বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

যুদ্ধবিরতি শেষে গাজায় আবারও বিমান হামলা

2_132275

ইসরাইল ও হামাসের মধ্যকার ৭২ ঘণ্টার যুদ্ধবিরতির সময় শেষ হয় শুক্রবার। তবে স্থানীয় সময় সকাল ৮টায় ৩ দিনের এ যুদ্ধবিরতি শেষ হওয়ার কিছু সময় পরই হামাস রকেট হামলা চালিয়েছে- এমন অভিযোগে ইসরাইলও গাজায় বিমান হামলা শুরু করেছে। হামলায় ফিলিস্তিনি এক শিশু নিহত ও ছয়জন আহত হয়েছেন বলে গণমাধ্যমগুলোর খবরে বলা হয়েছে। গাজা শহরের একটি মসজিদে হামলায় এ হতাহতের ঘটনা ঘটে। তবে ইসরাইলি সেনাবাহিনী দাবি করেছে, হামাসের হামলায় তাদের এক সদস্য ও বেসামরিক একজন আহত হয়েছে।এদিকে, স্থায়ী যুদ্ধবিরতির বিষয়ে মিসরের রাজধানী কায়রোতে ইসরাইল, হামাস ও ফিলিস্তিনের প্রতিনিধিরা যে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে তা বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে ইসরাইল। শুক্রবারের হামলার প্রতিবাদে দেশটির প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু ইতিমধ্যেই দেশটির সেনাবাহিনীকে গাজায় ‘জোরালো’ হামলা চালানোর নির্দেশ দিয়েছে। ইসরাইলি সেনাবাহিনীও ফিলিস্তিনি বিদ্রোহীদের চালানো এ রকেট হামলাকে ‘অগ্রহণযোগ্য, অসহনীয় এবং অদূরদর্শিতা’ আখ্যা দিয়েছে। দেশটির এক সরকারি কর্মকর্তা বলেছে, তারা যুদ্ধবিরতি নবায়নের ব্যাপারে ফিলিস্তিনের সঙ্গে সমঝোতা করবে না।এর আগে গাজা নিয়ন্ত্রণকারী ফিলিস্তিনি ইসলামপন্থী সংগঠন হামাস যুদ্ধবিরতির সময় বাড়াতে অসম্মতি জানায়। তাদের দাবি, ইসরাইল তাদের দাবি পূরণে ব্যর্থ হয়েছে। তাই তারা যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে। এতে দু’পক্ষের অনড় অবস্থানই এখন দীর্ঘমেয়াদি যুদ্ধবিরতির প্রক্রিয়ায় বাধা হয়েছে।ইসরাইলের প্রতিরক্ষা বাহিনী (আইডিএফ) জানায়, যুদ্ধবিরতি শেষ হওয়ার পর শুক্রবার ইসরাইলের শহরগুলোতে পুনরায় রকেট হামলা চালানোর জবাবে তারা গাজার সন্ত্রাসী এলাকাগুলোতে হামলা চালানো শুরু করেছে। মিসরের মধ্যস্থতায় ইসরাইল ও হামাসের মধ্যকার আলোচনা সমঝোতায় পৌঁছানোর ব্যর্থতার জেরেই পুনরায় এ পাল্টাপাল্টি লড়াই শুরু হয়। ইসরাইলি সেনাবাহিনী বলেছে, হামাস ৩৩টিরও বেশি রকেট হামলা চালিয়েছে। তাদের দাবি, হামলায় সেনাবাহিনীর এক সদস্য ও একজন বেসামরিক লোক আহত হয়।ফিলিস্তিনের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, গাজার উত্তরে জাবালিয়া এলাকা, গাজা শহর ও ফিলিস্তিনি ছিটমহলের কেন্দ্রস্থলে আজ (শুক্রবার) ইসরাইলের যুদ্ধবিমান আঘাত হেনেছে। এছাড়া গাজার পূর্ব ও উত্তরাঞ্চলে কামানের গোলা ছোড়া হয়েছে বলেও তারা জানিয়েছে।ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুর গাজায় হামলার নির্দেশের বিষয়টি বিবৃতির মাধ্যমে গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছে ইসরাইলের এক সরকারি কর্মকর্তা। বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইসরাইলের প্রতিরক্ষা বাহিনীকে হামাসের হামলার জবাবে পাল্টা ‘জোরালো’ হামলা চালানোর নির্দেশ দিয়েছে। গাজা উপত্যকায় ‘জঙ্গি-অধ্যুষিত’ এলাকাগুলোতে ইতিমধ্যে হামলা চালানো হয়েছে বলে জানিয়েছে ইসরাইলের সেনাবাহিনী। তবে ইসরাইলি কোনো সেনা এখনও ফিলিস্তিনি অধিকৃত এলাকায় প্রবেশ করেনি বলে জানানো হয়েছে।এক মাস ধরে চালানো ইসরাইলি বর্বরতায় ফিলিস্তিনের মোট নিহতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৮৯৪। আহত হয়েছেন অন্তত সাড়ে ৯ হাজার মানুষ। পাশাপাশি হামাসের পাল্টা হামলায় ইসরাইলের নিহত হয়েছে ৬৭ জন, যাদের বেশিরভাগই সেনাবাহিনীর সদস্য।জাতিসংঘের হিসাব অনুযায়ী, ৮ জুলাই থেকে শুরু হওয়া ইসরাইলি হামলায় কমপক্ষে এক হাজার ৩৫৪ ফিলিস্তিনি নাগরিক নিহত হয়েছেন। যাদের মধ্যে ৪৪৭ শিশু।হামাসের রকেট হামলার জবাবে আত্মরক্ষার অধিকারের দোহাই দিয়ে ৮ জুলাই তাদের অভিযান শুরু করে ইসরাইল। অভিযানে গাজার বসতবাড়ি, হাসপাতাল ও বিভিন্ন সুড়ঙ্গ ব্যবস্থা ধ্বংস করা হয়েছে। ইসরাইলের দাবি, এসব সুড়ঙ্গ ব্যবহার করে ইসরাইলে এসে হামলা চালানোর পরিকল্পনা করে হামাস। এএফপি, বিবিসি, রয়টার্স।