বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ১৫ আষাঢ় ১৪২৯খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

যারা মানুষ হত্যা করবে তাদের কালো হাত ভেঙে দেওয়া হবে : নাসিম

image_169040.nasim (2)
আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, হরতালের নামে নৈরাজ্য সৃষ্টি করে যারা মানুষ হত্যা করবে তাদের কালো হাত ভেঙে দেওয়া হবে। তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়া আপনি যদি হরতাল চালিয়ে নৈরাজ্য সৃষ্টি করে যদি মানুষ হত্যা বন্ধ না করেন, তাহলে আপনার কালো হাত ভেঙে দেওয়া হবে। হরতালের নামে আপনার সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড বরদাস্ত করা হবে না। মোহাম্মদ নাসিম আজ সোমবার রাজধানীর মহানগর নাট্যমঞ্চে বাংলাদেশ কৃষক লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন। মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে এই আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। কৃষক লীগের সভাপতি মোতাহার হোসেন মোল্লার সভাপতিত্বে আওয়ামী লীগের কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ড. আব্দুর রাজ্জাক, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহা উদ্দিন নাছিম, কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শামসুল হক রেজা, সাংগঠনিক সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন সুইট প্রমুখ বক্তব্য দেন।বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার উদ্দেশ্যে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, আপনি কেন হরতাল দেন? যে হরতালে জনগণ মাঠে নামে না। যে হরতাল জনগণ চায় না। যে হরতালে জনগণের কোন দাবির কথা থাকে না। অযথা নৈরাজ্য সৃষ্টির মাধ্যমে মানুষকে জ্বালিয়ে মারতে হরতাল দিবেন না। আগামী ৫ জানুয়ারি বিএনপি-জামায়াতের নৈরাজ্য মোকাবেলার জন্য দলীয় নেতাকর্মীদের মাঠে থাকার আহবান জানিয়ে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র বলেন, ওই দিন আপনারা সকলে মাঠে থাকবেন। যারা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতি করেন তারা সবাই মাঠে থাকবেন। যারা সে দিন মাঠে থাকবেন না, তাদের আর আওয়ামী লীগ করার অধিকার থাকবেনা। সবাইকে মাঠে থাকতে হবে।বিএনপি নেতাদের বক্তব্যের সমালোচনা করে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, গত ৫ জানুয়ারি নির্বাচন না হলে দেশে গণতন্ত্র থাকত না। নির্বাচন না হলে দেশে সামরিক শাসন জারি হতো। দেশে গণতন্ত্র থাকত না। আর আমরা বিজয় দিবসের অনুষ্ঠান পালন করতে পারতাম না। খালেদা জিয়াও হুমকি দিয়ে হরতাল ডাকতে পারতেন না। এখন দেশে গণতন্ত্র আছে। ভোট দেয়ার অধিকার আছে। এমন কি অপ্রয়োজনে হরতাল দেবার অধিকার আছে। এ অধিকার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিয়েছেন। যারা বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের বিরুদ্ধে কথা বলবেন তাদেরকে মাঠে নামতে দেওয়া হবে না জানিয়ে তিনি বলেন, যারা বাংলাদেশের স্থপিত, জাতির জনককে নিয়ে বিভিন্ন কথা বলবেন, তাদেরকে মাঠে নামতে দেওয়া হবে না। আন্দোলনের নামে জ্বালাও পোড়াও করতে দেওয়া হবে না।