মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

ধৈর্যের রেকর্ড তামিম ইকবালের

48743_s1

তামিম ইকবালকে মারমুখী ব্যাটসম্যান হিসেবেই চেনেন ক্রিকেট ভক্তরা। তবে গতকাল তামিম দেখালেন তার ধৈর্যের পরিচয়। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসে গতকাল হার না মানা ৭৪ রানে দিনের খেলা শেষ করেন তামিম ইকবাল। এতে তামিম দেখান ক্যারিয়ারের সবচেয়ে মন্থর অর্ধশতক। গতকাল খুলনা শেখ আবু নাসের মাঠে টেস্ট ক্যারিয়ারের ১৭তম অর্ধশতক তুলে নিতে তামিম মোকাবিলা  করেন ১৬৯ বল। এতে তামিমের চারের মার ছিল মাত্র ৪টি। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তামিমের এটি প্রথম অর্ধশতক। আর গতকাল তামিম দেখালেন ধৈর্যশীল এক ইনিংস। ৭৪ রানে অপরাজিত তামিম সারাদিনে খেলে নেন ২৫০ বল। ক্যারিয়ারে তামিমকে এত শ্লথ ব্যাটিং করতে দেখা যায়নি আগে। এর আগে তিনি ঢাকায় ২০১৩ সালে ৭০ রান সংগ্রহ করতে খেলেছিলেন ২১৮ বল। তবে সে ইনিংসে ৫০ রান পূর্ণ করতে তামিম খরচ করেন ১২৪ বল। বাংলাদেশের হয়ে এই পর্যন্ত ৩৬ টেস্টের তারকা তামিম  ইকবাল সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন ৪টি। তবে ২০১০-এর পর সময়টা তার জন্য মোটেও সুখের ছিল না। চলতি বছর তার ব্যাট থেকে এসেছে গতকাল পর্যন্ত মোট ৩টি ফিফটি। আগের বছর ৩টি, ২০১২তে একটি ও ২০১১তে দুইবার মাত্র ব্যক্তিগত অর্ধশতক পান তামিম ইকবাল। এই পর্যন্ত ৩৬.৩৭ গড়ে তার সংগ্রহ ২৫১৪ রান। দেশের হয়ে রান সংগ্রহের তালিকায় তার অবস্থান তৃতীয় স্থানে। দ্বিতীয় স্থানে ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ আশরাফুল। তালিকায় সবার উপরে সাবেক তারকা হাবিবুল বাশার। তার সংগ্রহ ৩০২৬ রান। ২০০৮ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক তামিম ইকবালের।  টেস্ট ক্যারিয়ার তিনি শুরু করেছিলেন ফিফটি হাঁকিয়ে। অভিষেক ম্যাচের দুই ইনিংসেই তিনি ফিফটি হাঁকান। এই পর্যন্ত দেশের হয়ে মোট ১৭টি ফিফটি হাঁকিয়েছেন তামিম ইকবাল।

তামিম ইকবালের সর্বোচ্চ বলের ৫টি ফিফটি
রান    বল    স্ট্রাইক রেট    প্রতিপক্ষ    মাঠ/সাল
৭৪*    ২৫০    ২৯.৬০     জিম্বাবুয়ে    খুলনা/২০১৪
৭০    ২১৮    ৩২.১১    নিউজিল্যান্ড    মিরপুর/২০১৩
৬৪    ১৮১    ৩৫.৩৫    ওয়েস্ট ইন্ডিজ    এসটি.লুসিয়া/২০১৪
৮৩    ১৫৮    ৫২.৫৩    ওয়েস্ট ইন্ডিজ    মিরপুর/২০১১
৯৫    ১৫৩    ৬২.০৯      নিউজিল্যান্ড    মিরপুর/২০১৩