বুধবার, ৪ আগস্ট ২০২১, ২০ শ্রাবণ ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

অবরোধ চলবে

obordh

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর চলমান গণআন্দোলনের অংশ হিসেবে অনির্দিষ্টকালের রাজপথ, রেলপথ ও নৌপথ অবরোধ কর্মসূচি শান্তিপূর্ণভাবে চালিয়ে যাওয়ার জন্য দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।বুধবার সন্ধ্যায় এক বিবৃতিতে ১৮ দলীয় জোট নেতা বেগম খালেদা জিয়ার পক্ষ থেকে জোটের সব পর্যায়ের নেতা-কর্মী ও দেশবাসীকে তিনি এ উদাত্ত আহবান জানান।পাশাপাশি ৫ জানুয়ারির পাতানো নির্বাচনে ভোটারদের অনুপস্থিতি ও দেশবাসীর স্বতঃস্ফুর্ত বর্জন এবং দেশ-বিদেশে বিভিন্ন রাষ্ট্র ও সংস্থার প্রবল সমালোচনার মুখে জনদৃষ্টিকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য যশোর, রংপুর, ঠাকুরগাঁও ও দিনাজপুর সহ দেশব্যাপী সংখ্যালঘু হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর পরিকল্পিত হামলা করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।বুধবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘প্রহসনের নির্বাচনে নিজেদের বিজয়ী ঘোষণা করে বর্তমান অবৈধ আওয়ামী লীগ সরকার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে দিয়ে ফ্যাসিবাদী কায়দায় বিরোধীদল নিধনের মহাপরিকল্পনা করেছে। আর সে পরিকল্পনা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে দেশকে এক চরম নৈরাজ্য ও অস্থিতিশীলতার দিকে ঠেলে দিচ্ছে।’তিনি অভিযোগ করেন, যৌথবাহিনী দিয়ে গতকাল সারাদেশে বিরোধী দলের প্রায় তিন শতাধিক নেতা-কর্মীকে গ্রেপ্তার এবং যৌথবাহিনী ও তাদের সহায়তায় আওয়ামী সন্ত্রাসীরা বিরোধী দলীয় নেতা-কর্মীদের বাড়িঘরে হামলা, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগ করেছে। নিজেদের লোকদের দিয়ে স্কুলঘর ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো পোড়ানো হয়েছে। আর এর দায় চাপানো হচ্ছে বিরোধী দলের ওপর। সংখ্যালঘু হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর ন্যাক্কারজনক পরিকল্পিত হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা, প্রতিবাদ ও ধিক্কার জানাচ্ছি।মির্জা আলমগীর বলেন, ‘সরকারের কোনো ষড়যন্ত্র, অপপ্রচার ও অপকৌশল তীব্র গণআন্দোলনকে কোনোভাবেই কলুষিত করে স্তব্ধ করা যাবে না। জনতার যৌক্তিক দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত সকল ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে জনগণ শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি চালিয়ে যেতে বদ্ধপরিকর।’মির্জা ফখরুল বলেন, ‘সকল ধর্ম, বর্ণ ও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপর যেকোনো হামলা মোকাবেলায় ১৮ দলীয় জোটের সকল পর্যায়ের নেতা-কর্মী ও দেশবাসীকে সদা সতর্ক থাকার এবং তাদের নিরাপত্তা বিধানে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার পক্ষ থেকে আহবান জানাচ্ছি।’

Leave a Reply