রবিবার, ১৩ জুন ২০২১, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

ব্যাটসম্যানদের সামর্থ্য আছে লক্ষ্য নেই!

image_674_96633

ছিলেন জাতীয় দলের সফল অধিনায়ক, এরপর প্রধান নির্বাচক ও এখন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান আকরাম খান। সাকিব তামিমদের দলটি অনেকটা তার নিজ হাতেই গড়া। কিন্তু এমন পারফরমেন্স কোনভাবেই মেনে নিতে পারছেন না। সিরিজ শেষে প্রত্যেক ক্রিকেটারদের জবাবদিহিতা করতে হবে। শুধু ক্রিকেটার নয় কোচ-নির্বাচকসহ টিম ম্যানেজমেন্টের সবাইকে এর আওতায় আনা হবে। এমনই হুংকার দিয়েছেন আকরাম। গতকাল মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে কথা বলেছেন সংবাদ মাধ্যমের সামনে। তিনি বলেন- ব্যাটসম্যানদের লম্বা ইনিংস খেলতে হবে। না হলে জয়ের ধারায় ফেরা যাবে না। তবে যতই খারাপ করুক দল আকরাম বিশ্বাস করেন এই দলের সামর্থ্য আছে। তিনি বলেন, ‘কেননা এরাই অনেক বড় বড় জয় এনেছে বাংলাদেশের জন্য।
গতকাল দলের পারফরমেন্স নিয়ে আকরাম খান হতাশ হয়ে বলেন, ‘খুবই খারাপ লাগছে। আশা করছিলাম প্রথম ম্যাচ হারের পর বাংলাদেশ ভাল করবে। আমাদের যে সামর্থ তার থেকে আমরা অনেক খারাপ খেলেছি। ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিং সব খানেই খারাপ হয়েছে। এই বছরটায় দেখছি ২টা ম্যাচ খারাপ হলে একটা ভাল হচ্ছে, বিশেষ করে ব্যাটিং। আমরা বিষয়গুলো দেখছি। ব্যাটিং নিয়ে সবাই কাজ করছে। খেলোয়াড়রা যে কষ্ট করছে না সেটা বলা যাবে না। যে জিনিসটা আমার চোখে পড়েছে, ব্যাটসম্যানদের কিন্তু ব্যক্তিগত একটা লক্ষ্য থাকে। এই জিনিসটার বড় অভাব দেখেছি। সাধারণত ব্যাটসম্যানরা গিয়ে একটু সময় নেয়; ৫০ ওভার খেলার একটা চিন্তা ভাবনা করে। সেই জিনিসটার খুব অভাব দেখছি। শুরু থেকেই দেখছি চ্যালেঞ্জে চলে যাচ্ছে। এভাবে হলে রান করা কিন্তু কঠিন। আর ব্যাটসম্যানদের উন্নতী করতে হলে লম্বা ইনিংস খেলতেই হবে। এটা পুরো সিরিজের জন্যই ভাল। প্রথম ম্যাচ থেকে যদি আত্মবিশ্বাসের লেভেল চলে আসে তাহলে কিন্তু যতগুলো ম্যাচ খেলা যায় ততগুলো ম্যাচে উন্নতি করার সুযোগ থাকে। আমরা যেহেতু লম্বা ইনিংস খেলতে পারছি না এজন্যই আমাদের এই সমস্যাটা হচ্ছে।’
অন্যদিকে ক্রিকেট বোর্ডে নতুন কমিটি আসার পর বাংলাদেশের ক্রিকেট এভাবে পরিবর্তন হয়েছে এটা অনেকেই মনে করেন। এই বিষয়ে আকরাম বলেন, ‘এটা একদিক থেকে চিন্তা করলে হবে না। এই খেলোয়াড়রাই কিন্তু এক সময় পারফর্ম করে দলকে জিতিয়েছে। তামিম কিছুটা ফর্মে ফিরে এলেও আমি মনে করি নাসির-রিয়াদ, মুশফিকও রান করতে পারছে না। দলের যারা সেরা খেলোয়াড় আছে তাদের রান করতে হবে।’ খরাপ করারও একটি সীমা আছে কিন্তু এখেেন গত ৮ মাস ধরে বাংলদেশ তাদের বাজে পারফরমেন্স থেকে বের হতে পারছে না। তাহলে কি দল নিয়ে বিসিবি যে ভাবে এগিয়ে যাচ্ছে তাতে কোন ভুল থাকতে পারে? এমন বিষয় সামনে আসতে আকরাম বলেন, ‘বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়দের আত্মবিশ্বাসের লেভেলটা খুব দ্রুত উঠানামা করে। ২টি ম্যাচ ভাল করলে আত্মবিশ্বাসের মাত্রাটা খুব উচুতে চলে যায়। অন্যদিকে ২টি ম্যাচ খারাপ করলে সেই লেভেলটা নিচের দিকে নেমে যায়। এই জিনিসটা ঠিক নয় বলে আমরা ২ জন মনোবিদ এনেও চেষ্টা করেছি। আমরা আমাদের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। আমার বিশ্বাস এই দলটা ভাল করবেই।’