সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

মীরসরাইয়ের স্বাধীনতা মেলা হামলা সংঘর্ষ গণপূর্তমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে মেলা সাময়িকভাবে বন্ধ

নিজস্ব প্রতবিদেকঃ স্বাধীনতার মাসের প্রথম দিন থেকে মীরসরাই স্টেডিয়ামে শুরু হওয়া ২০ দিনব্যাপী স্বাধীনতা মেলার চতুর্থ দিনে এসে বন্ধ হয়ে গেছে। গত শুক্রবার (৪ মার্চ) দিবাগত রাত ১০টার দিকে মেলা প্রাঙ্গণে সরকার সমর্থিতদের দুই পক্ষের হামলা সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে ক্ষুদ্ধ হয়ে মীরসরাইয়ের সংসদ সদস্য সরকারের গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন মেলা কর্তৃপক্ষকে মেলা বন্ধের নির্দেশ দেন।

জানা গেছে শুক্রবার দিবাগত রাতে মেলার সার্কাস প্যাভিলিয়নের সামনে স্থানীয় ছাত্রলীগের একটি গ্রুপ মেলা ঘুরতে আসা রুবেল নামের এক প্রবাসীর ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। এসময় রুবেলের কাছে থাকা ১২শ ইউএস ডলার, নগদ টাকা, সৌদি রিয়াল, সোনার চেইন ও একটি স্মার্ট ফোন হাতিয়ে নেয়। পরে রুবেলের আত্মীয়-স্বজনদের মধ্যে ছাত্রলীগ ও যুবলীগের অপর একটি গ্রুপ তাদের সাথে বাকবিতন্ডায় জড়ালে সংঘর্ষের রূপ নেয়। এতে প্রবাসী রুবেল প্রতিপক্ষের ছুরির কোপে মারাত্মক আহত হন। এছাড়া মেলায় ঘুরতে আসা ১০ বছরের এক শিশু সহ ছুরিকাঘাতে আহত হয়। আহতদের প্রথমে স্থানীয় সেবা হাসপাতাল ও পরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে (মাস্তান নগর হাসপাতাল) ভর্তি করানো হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায় সংঘর্ষ চলা সময়ে মেলায় আগত নারী-শিশু দর্শনার্থীরা আতঙ্কে দিকবিধিক ছোঁটাছুটি করতে থাকে। এসময় ছুরি আর আগ্নেয়াস্ত্রের ঝনঝনানি দেখে নীরিহ এক দর্শনার্থী অজ্ঞান হয়ে পড়লে স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। পরে প্রায় এক ঘন্টা ধরে চেষ্টার পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয় পুলিশ।
আহত রুবেল অভিযোগ করেন, ‘আনুমানিক ৩০জন স্বশস্ত্র সন্ত্রাসী ছুরি ও আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়। এসময় তাঁর কাছে থাকা ১২শ ইউএস ডলার, ৪৭ হাজার নগদ টাকা, ৪ হাজার সৌদি রিয়াল, ১০ আনা ওজনের স্বর্ণের চেইন ও আই ফোন-৬ মডেলের একটি স্মার্টফোন লুটে নেয়।’ তিনি এসময় আরো অভিযোগ করেন হামলাকারীদের প্রত্যক্ষভাবে শেল্টার দেন স্থানীয় আওয়ামী লীগের কয়েকজন নেতা।

এদিকে হামলার ঘটনায় কোন ধরণের মামলা করা হয়নি বলে দাবি করেছেন মীরসরাই থানার জ্যেষ্ঠ উপ-পরিদর্শক (এসআই) শফিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘আহতদের তরফ থেকে থানায় কোন ধরণের অভিযোগ দেয়া হয়নি। তবে পরিস্থিতি শান্ত রাখতে পুলিশ বাড়তি নজরদারি রেখেছে।’
স্বাধীনতা মেলা উদ্যাপন কমিটির চেয়ারম্যান মীরসরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ আতাউর রহমান বলেন, ‘স্থানীয় দায়িত্বশীল ব্যক্তিবর্গ মেলা বাস্তবায়নের ব্যাপারে সজাগ দৃষ্টি না রাখায় এ ধরণের পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। এ ঘটনায় মন্ত্রী মহোদয় (ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি) ক্ষুদ্ধ হয়েছেন। তবে মেলা শুরুর ব্যাপারে সকলকে সমন্বয় করার প্রচেষ্টা চলছে। আপাদত মেলা বন্ধ রয়েছে।