বুধবার, ১০ জুলাই ২০২৪, ২৬ আষাঢ় ১৪৩১খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

মীরসরাইয়ের বারইয়ারহাটে স্বর্ণ দোকান লুটের ঘটনায় গ্রেপ্তার ১ ডাকাত

12804810_948500285232767_3676163643846860819_n

মীরসরাইয়ের বারইয়ারহাট পৌর বাজারের স্বর্ন দোকান শামীম জুয়েলার্সে চাঞ্চল্যকর ডাকাতির ঘটনায় সম্পৃক্ত এক ডাকাতকে গ্রেফতার করেছে জোরারগঞ্জ থানা পুলিশ। গতকাল সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জোরারগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কৃমকর্তা ওসি জাহিদুল কবির। তবে কৌশলগত কারনে গ্রেফতারকৃতের নাম প্রকাশে অপারগতা প্রকাশ করেন তিনি।

জোরারগঞ্জ থানা পুলিশ সূত্র জানান, ঘটনার রাতে এ বিষয়ে ভুক্তভোগী স্বর্ণ ব্যবসায়ী বাদি হয়ে জোরারগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ শামিম জুয়েলার্সের সিসি টিভিতে ধরা পড়া ডাকাতির ঘটনার ফুটেজ ও পৌর বাজারের ভিবিন্ন ফয়েন্টে বসানো সিসি টিভি ফুটেজ সহ বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ন ফুটেজ সংগ্রহ ও সেগুলো যাচাই-বাচাই বিশ্লেষন করে সংশ্লিষ্ট ডাকাতদের সনাক্ততে করতে সক্ষম হয়। পরে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহিদুল কবিরের নেতৃত্বে ডাকাতির মালামাল উদ্ধার ও সম্পৃক্তদের গ্রেফতার করতে দেশের ফেনী, চট্টগ্রাম, লক্ষিপুর, ঢাকা, বরিশাল সহ দেশের ভিবিন্ন জায়গায় একাধিক অভিযান পরিচালনা করে জোরারগঞ্জ থানা পুলিশ। সবশেষ গতকাল রাতে নঁওগা’র একটি ডেরায় অভিযান চালিয়ে ঘটনায় সম্পৃক্ত ডাকাত দলের ওই (সনাক্তকৃত) সদস্যকে গ্রেফতার করা সক্ষম হয়। এ সময় ডাকাতি হওয়া মালামালের সামান্য অংশও উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতারকৃত ওই ডাকাত বর্তমানে জোরারগঞ্জ থানা হেফাজতে রয়েছেন।

ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আরো জানান, প্রাথমিক জিঞ্জাসাবাদে গ্রেফতারকৃত ডাকাত ঘটনায় সম্পৃক্ততার দায় স্বীকারপূর্বক ঘটনার বিস্তারিত বিবরন ও এ সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ন তথ্য দিয়েছে। তার বিরুদ্ধে দেশের ভিবিন্ন থানায়- স্বর্ন দোকান ডাকাতি, ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান ডাকাতি, চুরি, ছিনতাই সহ কমপক্ষে ৩০ টি মামলা রয়েছে। সংঘবদ্ধ এ দূদর্ষ ডাকাত দলে দেশের আলাদা আলাদা জেলা, উপজেলার কমপক্ষে ১৩/১৪ সদস্য কাজ করে। সে জানায়, শামীম জুয়েলার্সে ডাকাতির সময় ওই দলের কমপক্ষে ৮ সদস্য অংশ নেয়। ঘটনার ২/৩ দিন আগে থেকেই সুযোগের অপেক্ষায় নাজরদারিতে রাখে দলটি। পরে উপযুক্ত হিসেবে ২৬ ফেব্রুয়ারি মাগরিবের নামাজ চলাকালীন সময়কে বেচে নিয়ে ডাকাতি চালায়। তবে বারইয়ারহাটে ডাকাতিতে অংশ নেয়ারা সকলেই উপজেলার বাইরের পৃথক এলাকার।

ওই দলে কিংবা বারইয়ারহাটে ঘটনার পেছনে স্থানীয় কারো সহযোগীয়া রয়েছে কিনা জানতে চাইলে ডাকাতির মালামাল পুরোপুরি উদ্ধার না হওয়া পর্যন্ত এ বিষয়ে আর কোন তথ্য জানানো সম্ভব নয় বলে আর কোন তথ্য জানাতে অপারগতা প্রকাশ করেন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহিদুল কবির। তবে গ্রেফতারকৃতের দেয়া স্বীকারোক্তি মতে বাকিদের গ্রেফতার ও মালামাল উদ্ধারে তাকে সাথে নিয়ে অভিযান চলছে জানান তিনি।

এ ঘটনার আগেও অতীতে বারইয়ারহাটের পৌর বাজারে একাধিক স্বর্ন দোকান ডাকাতির ঘটনা ঘটে। উপজেলায় ঘটা আগের চাঞ্চল্যকর স্বর্ন দোকান ডাকাতির ঘটনার সাথে এর কোন সম্পৃক্ততা রয়েছে কি না এসব বিষয়ও খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানান সেকেন্ড অফিসার বিপুল দেবনাথ।