শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ৪ আষাঢ় ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

নক্ষত্ররাজির দ্যুতিতে ঝলমলে রিয়াল

1_149012

শতভাগ জয়ের রেকর্ডের পাশাপাশি দশ ম্যাচে ৪২ গোল। শনির বলয় থেকে বেরোতে এর চেয়ে আদর্শ প্রতিপক্ষ আর কি হতে পার! প্রিয় শিকার এফসি বাসেলকে সামনে পেয়ে দুঃসময় পেছনে ফেলে আবারও ঝলসে উঠল রিয়াল মাদ্রিদ। দাপুটে জয় দিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লীগ অভিযান শুরু করল বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। মঙ্গলবার প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী দিনে বাসেলকে ৫-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে রিয়াল। নিজেদের হারিয়ে খোঁজা নক্ষত্ররাজিদের দ্যুতিতে আবারও ঝলমলিয়ে উঠল বার্নাব্যু। ত্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো, গ্যারেথ বেল, জেমস রদ্রিগেজ ও করিম বেনজেমা-রিয়ালের আক্রমণভাগের চার রতœই সুইস চ্যাম্পিয়নদের জাল কাঁপিয়েছেন। একই সঙ্গে প্রথম ক্লাব হিসেবে ইউরোপিয়ান টুর্নামেন্টে এক হাজার গোলের অনন্য মাইলফলক ছুঁয়েছে রিয়াল।
রোনাল্ডোদের আলোয় ফেরার রাতেই মুদ্রার উল্টো পিঠ দেখতে হল মাদ্রিদের আরেক দল অ্যাটলেটিকোকে। ডার্বি জয়ের সুখস্মৃতি নিয়ে মাঠে নেমে প্রথম ম্যাচেই অঘটনের শিকার গতবারের রানার্সআপরা। গ্রিসের ক্লাব অলিম্পিয়াকোসের কাছে ৩-২ গোলে হেরে গেছে অ্যাটলেটিকো। ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগে অপরাজিত থাকা আর্সেনালও জোর ধাক্কা খেয়েছে। তবে ২০১৩ সালের রানার্সআপ বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের কাছে আর্সেনালের ২-০ গোলের হারকে অঘটন বলা যাবে না। পাঁচ বছর পর চ্যাম্পিয়ন্স লীগে ফেরা আরেক ইংলিশ জায়ান্ট লিভারপুল ২-১ গোলের নাটকীয় জয় পেয়েছে লুদোগোরেটসের বিপক্ষে। শেষ মুহূর্তে পেনাল্টি থেকে জয়সূচক গোলটি করেন অধিনায়ক স্টিভেন জেরার্ড। ওদিকে পাঁচ বছর পর চ্যাম্পিয়ন্স লীগে গোলের দেখা পেয়েছেন কার্লোস তেভেজ। আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের জোড়া গোলে মালমোর বিপক্ষে ২-০ ব্যবধানে জিতেছে জুভেন্টাস।
শেষ চার ম্যাচে তিন হার। যার দুটি আবার প্রতিবেশী অ্যাটলেটিকোর কাছে। মাসচারেক আগেই যাদের হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লীগে নিজেদের দশম শিরোপা ঘরে তুলেছে রিয়াল। ইউরো সেরার মুকুট ধরে রাখার মিশনে নামার আগে ভয়ংকর চাপে ছিল স্প্যানিশ জায়ান্টরা। এই সুযোগে হয়তো অঘটনের স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছিল বাসেল। কিন্তু প্রথমার্ধেই সেই স্বপ্ন রূপ নেয় দুঃস্বপ্নে। আরেক সুচির আÍঘাতী গোলে ১৪ মিনিটেই এগিয়ে যায় রিয়াল। এরপর ছয় মিনিটের ব্যবধানে আরও তিন গোল করে প্রথমার্ধে সব উত্তেজনায় পানি ঢেলে দেয় স্বাগতিকরা। ৩০ মিনিটে বেল, ৩১ মিনিটে রোনাল্ডো ও ৩৬ মিনিটে বাসেলের জাল কাঁপান জেমস রদ্রিগেজ। দুই মিনিট পর গনজালেজ ব্যবধান কমালেও আর ম্যাচে ফিরতে পারেনি বাসেল। ৭৯ মিনিটে ইউরো মঞ্চে রিয়ালের হাজারতম গোলটি করেন বেনজেমা।
বি-গ্র“পে রিয়ালের মূল প্রতিদ্বন্দ্বী এবার লিভারপুল। তারাও শুভসূচনা করেছে। কিন্তু ঘরের মাঠে পুঁচকে লুদোগোরেটসকে হারাতে ঘাম ছুটে গেছে অলরেডদের। অ্যানফিল্ডে ৮২ মিনিটে স্বাগতিকদের এগিয়ে দেন মারিও বালোতেল্লি। লিভারপুলের জার্সিতে এটিই তার প্রথম গোল। মনে হচ্ছিল জয়ের জন্য এই গোলটিই যথেষ্ট। কিন্তু ৯০ মিনিটে আবালোর গোলে নাটকীয়ভাবে ঘুরে দাঁড়ায় লুদোগোরেটস। নাটক তখনও শেষ হয়নি। ৯৩ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে অ্যানফিল্ডে প্রাণ ফিরিয়ে আনেন জেরার্ড।
গতবার সিগনাল ইদুনা পার্কে এসে ডর্টমুন্ডকে হারিয়ে গিয়েছিল আর্সেনাল। পরশু তার মধুর প্রতিশোধ নিল জার্মানরা। চিরো ইমোবিল ও অবামইয়ঙ্গের গোলে হেসেখেলেই জিতেছে ডর্টমুন্ড। আর্সেনালের ভাগ্য ভালো যে ব্যবধানটা ৫-০ হয়নি! শুধু প্রথমার্ধেই গানারদের গোলে ১৫টি শর্ট নিয়েছিল ডর্টমুন্ড।
ওদিকে অলিম্পিয়াকোসের মাঠে শুরুতেই ২-০ গোলে পিছিয়ে পড়ার পর অঘটন এড়াতে প্রাণপণ লড়াই করেছে অ্যাটলেটিকো। কিন্তু মান্দজুকিচ ও গ্রিজমানের গোলে শেষ পর্যন্ত হারের ব্যবধানই শুধু কমেছে। ইউরো মঞ্চে প্রত্যাবর্তন ম্যাচে বেয়ার লেভারকুসেনের বিপক্ষে মোনাকোর জয়ের নায়ক মৌতিনহো। এএফপি।
একনজরে ফল
অলিম্পিয়াকোস ৩ : ২ অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ
জুভেন্টাস ২ : ০ মালমো
লিভারপুল ২ : ১ লুদোগোরেটস
রিয়াল মাদ্রিদ ৫ : ১ বাসেল
জেনিত ২ : ০ বেনফিকা
মোনাকো ১ : ০ লেভারকুসেন
বরুশিয়া ডর্টমুন্ড ২ : ০ আর্সেনাল
গালাতাসারে ১ : ১ অ্যান্ডারলেখট