বৃহস্পতিবার, ১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

বিটিভিকে সরকারি মুখপত্র বানাতে চাই না

5_52199

 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাঙালি সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য বাংলাদেশ টেলিভিশনের (বিটিভি) উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেছেন এবং প্রযুক্তি ও জনগণের চাহিদা অনুযায়ী পরিচালিত করার জন্য জাতীয় এই টেলিভিশন চ্যানেল কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘দর্শকদের আকৃষ্ট করার জন্য বিটিভিকে অবশ্যই জীবন-ঘনিষ্ঠ অনুষ্ঠান নির্মাণ করতে হবে। শুধু সংবাদ জানানোর মধ্যেই এর কার্যক্রম সীমাবদ্ধ রাখলে চলবে না। জাতীয় টেলিভিশনকে এমন একটি প্রতিষ্ঠান হিসেবে কাজ করতে হবে যা জনগণের রুচি ও আচরণের পথপ্রদর্শক হিসেবে কাজ করবে।’ তিনি আরও বলেন, বিটিভিকে শুধু সরকারের প্রচারযন্ত্র বানাতে চাই না। প্রধানমন্ত্রী গতকাল রাজধানীর রামপুরায় বাংলাদেশ টেলিভিশন ভবন প্রাঙ্গনে প্রতিষ্ঠানের সপ্তাহব্যাপী সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠানমালার উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন।শেখ হাসিনা বলেন, সরকার বিটিভিকে একটি জাতীয় প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তুলতে চায়। তাই নতুন প্রযুক্তি ও জনগণের চাহিদা অনুযায়ী অনুষ্ঠান নির্মাণকালে বিষয়টি মনে রাখতে হবে। দেশের প্রধান জাতীয় সম্প্রচার প্রতিষ্ঠান হিসেবে বিটিভির দায়িত্বশীলতা অপরাপর বেসরকারি চ্যানেলের তুলনায় সম্পূর্ণ ভিন্ন। বেসরকারি চ্যানেলগুলো তাদের ব্যবসাকে প্রাধান্য দেয়, অন্যদিকে বিটিভিকে জনগণের চাহিদার প্রতি গুরুত্ব দিতে হয় বলে তিনি উল্লেখ করেন। তিনি অতীত ঐতিহ্য পুনরুদ্ধারের লক্ষ্যে বিটিভির অনুষ্ঠান নির্মাণে মেধাবী, সৃষ্টিশীল ও কর্মদক্ষ ব্যক্তিদের জন্য সুযোগ সৃষ্টির জন্য সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, তথ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এ কে এম রহমতউল্লাহ এবং প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন তথ্য সচিব মরতুজা আহমেদ। প্রখ্যাত শিল্পী ও বিটিভির প্রথম সংগীতশিল্পী ফেরদৌসি রহমান এবং বিটিভির প্রথম মহাপরিচালক জামিল চৌধুরী সম্মানিত অতিথি হিসেবে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন এশিয়া-প্যাসিফিক ব্রডকাস্টিং ইউনিয়নের মহাসচিব ড. জাভাদ মোতাগহি এবং বিটিভির মহাপরিচালক আবদুল মান্নান। প্রধানমন্ত্রী বিটিভি সদর দফতরের নবনির্মিত ১২ তলা ভবন উদ্বোধন করেন এবং সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে বেলুন এবং ডাকটিকিট অবমুক্ত করেন। প্রধানমন্ত্রী মঞ্চে প্রখ্যাত শিল্পী ফেরদৌসি রহমান এবং বিটিভির সাবেক ডিজি জামিল চৌধুরীর সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন।