বৃহস্পতিবার, ২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২০ মাঘ ১৪২৯খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

রোববার আসছেন মাশরাফিরা: রাজকীয় সংবর্ধনার প্রস্তুতি

bangladesh2_238189

 

বিশ্বকাপ কোয়াটার ফাইনালে স্বপ্নভঙ্গ হলেও বুক উঁচু করেই দেশে আসছেন বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা। ওই ম্যাচে তারা হারেনি। আইসিসির ষড়যন্ত্রে তাদেরকে হারানো হয়েছে। এটা শুধু বাংলাদেশ নয় সারা বিশ্বের মানুষ প্রত্যক্ষ করেছে। সে কারণে হেরেও গর্বে বুক উঁচু করেই দেশে ফিরছেন মাশরাফিরা। এদিকে বাংলাদেশ দলকে রাজকীয় সংবর্ধনা দেয়ার প্রস্তুতি চলছে।শনিবার বাংলাদেশ সময় দুপুরে মেলবোর্ন থেকে বিমানে ওঠে টিম বাংলাদেশ। এর আগে সকাল সাড়ে ৯টায় হোটেল ছাড়েন তারা।জানা গেছে, মেলবোর্ন থেকে যে ফ্লাইটে করে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা আসার কথা রয়েছে সেটি যাত্রা বিরতি করবে দুবাইতে। সেখান থেকে রোববার সন্ধ্যায় ঢাকা শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে নামার কথা মাশরাফিদের।বাংলাদেশ দলের ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন জানিয়েছেন, এমিরেটস ইকে-৪৪১ ফ্লাইট যোগে বাংলাদেশের উদ্দেশে রওয়ানা হয়েছে বাংলাদেশ দল। সেখান থেকে দুবাই হয়ে বিকেলে বাংলাদেশে আসবেন ক্রিকেটাররা।প্রায় দুই মাসের সফর শেষে অস্ট্রেলিয়া থেকে দেশে ফিরছেন বাংলাদেশ দলের ক্রিকোররা। এরই মাঝে শেষ করেছে স্বপ্নের বিশ্বকাপ অভিযান। আফগানিস্তানকে ১০৫ রানে হারিয়ে শুরু। এরপর অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে পয়েন্ট ভাগাভাগি, শ্রীলংকার কাছে হার, স্কটল্যান্ডের ৩১৮ রান তাড়া করে জয় এবং সর্বশেষ ইংল্যান্ডকে ১৫ রানে হারিয়ে প্রথমবারেরমত কোয়ার্টারে ঠাঁই করে নেয় বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা।কোয়ার্টারে আইসিসি, আম্পায়ারদের ষড়যন্ত্রের কারণে ভারতকে জিতিয়ে দেয়া হয়। মেলবোর্নে ম্যাচ নামে প্রহসন আয়োজন করে আইসিসি। সেই প্রহসনে বাংলাদেশকে বিদায় করে সেমিতে উত্তীর্ণ হয় ভারত।অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের আবহাওয়ার সঙ্গে নিজেদের মানিয়ে নিতে ২৪ জানুয়ারি দেশ ছেড়েছিল বাংলাদেশ দল। সেখানে গিয়ে বেশ কয়েকটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছে। এরপর বিশ্বকাপ। বিশ্বকাপে প্রত্যাশার চেয়ে প্রাপ্তির পল্লাটাই ভারী টাইগারদের। বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসে প্রথমবারের মতো কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠে বাংলাদেশ। প্রথম কোনো বাংলাদেশি হিসেবে হিসেবে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ বিশ্বকাপে সেঞ্চুরি করেছেন। টানা দুই ম্যাচে সেঞ্চুরি করে ১৯৯৬ বিশ্বকাপে মার্ক ওয়াহর করা রেকর্ড ছুঁয়েছেন।বাংলাদেশ দলকে রাজকীয় সংবর্ধনা দেয়ার প্রস্তুতি চলছে। বিভিন্ন সংগঠন ও ক্রিকেট ভক্তরা ভিড় করবেন হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে। বিকেলে সেখান থেকে ছাদখোলা বাসে করে খেলোয়াড়দের নিয়ে আসা হবে। দেয়া হবে রাজকীয় সংবর্ধনা। ধারণা করা হচ্ছে খেলোয়াড়দের সংবর্ধনা জানাতে ১০ হাজারের মতো ক্রিকেট ভক্ত ভীড় করতে পারে।জানা গেছে, রাষ্ট্রীয়ভাবেও খেলোয়াড়দের সংবর্ধনা দেয়ার কথা রয়েছে। সেটা কবে হবে এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।