বৃহস্পতিবার, ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৭ মাঘ ১৪২৯খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

১৫০ আরোহী নিয়ে ফ্রান্সে বিমান বিধ্বস্ত

2_239787
আল্পস পবর্তমালার ফ্রান্সের দক্ষিণাংশে জার্মানির একটি বিমান বিধ্বস্ত হয়েছে। ১৭৪ আসনের বিমানটিতে ১৪৪ যাত্রী ও ছয় ক্রু ছিলেন বলে প্রাথমিকভাবে জানান ফরাসি বিমান কর্মকর্তারা। আরোহীদের মধ্যে জার্মানির যাত্রীই বেশি ছিলেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। খবর বিবিসি, এপি ও ইনডিপেনডেন্টের।

 ফরাসি বিমান কর্তৃপক্ষ জানায়, এয়ারবাস এ৩২০ বিমানটি স্পেনের বার্সেলোনা শহর থেকে জার্মানির ডুসেলডর্ফ যাচ্ছিল। মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সকাল ১০টা ৪৭ মিনিটের দিকে ফরাসি শহর ডিনয়ো-ল্য-বানের কাছে বিমানটি থেকে জরুরি বিপদ সংকেত পাঠানো হয়। এর কিছুক্ষণ পরই এটি রাডার থেকে হারিয়ে যায়। এরপর উত্তরের নিস শহর থেকে ১০০ কিলোমিটার দূরে বারসেলোয়েনেট শহরের কাছে বিমানটি বিধ্বস্ত হয়। অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে জানানো হয়, দুর্ঘটনাটি ঘটেছে আল্পস পর্বতের একটি দুর্গম স্থানে। উদ্ধার অভিযান শুরুর সর্বোচ্চ চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, আল্পস পর্বতে ২ হাজার মিটার উঁচুতে বিমানটির ধ্বংসাবশেষ দেখা গেছে। দুর্ঘটনাকবলিত বিমানটি জার্মানির কম খরচের বিমান সংস্থা জার্মানউইংসের। জার্মানির জাতীয় বিমান সংস্থা লুফথানসার একটি প্রতিষ্ঠান জার্মানউইংস। তবে এই প্রথমবারের মতো জার্মানউইংসের কোনো ফ্লাইট দুর্ঘটনার শিকার হল।  ফরাসি প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওলাদ বলেন, দুর্গম একটি জায়গায় বিমানটি বিধ্বস্ত হয়েছে। আরোহীদের কারোরই বেঁচে থাকার সম্ভাবনা নেই বলে তিনি মনে করেন।
 ফরাসি প্রধানমন্ত্রী ম্যানুয়েল ভলস বলেন, বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার প্রকৃত কারণ জানা যায়নি। যাত্রীদের বাঁচার সম্ভাবনা নিয়ে তিনি শংকা প্রকাশ করেন। ভলস জানান, খবর শোনামাত্রই বিমান বিধ্বস্ত অঞ্চলে রওনা দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বার্নার্ড ক্যাজেনুভ।  টুইট বার্তায় জার্মানউইংস জানায়, বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার বিষয়টি তারা খতিয়ে দেখছে। দুর্ঘটনার যে কোনো তথ্যের জন্য তাদের ওয়েবসাইট দেখতে বলা হয় ওই বার্তায়। যদিও ওয়েবসাইটটি অনেক স্থান থেকেই দেখা যাচ্ছে না।