সোমবার, ১৭ মে ২০২১, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

র‌্যাব বিলুপ্তি, ক্রসফায়ার বন্ধসহ বিএনপির চার দফা

24008_31

ক্রসফায়ার-বন্দুকযুদ্ধ বন্ধ, র‌্যাব বিলুপ্তিসহ চার দফা দাবিতে দলমত নির্বিশেষে সম্মিলিত কণ্ঠে আওয়াজ তোলার আহ্বান জানিয়েছে বিএনপি। গতকাল দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে দপ্তরের দায়িত্বপ্রাপ্ত যুগ্ম মহাসচিব রিজভী আহমেদ এ আহ্বান জানান। তিনি বলেন, চার দফা দাবিতে দলমত নির্বিশেষে সম্মিলিত কণ্ঠে আওয়াজ তুলতে হবে। দাবিগুলো হচ্ছে- অশান্তি, আতঙ্ক আর নৈরাজ্যের অমানিশা কাটাতে এই মুহূর্তে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচন দিতে হবে। ক্রসফায়ার আর বন্দুকযুদ্ধের নামে মানুষ হত্যা বন্ধ করতে হবে। নারায়ণগঞ্জের চাঞ্চল্যকর সাত খুনসহ দেশব্যাপী অপহরণ, গুম, খুন ও গুপ্তহত্যার সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের বিচারের আওতায় আনতে হবে। সারাদেশের আতঙ্ক র‌্যাবকে বিলুপ্ত করতে হবে। রিজভী আহমেদ বলেন, সরকার দেশে বিচার বহির্ভূত হত্যাকা- অব্যাহত রেখেছে। এ কারণে দেশে খুন, গুম ও গুপ্তহত্যা বন্ধ হচ্ছে না। এ অবৈধ সরকার এখন ‘গলাচিপা’ সরকারে পরিণত হয়েছে। গতকাল সকালে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন। রিজভী বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য পরিচয়ে সাদা পোশাকধারীরা এখন শুধু রাজনৈতিক নেতাকর্মীকে গুম করছে না। তারা সাধারণ মানুষকেও হত্যা করছে। হত্যার পর কারো লাশ পাওয়া যায়, কারো লাশ পাওয়া যায় না। তিনি বলেন, আইন প্রয়োগকারী সংস্থার নামে সাদা পোশাকধারীরা বিরোধী দলের তরুণ যুবক, ব্যবসায়ী, আইনজীবী, শ্রমিক, ছাত্রসহ সাধারণ মানুষদেরও তুলে নিয়ে যায়। কয়েকদিন নিখোঁজ থাকার পর তাদের গলিত পঁচা লাশ নদীতে, খালে-বিলে, ধানক্ষেতে অথবা নির্জন লোকালয়ে পড়ে থাকতে দেখা যায়। এগুলোর বেশির ভাগ ঘটনায় অপহৃত, নিখোঁজ ও নিহতদের পরিবার আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারি বাহিনীর মধ্যে বিশেষভাবে র‌্যাবের বিরুদ্ধে এসব ঘটনার অভিযোগ তুললেও সরকার নির্লিপ্ত থাকে। এ বিষয়ে সরকার কখনোই কোন প্রেসনোট দেয়নি বা আইন প্রয়োগকারী সংস্থার জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়নি। রিজভী বলেন, রাষ্ট্রীয় মদদেই দেশব্যাপী খুন, গুম ও অপহরণ করা হচ্ছে। প্রশাসন চাইলে গডফাদাররা এক মুহূর্তও টিকে থাকতে পারে না। নূর হোসেনের মতো লোকদের টাকার লোভে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার লোকেরা হাড়হিম করা অপরাধে জড়িয়ে পড়েছে। অর্থের জন্য র‌্যাব কর্মকর্তারা বিবেকবর্জিত আত্মসমর্পণ করার কারণেই নূর হোসেনদের মতো গডফাদারদের উৎপত্তি হয়েছে। বর্তমানে বাংলাদেশের সকল মাফিয়া ডনদের উৎপত্তির পেছনে রয়েছে ক্ষমতাসীনদের ছত্রছায়া। আইনপ্রয়োগকারী সংস্থাসহ দলকানা প্রশাসনযন্ত্রের ভেতরেই চিরুনি অভিযান চালালেই জানা যাবে ইলিয়াস আলী, চৌধুরী আলম, লাকসামের হিরু ও হুমায়ুনসহ অগণিত গুম হয়ে যাওয়া মানুষের পরিণতি। অবিলম্বে নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন দেয়ার দাবি জানিয়ে রিজভী আহমেদ বলেন, এই সরকার জনগণের ম্যান্ডেটের পরোয়া করে না। গণতন্ত্রের অন্যতম মৌল উপাদান যে নির্বাচন তাতে তাদের বিশ্বাস নেই। আওয়ামী লীগ একদলীয় শাসনের উপাসক। সুতরাং জনগনের ইচ্ছা অনিচ্ছা ও জনগণের কাছে জবাবদিহিতা তাদের অভিধানে নেই।