেশনে গিয়ে শেষ করে। সেখানে এক প্রতিবাদ সভায় খায়রুল কবির খোকন ছাড়াও বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপি সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল হোসেন মাস্টার, সিনিয়র সহসভাপতি সুলতান উদ্দিন মোল্লা, সংগঠনিক সম্পাদক দ্বীন মোহাম্মদ দিপু, আকবর হোসেন, শাহজাহান মল্লিকসহ দলীয় নেতৃবৃন্দ।

উৎস- মানবজমিন