বৃহস্পতিবার, ৭ জুলাই ২০২২, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

বাধ্যতামূলক অবসরে যুগ্ম সচিব জাহাঙ্গীর

54297_b2

 

টানা ছয় বছর ধরে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওএসডি) ছিলেন যুগ্ম সচিব একেএম জাহাঙ্গীর। এরপর তার কপালে জুটেছে বাধ্যতামূলক অবসরের খড়গ। খালেদা জিয়ার সঙ্গে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন গণমাধ্যমে প্রকাশিত এমন খবরের পর পরই তাকে বাধ্যতামূলক অবসরে পাঠানো হলো। গতকাল জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা এক আদেশে বলা হয়, জাহাঙ্গীরের চাকরির বয়স ২৫ বছর পূর্ণ হওয়ায় জনস্বার্থে তাকে বাধ্যতামূলক অবসরে পাঠানো হয়েছে। তিনি বিধি মোতাবেক অবসরজনিত সুবিধা পাবেন। এর আগে সাবেক চারদলীয় জোট সরকারের আমলে জাহাঙ্গীর জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের এপিডি (অ্যাপয়নমেন্ট, পোস্টিং, ডেপুটেশন) অনুবিভাগে ছিলেন। সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্রে জানা গেছে, খালেদা জিয়ার সঙ্গে বৈঠকে অংশ নেয়া বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের ‘নন-ক্যাডার’ কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে এরই মধ্যে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলোকে নির্দেশনা দিয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। যে সব নন-ক্যাডার কর্মকর্তা ও কর্মচারী ওই বৈঠকে অংশ নিয়েছিলেন তাদের প্রথমে সাময়িক বরখাস্ত করে কারণ দর্শাও নোটিশ দেয়া হবে।  নোটিশের জবাব পাওয়ার পর তাদের চূড়ান্তভাবে বরখাস্ত করা হবে। এদিকে গত ৪ঠা ডিসেম্বর রাতে খালেদা জিয়ার সঙ্গে একদল সরকারি কর্মকর্তা- কর্মচারীর বৈঠকের খবর বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রচারিত হলেও একে ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দেয় বিএনপি। তবে ওই ঘটনাকে হালকাভাবে নেয়া হবে না জানিয়ে তদন্ত করে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেয়ার কথা আগেই বলেছিলেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমাত আরা সাদেক। এমন কথা চালাচালির মধ্যেই বাধ্যতামূলক অবসরে পাঠানো হলো যুগ্ম সচিব জাহাঙ্গীরকে।