সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

ভারতের দুমকায় আন্তর্জাতিক কবি সমাবেশে খবরিকা সম্পাদক ভারত- মীরসরাই সাহিত্য সম্প্রীতির নতুন দীগন্তের সূচনা

নিজস্ব প্রতিনিধি :: ভারতের ঝাড়খন্ড রাজ্যের দুমকার বাংলা সাহিত্য পত্রিকা শ্যামলিমার ২০ বছর পূর্তি উপলক্ষে ১৪ ফেব্রুয়ারী বৃহস্প্রতিবার বিকেল ৩টায় ব্রে বী বাটিকা কমিউনিটি সেন্টারে এক আন্তর্জাতিক সাহিত্য সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
শ্যামলিমার সম্পাদক ড. ছায়া গুহ এর পরিচালনায়, সিদহু কানু মুর্মূ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রোভিসি ড. এইচ পি শর্মার সভাপতিত্বে উক্ত আন্তর্জাতিক সাহিত্য সমাবেশে প্রধান অতিথী হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের কবি, সাংবাদিক ও সম্পাদক মাহবুব পলাশ। এসময় প্রধান অতিথী বলেন ভারতের দুমকায় আয়োজিত বাংলাদেশ সহ ভারতের বিভিন্ন ভাষা ও রাজ্যে শিল্প সংস্কৃতি নিয়ে আয়োজিত এই সাহিত্য সমাবেশ সৃষ্টি করলো ভারত – বাংলাদেশের মীরসরাই এর সাথে নতুন সম্ভাবনা। এখানকার স্থানীয় কবি লেখক গবেষক, বাংলা, হিন্দি, ইংরেজী, সাঁওতালি, উর্দু সহ নানা ভাষার কবি লেখক গবেষক গন পরস্পর সম্প্রিতীর বন্ধনে আবদ্ধ হলে। মাহবুব পলাশ বলেন মুক্তিযুদ্ধে ভারতের অবদান ও দুই দেশের নানা ভাতৃত্ব সম্প্রিতির যুগল বন্ধন জোরদারের আহ্বান জানান। পাশাপাশি সমাজের সুশীল সমাজের সকলের প্রতি কবিতা ও সাহিত্যের সেবায় এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।
অশোক সিং এ সঞ্চালনায় উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথীর বক্তব্য রাখেন দুমকা এসপি কলেজের অধ্যক্ষ ড. প্রমোদিনী হাঁমদা ও একালের ধূমকেতু র সম্পাদক পরিমল রায় । কবিতা আবৃত্তি করেন শান্তি নিকেতন এর শিক্ষক কবি ড. রামচন্দ্র রায়, ড. হানিফ মোহাম্মদ, ড. রাম বরণ চৌধুরী, ড. দেব নারায়ন গড়াই, ড. হেনা চক্রবর্তি, অঞ্জুলা মুরমু, কীরন কুমারী হাসদা, কমলা কান্ত সিংহা, জগজিৎ সিংহ প্রমুখ কবিগন। অনেক কবির আবেগপূর্ণ গীতিকবিতা, ও স্বরচিত পাঠ আন্দোলিত করে অনুষ্ঠানের সবাইকে। অনুষ্ঠানে রবীন্দ্র সংগীত পরিবেশন করেন রবীন্দ্র গবেষক ড. মৌ ভট্রাচার্য্য, নজরুল গীতি পরিবেশন করে দোলন চাপা সেনগুপ্তা। সভাপতি প্রোভিসির কবিতা আবৃত্তি সবাইকে বিমোহিত করে। এছাড়া মনোরম নৃত্য ও ছিল অন্যতম। অনুষ্ঠানের শুরুতে অতিথিগন মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্বলন করেন। শ্যামলিমার পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা ও সম্মাননা পদক প্রদান করেন অতিথী গনকে। শ্যামলীমা সহ কয়েকটি গ্রন্থের মোড়ক উম্মোচন করা হয় অনুষ্ঠানে। এছাড়া লায়ন্স ক্লাব অব দুমকার পক্ষ থেকে প্রধান অতিথী মাহবুব পলাশকে লায়ন্স কোর্ট পিন পরিয়ে দেন দুমকার লায়ন্স নেতৃবৃন্দ।