শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ৪ আষাঢ় ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

দ্বিতীয় দিনে ২৫৬ জনের জরিমানা, ১ জনের জেল

52104_f5

 

বাংলামোটর থেকে ফার্মগেট পর্যন্ত অবৈধভাবে রাস্তা পারাপারের দায়ে গতকাল বুধবার দ্বিতীয় দিনেও ২৫৬ জনকে জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এছাড়া, তানিয়া (২২) নামে এক পথচারীকে এক মাসের কারাদ- দিয়ে জেলে পাঠানো হয়েছে। দু’দিনের অভিযানে এটিই প্রথম কারাদ-। আইন ভেঙে রাস্তা পারাপারে বাধা দিলে তিনি পুলিশের হাত কামড়ে দেন। মঙ্গলবার    সকাল থেকে দু’টি ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে পরিচালিত ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের এ অভিযান চলবে আগামী সোমবার পর্যন্ত। ফুটওভারব্রিজ ও আন্ডারপাস ব্যবহার না করে আইন ভেঙে রাস্তা পারাপারের দায়ে দ্বিতীয় দিনে ২৫৬ জন পথচারীকে ১৩,৭১৫ টাকা জরিমানা করা হয়। এর মধ্যে বাংলামোটরে ঢাকা জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আবদুল কুদ্দুস পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত জরিমানা করে ১১৪ পথচারীকে। তাদের কাছ থেকে আদায় করা হয় ৭,৯১৫ টাকা। অন্যদিকে সোনারগাঁও ক্রসিংয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সরোয়ার আলম পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত ১৪২ পথচারীকে জরিমানা করে ৫,৮০০ টাকা। অভিযান পরিচালনাকালে তানিয়া নামে এক পথচারীকে আটক করলে তিনি পুলিশ কনস্টেবল মুক্তার হাতে কামড়ে দেন। এ ঘটনায় দ-বিধি ৩৫৩ ধারায় ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদ- দেন সারোয়ার আলম পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত। বাংলামোটরে পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট মো. আবদুল কুদ্দুস জানান, মঙ্গলবারের চেয়ে পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে। ওই দিন দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ৭০ জনেরও বেশি পথচারীকে আর্থিক দ- দেয়া হয়েছিল। কিন্তু বুধবার একই সময়ে সেটা ৫০-এ নেমে আসে। এতে প্রমাণ হয় জনগণ সচেতন হয়েছে। তিনি আরও জানান, ডিএমপি এবং আমার পক্ষ থেকে কড়া নির্দেশ দেয়া আছে যাতে রাস্তায় দাঁড়ানো কাউকে ধরে নিয়ে আসা না হয়। কারও বক্তব্য না শুনে জরিমানা করা হচ্ছে না বলেও তিনি জানান। কাওরান বাজার সার্ক ফোয়ারার সামনে আইন ভঙ্গ করে রাস্তা পার হওয়ার সময় একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স বিভাগের ছাত্র শোভনকে ৫০ টাকা জরিমানা করে ভ্রাম্যমাণ আদালত। ঠিক একই সময় কানে এয়ারফোন দিয়ে রাস্তা পার হওয়ার সময় ঢাকা কলেজের মাস্টার্সের ছাত্র শিপুলকে আটক করে ভ্রাম্যমাণ আদালতে নিয়ে আসে পুলিশ। পরে ৫০ টাকা জরিমানা দিয়ে ছাড়া পান তিনি। ফার্মগেট থেকে কাওরান বাজারের অফিসে যাওয়ার সময় নিয়ম ভেঙে রাস্তা পার হওয়ায় শহীদুল ইসলামকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে নিয়ে আসে পুলিশ। তিনি বলেন, অভিযান সম্পর্কে তিনি জানেন তবুও অভ্যাসবশত রাস্তা পার হতে গিয়ে পুলিশের হাতে আটক হয়েছেন। পরে ২০ টাকা জরিমানা আদায় করে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়। সৌদি আরব প্রবাসী শফিক মোল্লা গুলিস্তান থেকে কাওরান বাজার যাচ্ছিলেন। তিনি অভিযোগ করে বলেন- রাস্তার মাঝখানে বাস তাকে নামিয়ে দিলে রাস্তা পার হয়ে ডানদিকে যেতে চাইলে পুলিশ তাকে ধরে নিয়ে আসে। