সোমবার, ১০ মে ২০২১, ২৭ বৈশাখ ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

দিল্লিতে মোদিকে বীরোচিত সংবর্ধনা

23852_x3

দিল্লিতে বীরোচিত সংবর্ধনা পেলেন নতুন প্রধানমন্ত্রী হতে যাওয়া নরেন্দ্র মোদি। গতকাল তিনি দিল্লি বিমানবন্দরে হাজির হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সেখানে ঢল নামে জনতার। তারা এ সময় ব্রাস ব্যান্ড, ড্রাম, ব্যাগপাইপ বাজিয়ে তার ঐতিহাসিক জয়কে বরণ করে নেয়। হাজার হাজার সমর্থক বিজেপির পতাকা নাড়িয়ে নরেন্দ্র মোদিকে জানান দেন, দিল্লি এখন তার। তার জন্য প্রস্তুত হয়ে আছে সব। লোকসভা নির্বাচনে ভূমিধস বিজয়ের পর শুক্রবার রাতে তিনি ভারতবাসীকে ধন্যবাদ জানিয়ে বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেন, ভাই ও বোনেরা আপনারা আমার প্রতি আস্থা প্রকাশ করেছেন। আমার আস্থা রয়েছে আপনাদের প্রতি। এ দেশবাসী তাদের রায় দিয়েছেন। এ রায় নিয়ে আমরা ভারতের ১২৩ কোটি মানুষের স্বপ্নকে পূরণ করবো। ওদিকে আগামী মঙ্গলবারের আগে তিনি প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেবেন না বলে আভাস মিলেছে। এক রিপোর্টে বলা হয়েছে, নরেন্দ্র মোদিকে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচিত করতে ২০শে মে বৈঠকে বসবে বিজেপির পার্লামেন্টারি পার্টি। যে কাউকে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত করতে হলে আগে এ প্রক্রিয়ায় দল থেকে নির্বাচিত হতে হয়। এটা একটি আনুষ্ঠানিকতা মাত্র। ২০শে মে’র বৈঠকে সভাপতিত্ব করবেন বিজেপি প্রধান রাজনাথ সিং। উপস্থিত থাকবেন নরেন্দ্র মোদি, এল কে আদভানী, মুরলি মনোহর যোশি, সুষমা স্বরাজ ও শীর্ষ নেতারা। মিডিয়ার কাছে সংক্ষিপ্ত এক ভাষণে বলেন, ওই বৈঠকে যোগ দিতে এনডিএ জোটের অন্য শরিকদেরও আমন্ত্রণ জানানো হবে। নরেন্দ্র মোদি কবে শপথ নেবেন তা নিয়ে মিডিয়ায় নানা প্রচারণা। এ সম্পর্কে রাজনাথ বলেন, নরেন্দ্র মোদি কবে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেবেন তা নির্ধারণ করা হয়নি। এটা স্থির হবে দলের পার্লামেন্টারি পার্টির মিটিংয়ে। ওদিকে বারানসিতেও মোদিকে সংবর্ধনা দিয়েছে জনতা। হিন্দুদের কাছে পবিত্র এ নগরীতে মোদি পৌঁছামাত্র চারদিকে আনন্দের বন্যা বয়ে যায়। মোদি সেখানে রীতি অনুযায়ী এক প্রার্থনা সভায় অংশ নেন।