শুক্রবার, ২৫ জুন ২০২১, ১১ আষাঢ় ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

ভাসানীর মতো জিয়ার নাম মুছে ফেলার ষড়যন্ত্র চলছে

index_176416
বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও ঢাকা মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক মির্জা আব্বাস বলেছেন, স্বাধীনতার স্বপ্নদ্রষ্টা মওলানা ভাসানীর অবদানসহ অনেক কিছুই আওয়ামী লীগ স্বীকার করতে চায় না। পাঠ্যসূচিতে মুক্তিযুদ্ধে জিয়াউর রহমানের অবদানের কথা উল্লেখ নেই। বই থেকে তাদের নাম মুছে দেয়া হয়েছে। জিয়াউর রহমান এবং বিএনপির নাম মুছে ফেলে দেয়ার ষড়যন্ত্র চলছে।জাতীয় প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে বুধবার দুপুরে মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর ৩৮তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ভাসানী স্মৃতি সংসদ আয়োজিত এক স্মরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।মির্জা আব্বাস বলেন, সামনে আন্দোলন আসছে। আমরা দেখতে চাই সরকারের কাছে কত গুলি আছে। গুলি খাওয়ার জন্য আমরা তৈরি। তিনি বলেন, সময় থাকতে স্বৈরাচারের পথ থেকে বের আসুন। এ দেশের মানুষ কখনো স্বৈরাচারকে প্রশ্রয় দেয়নি। কিভাবে স্বৈরাচারকে বিদায় করতে হয় তা এদেশের মানুষ জানে।মওলানা ভাসানীর অবদান তুলে ধরে মির্জা আব্বাস বলেন, ভাসানীর জন্ম না হলে অনেক রাজনীতিবিদের জন্ম হতো না। ইতিহাস থেকে মওলানা ভাসানী এবং জিয়ার নাম মুছে দেয়া যাবে না। মওলানা ভাসানী ছাড়া যেমন ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনের ইতিহাস পূর্ণতা পাবে না, তেমনি জিয়াউর রহমানের অবদান ছাড়া মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস লেখা যাবে না।সংগঠনের সভাপতি জিয়াউল হক মিলুর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা শামসুজ্জমান দুদু, যুগ্ম মহাসচিব বরকত উল্লাহ বুলু, চেয়ারপারসনের বিশেষ সহকারী শামছুর রহমান শিমুল বিশ্বাস প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।