বুধবার, ১০ জুলাই ২০২৪, ২৬ আষাঢ় ১৪৩১খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

মীরসরাইয়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে, ছাত্রলীগ নেতার মৃত্যু

images

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ মীরসরাইয়ে নিজামপুর বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে হতাহাতির সময় বুকে ব্যাথা উঠে নুরুল আমিন মুহুরী (২৬) নামে এক ছাত্রলীগ নেতার মৃত্যু হয়েছে। গত ২৩ জানুয়ারি (সোমবার) দুপুর ২টা কলেজ ক্যাম্পাসে এই ঘটনা ঘটে। নুরুল আমিন উপজেলার ১৫ নম্বর ওয়াহেদপুর ইউনিয়নের গাছবাড়িয়া গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা সাব মিয়ার পুত্র এবং ইউনিয়ন ছাত্রলীগের তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ছিল।
স্থানীয় সুত্রে জানা যায় গত ২২ জানুয়ারি (রোববার) কলেজ ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের ফজলুুল গ্রুপের সাথে রিজভি গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনার রেশ ধরে রিজভি গ্রুপের কয়েকজন কর্মী সোমবার কলেজ ক্যাম্পাসে অবস্থান নেয়। এসময় ফজলুল গ্রুপের কর্মীরা রেজভি গ্রুপের কর্মী নুরুল আমিন মুহুরীকে মারধর করে। একপর্যায়ে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রাসেল ইকবাল চৌধুরী ও কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তাজুল ইসলাম দুই গ্রুপের মধ্যে সমঝোতা করে দেয়। সমঝোতা করে দেওয়ার কিছুক্ষন পর নুরুল আমিন মুহুরীর বুকে ব্যাথা উঠে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে প্রথমে স্থানীয় উপজেলা সদরের মাতৃকা হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে হাসপাতালের কর্তৃব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। মেডিকেলে নুরুল আমিন মুহুরীর সাথে থাকা ছাত্রলীগ নেতা রিজভি নুরুল আমিনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রাসেল ইকবাল চৌধুরী জানান, কলেজ ক্যাম্পাসে দুই গ্রুপের অবস্থানের খবর পেয়ে দ্রুত ক্যাম্পাসে গিয়ে তাদের মধ্যে সমঝোতা করে দিয়েছে। আমি পৌঁছার আগে কি হয়েছে সেটা জানিনা। এর কিছুক্ষণ পর নুরুল আমিনের বুকে ব্যাথা উঠলে তাকে হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষনা করে।
মীরসরাই থানার অফিসার ইনচার্জ সাইরুল ইসলাম জানান, একজন ছাত্রলীগ নেতার মৃত্যুর বিষয়টি তিনি শুনেছেন। বিষয়টি সম্পর্কে খোঁজখবর নিচ্ছেন।