রবিবার, ২০ জুন ২০২১, ৬ আষাঢ় ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

শেষ হলো সংসদের চতুর্থ অধিবেশন

per-60020140128135307_46920

 

১০ কার্যদিবস চলার পর শেষ হলো দশম জাতীয় সংসদের ৪র্থ ও চলতি বছরের শেষ অধিবেশন। গত ১৩ নভেম্বর এই অধিবেশন শুরু হয়। ৬০ দিনের মধ্যে সংসদের অধিবেশনে বসার বাধ্যবাধকতা থাকায় রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এ অধিবেশন আহ্বান করেন। গত মঙ্গলবার নবম কার্যদিবসের বৈঠক মুলতবি হওয়ার পর টানা ৪ দিন বিরতির দিয়ে আজ রবিবার বিকাল ৪টা ১০ মিনিটে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে দিনের কার্যসূচি শুরু হয়। গতকাল সংসদে সংসদনেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিরোধী দলীয় নেতা রওশান এরশাদ উপস্থিত ছিলেন।

সম্পূরক কর্মসূচিতে আজ সংসদে ১৪৭ বিধিতে জাতিসংঘ কর্তৃক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সাউথ সাউথ কো-অপারেশন ভিশনারী অ্যাওয়ার্ড প্রদান উপলক্ষে শেখ ফজলে নূর তাপস (ঢাকা-১০) এর আনা ধন্যবাদ প্রস্তাবের ওপর সাধারণ আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। এজন্য জ্বালানি ও বিদ্যুৎ গবেষণা কাউন্সিল বিল-২০১৪ সংসদে উত্থাপনের কথা থাকলেও তা উত্থাপিত হয়নি। দীর্ঘ আলোচানা শেষে রাত ৮টা ১০ মিনিটে কন্ঠভোটে সংসদে ধন্যবাদ প্রস্তাব গৃহীত হয়।এরপর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিরোধী দলীয় নেতা রওশান এরশাদের বক্তব্যের পর রাত ৮টা চতুর্থ অধিবেশনের দশম কার্যদিবসের সমাপ্তি ঘোষণা করেন স্পিকার।

বৈঠকের শুরুতে সংসদ সদস্যের বিশেষ অধিকার সংক্রান্ত দু’টি নোটিশ এবং দু’টি মূলতবি প্রস্তাব নাকচ করে দেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। স্পিকার জানান, স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য ডা. রুস্তম আলী ফরাজীর আনা বিশেষ অধিকার সংক্রান্ত দু’টি নোটিশ বিধি সম্মত হয়নি। তাই সংসদের কার্যপ্রাণালী বিধির ১৬৬/৩ ধারা অনুযায়ী না হওয়ায় তা গ্রহণ করা গেল না। এছাড়া স্বতন্ত্র সদস্য হাজী মো. সেলিম দু’টি মূলতবি প্রস্তাব জমা দিয়েছেন। কিন্তু ওই প্রস্তাব দু’টি অন্য বিধিতে নিষ্পত্তিযোগ্য। তাই প্রস্তাবগুলো নাকচ করা হলো।

চলতি অধিবেশনে ৫টি বিল পাস হয়েছে। দশম জাতীয় সংসদের প্রাথমিক পথ চলা শুরু হয় ৫ জানুয়ারি নির্বাচনের মাধ্যমে। চলতি বছরের ২৯ জানুয়ারি শুরু হয় প্রথম অধিবেশন। এরপর দ্বিতীয় ও বাজেট অধিবেশন শুরু হয় ৩ জুন যা শেষ হয় ৩ জুলাই। এরপরেই ১ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হয় তৃতীয় অধিবেশন।