বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ১৫ আষাঢ় ১৪২৯খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

নাশকতার অভিযোগে মীরসরাই উপজেলা চেয়ারম্যান বরখাস্ত


Warning: Trying to access array offset on value of type bool in /home/khabarica24/public_html/wp-content/themes/taslimnews/inc/template-tags.php on line 163

Nurul amin Chairman, Mirsarai
চট্টগ্রামের মীরসরাইয়ে নাশকতার অভিযোগে বিএনপি নেতা ও উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল আমিনকে বরখাস্ত করা হয়েছে। গত সোমবার (২ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় এ সংক্রান্ত চিঠি এসে পৌঁছায় চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের হাতে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার আসিফ ইকবাল। নাশকতার দায়ে নুরুল আমিনের বিরুদ্ধে মীরসরাই ও জোরারগঞ্জ থানায় ১০টি মামলা রয়েছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহম্মদ আশরাফ হোসেনের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, বরখাস্তের বিষয়ে শুনেছি। কিন্তু এ সংক্রান্ত কোনো দাপ্তরিক চিঠি আমি পাইনি। ’
জানা গেছে, ২০১৩ সালের শেষের দিকে এবং ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি জাতীয় সংসদ নির্বাচন পর্যন্ত নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবীতে বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোটের আন্দোলনের সময় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে নাশকতার ঘটনায় ৮টি মামলায় আসামি হন বিএনপি নেতা নুরুল আমিন। আওয়ামীলীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট সরকার ক্ষমতায় আসার পর ২০১৪ সালের ১৯ ফেব্র“য়ারি অনুষ্ঠিত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী নুরুল আমিন ৫৬ হাজার ১৭৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। সেসময় নির্বাচন কমিশনে জমা দেওয়া হলফনামায় মোট ৭টি মামলার তথ্য দেন তিনি। সেক্ষেত্রে দুটি মামলার তথ্য গোপন করেন নুরুল আমিন। উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে শপথ নেওয়ার পর সর্বশেষ গত ১২ জানুয়ারি হত্যা ও নাশকতার দায়ে নতুন আরো দুটি মামলায় আসামী হন এই বিএনপি নেতা।

মীরসরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইমতিয়াজ এমকে ভূঁঞা জানান, উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল আমিনের বিরুদ্ধে ২০১৩ এবং ২০১৪ সালে মীরসরাই থানায় ৪টি মামলা দায়ের করা হয়। ইতোমধ্যে ৪টি মামলার অভিযোগ আদালতে প্রদান করা হয়েছে।

জোরারগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা লিয়াকত আলী জানান, নুরুল আমিনের বিরুদ্ধে সম্প্রতি একটি হত্যা ও একটি নাশকতার মামলা দায়ের করা হয়েছে। এর পূর্বে তার বিরুদ্ধে আরো ৪টি মামলা রয়েছে।

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার আসিফ ইকবাল জানান, ‘মীরসরাই উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল আমিনের বিরুদ্ধে মোট ১০টি মামলা রয়েছে। তার মধ্যে নাশকতার ২টি মামলা আমলে নিয়ে সোমবার (২ ফেব্র“য়ারি) স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে তাকে বরখাস্ত করা হয়। বরখাস্তের চিঠি ফ্যাক্স যোগে সোমবার সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসকের কাছে এসে পৌঁছায়।

এই বিষয়ে কথা বলতে গতকাল একাধিকবার নুরুল আমিনের মুঠোফোনে যোগাযোগ করতে চাইলে তা বন্ধ পাওয়া যায়।

তবে বিএনপি’র একাধিক নেতা জানিয়েছেন, সব মামলাগুলো রাজনৈতিক। যা উদ্দেশ্য প্রণোদিত। বিপুল ভোটে নির্বাচিত নুরুল আমিনকে উপজেলা চেয়ারম্যান পদ থেকে সরানোর জন্যে এই মামলা গুলো দিয়েছে আওয়ামীলীগ।

উল্লেখ্য , নুরুল আমিন চট্টগ্রাম উত্তরজেলা বিএনপির সাবেক সহ-সম্পাদক ও উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক। বর্তমানে তিনি উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য।