শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১, ৩১ বৈশাখ ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

বিশেষ সম্পাদকীয় : পাঠকদের আরো কাছাকাছি থাকতে চাই

: কামরুল হাসান জনি :

jony B-W
দীর্ঘ পথ অতিক্রম করে পাঠকদের চাহিদা মতো প্রাপ্তি আর মনের খোরাক মিটিয়ে হৃদয় হতে হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছে উত্তর চট্টলার গণমানুষের মুখপত্র হিসেবে পরিচিত পাক্ষিক খবরিকা। বাংলা নববর্ষে পঞ্জিকার প্রথম দিন পাঠকদের ভালবাসা সাথে নিয়ে আরো অধিক প্রত্যাশা পূরণের অঙ্গীকারে শুরু হলো খবরিকার নবযাত্রা। দায়বদ্ধতা ও নিরাপক্ষতার পরিচয় দিয়ে মীরসরাই উপজেলার ষোলটি ইউনিয়নে নিয়মিত প্রকাশনায় নিজেদের অবস্থান তুলে ধরায় খবরিকা বদ্ধপরিকর। প্রতিযোগিতার ভিড়ে পাঠক প্রিয়তায় শীর্ষে থেকে তেমনি ভাবে নিজেদের অবস্থান দৃঢ় করে তুলেছে পাশ্ববর্তি কয়েকটি উপজেলায়ও। প্রকাশনার পনের বছরে এসে স্বীকার করছি – প্রশংসার দাবিদার পাঠকরাই ; যারা ভালবেসে খবরিকাকে আপন করে নিয়েছে। সফলতার দাবিদার হকার ভাইয়েরা; যাদের হাত ধরে পৌছে যায় পত্রিকা দিগন্ত জুড়ে। কৃতিত্বের দাবিদার বিজ্ঞাপন দাতা, পৃষ্ঠপোষক  আর নিঃস্বার্থে কাজ করা একঝাঁক তরুণ সংবাদকর্মী; যাদের অক্লান্ত শ্রমের ফসল হিসেবে বাজারে আসে নতুন নতুন খবর নিয়ে খবরিকা কাগজ।

সভ্যতা সংস্কৃতির পরির্বতনের সাথে এগিয়ে যাচ্ছি আমরা। তথ্য-প্রযুক্তির কল্যাণে নব নব কৌশলে নিমেষেই অজানাকে জানতে ও মুহূর্তের খবর মুহূর্তেই আমরা পেতে চাই। পাঠকদের আগ্রহ ও সেসব কৌতুহলের ভাষা আমরা বুঝতে চেষ্টা করি। যার ধারাবাহিকতায় প্রযুক্তির ছোঁয়া নিয়ে খবরিকাও বৃদ্ধি করে যাচ্ছে নিজেদের পরিসর। মুহূর্তের খবর মুহূর্তে পৌঁছে দিতে যুক্ত হয়েছে খবরিকা’র অনলাইন পোর্টেল ‘খবরিকাটুয়েন্টিফোর.কম’। যাতে নিত্যনতুন খবর সহ আছে খবরিকা প্রিন্ট ভার্সন তথা ই-পেপার হুবহু পড়ার সুবিধা। কোন আঞ্চলিক প্রকাশনা হিসেবে খবরিকাই প্রথম ই-পেপারের যাত্রা শুরু করেছে। দূর-দূরান্তের পাঠকদের কথা মাথায় রেখেই খবরিকা’র এই নব যাত্রা। একটি কথা বলতেই হয়- প্রতিযোগিতার ভিড়েও পাঠকরাই আমাদের সাহস, এগিয়ে চলার শক্তি। পাঠকদের ভালবাসায় আমরা আরো এগিয়ে যেতে চাই।

যাত্রা পথে যেমন পাঠকরা খবরিকা পরিবারকে আন্তরিক ভালবাসা দিয়েছেন তেমনি ভাবে কিছু অপ্রত্যাশিত অভিযোগ ও বিভিন্ন সময় পত্রিকার পরিবারকে হুমকি-ধমকেরও সম্মুখীন হতে হয়েছে। সেসব অভিযোগ ও হুমকির মোকাবেলা করে একটি আঞ্চলিক প্রকাশনা হিসেবে শুধুমাত্র পাঠকদের কথা ভেবে নিজেদের কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে খবরিকা। আগামীতেও পাঠকদের মতামত ও অভিযোগ-পরামর্শের সর্বোচ্চ প্রাধান্য দেয়া হবে। প্রত্যাশা পূরণের লক্ষ্যই আমরা পাঠকদের আরো কাছাকাছি থাকতে চাই।

– অনলাইন সম্পাদক,
খবরিকাটুয়েন্টিফোর.কম।