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতে ৫০ টাকা জরিমানা দিয়ে ছাড়া পান। আর্থিক দ- পাওয়া অনেকেই অভিযোগ করে বলেন- কাওরান বাজার ক্রসিং থেকে আন্ডারপাস দূরে হওয়ায় তারা আন্ডারপাস ব্যবহার করেন নি। আবার অনেকেই বলেছেন অভিযানের ব্যাপারে তারা জানতেন না। এ বিষয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সরোয়ার আলম বলেন, কাওরান বাজার ক্রসিং থেকে মাত্র ৫০ ফুট দূরে আন্ডারপাস আছে। হোটেল সোনারগাঁও সংলগ্ন সড়কে জেব্রা ক্রসিং আছে। পথচারীরা জেব্রা ক্রসিং ও আন্ডারপাস ব্যবহার করে নিরাপদে রাস্তা পার হতে পারেন। অভিযান সম্পর্কে প্রচারণার অভাব সম্পর্কে সরোয়ার আলম বলেন, আমি মনে করি না প্রচারণার অভাব আছে। অভিযানের খবর টিভি চ্যানেলে প্রচার এবং পত্রিকায় প্রকাশ পেয়েছে। এছাড়া, নিয়মিত মাইকিংও করা হচ্ছে। অভিযানের মাধ্যমে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ পথচারীদের ফুটওভারব্রিজ ও জেব্রা ক্রসিং ব্যবহারের তাগিদ দিলেও ফুটওভারব্রিজ, আন্ডারপাস পথচারীদের ব্যবহারের জন্য পুরোপুরি প্রস্তুত নয়। সরজমিন পরিবাগ, বাংলামোটর, কাওরান বাজার, ফার্মগেট এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, বাংলামোটর ফুটওভারব্রিজে পথচারীরা লাইন ধরে ব্রিজে উঠছেন। ফুটওভারব্রিজের সিঁড়ি সরু হওয়ায় ওঠার সময় জটলা সৃষ্টি হচ্ছে। পান্থপথ থেকে হোটেল সোনারগাঁও যেতে জেব্রা ক্রসিং ব্যবহারের কথা বলা হলেও সড়কটির একপ্রান্তে একটি সাদা দাগ ছাড়া আর কিছু নেই। কাওরান বাজার আন্ডারপাসের সিঁড়িতে কোন বাতি না থাকায় প্রবেশমুখ অন্ধকার হয়ে আছে। ভেতরে ধুলা ওড়ায় পথচারীরা নাকে রুমাল বা হাত চেপে আন্ডারপাস পার হচ্ছেন। আন্ডারপাসের সিঁড়ির বিভিন্ন স্থানে ভাঙা ও উঁচু-নিচু। কাওরান বাজারের ফুটওভারব্রিজের সিঁড়ির মুখে ‘রাস্তা পারাপারে ফুটওভারব্রিজ ব্যবহার করায় আপনাকে ধন্যবাদ’ ডিএমপি ট্রাফিক পশ্চিম বিভাগের এমন একটি ব্যানার লাগানো থাকলেও সংস্কার কাজের জন্য ফুটওভারব্রিজের এক পাশের সিঁড়ি বাঁশের মাচা দিয়ে আটকিয়ে রাখা হয়েছে। ফার্মগেটের তেজগাঁও সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন ফুটওভার ব্রিজটি ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় অনেকদিন ধরেই ব্রিজ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। ফার্মগেটের চৌরঙ্গী মার্কেট সংলগ্ন দ্বিমুখী ফুটওভারব্রিজে পথচারীদের প্রচ- ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। অভিযান উপলক্ষে ব্রিজটি হকারমুক্ত করা হলেও ফুটওভারব্রিজের কয়েক স্থানে ঢালাই উঠে গেছে। এ ব্রিজটি বেশ ঝুঁকিপূর্ণ বলে অভিযোগ করেছেন ব্যবহারকারীরা।