রবিবার, ১৩ জুন ২০২১, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

যুক্তরাষ্ট্রে প্রায় ৫০ লাখ অভিবাসী বৈধতা পাচ্ছেন

51227_oba

 

মার্কিন কংগ্রেসকে পাশ কাটিয়ে ও রিপাবলিকানদের তীব্র আপত্তিকে উপেক্ষা করে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন অভিবাসন নীতি ঘোষণা করেছেন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। গতকাল প্রায় ৫০ লাখ অবৈধ অভিবাসীকে বৈধতা দেয়ার ঘোষণা দেন তিনি। যুক্তরাষ্ট্রে ১ কোটি ১০ লাখ মানুষ অবৈধভাবে বসবাস করছেন। অবৈধ অভিবাসীদের উদ্দেশে ওবামা বলেন, ছায়া থেকে বেরিয়ে আসুন এবং আইনগত অধিকার বুঝে নিন। নতুন আইন প্রণয়নে ওবামা তার নির্বাহী ক্ষমতা প্রয়োগের ঘোষণা দিয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় গতকাল রাত ৮টায় ওবামা টেলিভিশনে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি ও বার্তা সংস্থা রয়টার্স। ওই ভাষণে তিনি নতুন অভিবাসন নীতিমালার রূপরেখা তুলে ধরেন। এ ঘোষণার ফলে প্রায় অবৈধ অভিবাসীরা বৈধভাবে বসবাসের আবেদন করতে পারবেন ও কাজ করার সুযোগ পাবেন। তবে ভোটাধিকার, সরকারি স্বাস্থ্যসেবা ও বীমা করার সুবিধা তাদের দেয়া হবে না। ওবামা বলেন, যারা যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসের বৈধতা পাচ্ছেন, তারা নাগরিকত্ব পাবেন না এবং মার্কিনিদের মতো সুযোগ-সুবিধা ভোগ করবেন না। যে পিতামাতারা যুক্তরাষ্ট্রে ৫ বছর বসবাস করেছেন, তারা বসবাসের বৈধতা ও কাজের সুযোগ পাওয়ার জন্য যোগ্য হিসেবে বিবেচিত হবেন। এই মানদ-ে পড়ছেন ৩৭ লাখ অবৈধ অভিবাসী। একইভাবে আরও কয়েকটি মানদ-ের রূপরেখা দিয়েছেন ওবামা। যে অবৈধ অভিবাসীরা শৈশবে পিতামাতার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রে গিয়েছিল, তারা থাকার অনুমতি পাবে। বৈধ কাগজপত্র না থাকলে, সেক্ষেত্রেও বৈধভাবে বসবাসের সুযোগ রয়েছে। সেক্ষেত্রে তাদের অতীত কর্মকা-ের রেকর্ড যাচাই করা হবে। পূর্বে কোন অপরাধ কর্মকা-ে জড়িত থাকলে বা কোন মামলা থাকলে, তারা বৈধভাবে বসবাসের যোগ্য হিসেবে বিবেচিত হবেন না। ওবামা আরও বলেন, আপনি যদি অপরাধী হন আপনাকে নিজ দেশে ফেরত পাঠানো হবে। আপনি যদি যুক্তরাষ্ট্রে অবৈধভাবে প্রবেশের পরিকল্পনা করেন, তবে আপনাকে গ্রেপ্তার ও ফেরত পাঠানোর সম্ভাবনা বেড়ে যাবে। জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে প্রেসিডেন্ট বলেন, তিনি যে প্রস্তাব করছেন, সেটা সাধারণ ক্ষমা নয়। জবাবদিহিতা, সাধারণ জ্ঞান ও মধ্যপন্থা অবলম্বনের ভিত্তিতে তিনি এ প্রস্তাব করেছেন। এদিকে ওবামার এ পদক্ষেপের তীব্র নিন্দা জানিয়ে রিপাবলিকানরা ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেছেন, কংগ্রেসকে ছাড়া ওবামার নেয়া এ পদক্ষেপ তার কর্তৃত্বের বাইরে এবং সম্পর্কগুলো এখন বিষাক্ত হয়ে উঠবে। ভেঙে পড়া অভিবাসন ব্যবস্থাকে পরিবর্তনে দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে কংগ্রেসের নিষ্ক্রিয়তায় হতাশ ছিলেন ওবামা। দুর্ভাগ্যজনকভাবে, ওয়াশিংটন ডিসি অভিবাসন সমস্যাকে দীর্ঘায়িত করেছে বলেও মন্তব্য করেছিলেন তিনি।