সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

নিজাম হাজারীর এমপি পদে থাকার এখতিয়ার নিয়ে হাইকোর্টের রুল

27219_b1

ফেনী-২ আসনের সরকারদলীয় এমপি নিজাম উদ্দিন হাজারীর পদে থাকার এখতিয়ার নিয়ে রুল জারি করেছে হাইকোর্ট। কোন এখতিয়ার ও কর্তৃত্ববলে তিনি এমপি পদে বহাল রয়েছেন তা জানাতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে এ আসনটি কেন শূন্য ঘোষণা করা হবে না রুলে তা-ও জানতে চাওয়া হয়েছে। বিচারপতি মির্জা হোসেইন হায়দার এবং বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকারের হাইকোর্ট বেঞ্চ গতকাল এ রুল জারি করে। স্পিকার, প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও নিজাম হাজারীসহ সংশ্লিষ্টদের চার সপ্তাহের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে নিজাম হাজারী কতদিন কারাগারে ছিলেন, কবে মুক্তি পেয়েছেন এ সংক্রান্ত নথি ও প্রতিবেদন ৩০ দিনের মধ্যে দাখিল করতে চট্টগ্রামের কারা কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। ফেনী জেলা যুবলীগের সাবেক নেতা সাখাওয়াত হোসেন ভূঁইয়ার দায়ের করা এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি শেষে হাইকোর্ট এ নির্দেশ দেয়। রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন এডভোকেট মনজিল মোরসেদ। অস্ত্র আইনে সাজাপ্রাপ্ত নিজাম হাজারী প্রতারণা করে নির্ধারিত সাজা ভোগের ২ বছর ১০ মাস আগেই কারাগার থেকে মুক্তি পান উল্লেখ করে এ রিট আবেদনটি দায়ের করা হয়। সংবাদপত্রে প্রকাশিত এ সংক্রান্ত প্রতিবেদনও রিটে যুক্ত করা হয়। মনজিল মোরসেদ বলেন, সংবিধানের ৬৬(২) অনুচ্ছেদে সংসদ সদস্য হওয়ার ক্ষেত্রে অযোগ্যতার কথা বলা হয়েছে। ওই অনুচ্ছেদ অনুযায়ী নৈতিক স্খলনজনিত কোন ফৌজদারি অপরাধে কারও সর্বনিম্ন ২ বছরের কারাদ- হলে মুক্তিলাভের পাঁচ বছর পর্যন্ত তিনি নির্বাচনের অযোগ্য হিসেবে বিবেচিত হবেন। পর্যালোচনায় দেখা যায়, এ পাঁচ বছর সময় অতিক্রান্ত হওয়ার আগেই নিজাম হাজারী সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদন সত্য হলে তার সংসদ সদস্য পদে বহাল থাকার সুযোগ নেই। সংবাদপত্রে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, চট্টগ্রামের চতুর্থ অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদালত ও বিশেষ ট্রাইব্যুনালে ২০০০ সালের ১৬ই আগস্ট অস্ত্র আইনের ১৯(ক) ধারায় ১০ বছর এবং ১৯(চ) ধারায় ৭ বছরের কারাদ- হয় নিজাম হাজারীর। ফেনীর ফুলগাজী উপজেলা চেয়ারম্যান একরামুল হক হত্যাকা-েও তার নাম আলোচিত হচ্ছে। ফেনীর সাবেক সংসদ সদস্য জয়নাল হাজারীর অভিযোগ, পত্রিকায় প্রতিবেদনে তথ্য দেয়ার কারণেই নিজাম হাজারীর নির্দেশে একরামুল হককে হত্যা করা হয়। একরামের সমর্থকরাও এ হত্যাকা-ে নিজাম হাজারীর জড়িত থাকার অভিযোগ করে আসছেন।