বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ৩০ বৈশাখ ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

থাইল্যান্ডে সরকারি দল নিষিদ্ধের আবেদন

2_65339
থাইল্যান্ডের বিরোধী দল ডেমোক্রেটিক পার্টি ২ ফেব্র“য়ারির নির্বাচন বাতিল ও ক্ষমতাসীন দলের নিষিদ্ধের আবেদন জানাতে আদালতের শরণাপন্ন হচ্ছে। এতে দেশটিতে চলমান রাজনৈতিক অচলাবস্থা আরও গভীর হতে পারে বলে আশংকা করা হচ্ছে। থাইল্যান্ডে ব্যাপক উত্তেজনার মধ্যে রোববার সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ব্যাংককে সরকার সমর্থক ও বিরোধী বিক্ষোভকারীদের মধ্যে বন্দুকযুদ্ধের প্রেক্ষাপটে দেশটিতে আরও সহিংসতার আশংকার মধ্যে ব্যাপক অর্থে শান্তিপূর্ণভাবে এ নির্বাচন হয়েছে।দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভকারীরা ভোট গ্রহণে বাধা দেয়। বিক্ষোভকারীদের বাধার কারণে কয়েকশ’ কেন্দ্রে ভোট নেয়াই সম্ভব হয়নি কিংবা ভোট বন্ধ করে দিতে কর্তৃপক্ষ বাধ্য হয়। প্রধানমন্ত্রী ইংলাক সরকারের পদত্যাগ এবং একটি অনির্বাচিত ‘পিপলস কাউন্সিল’ গঠনের দাবিতে প্রায় তিন মাস ধরে রাজধানীতে বিক্ষোভ করে আসছে সরকার বিরোধীরা। এ প্রেক্ষাপটে ক্রমবর্ধমান রাজনৈতিক উত্তেজনা প্রশমনে মধ্যবর্তী নির্বাচনের ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী। প্রধান বিরোধী দল ডেমোক্রেটিক পার্টিসহ বিরোধীরা এ নির্বাচন বর্জনের ডাক দিয়েছে। তারা ভোট কেন্দ্র পাহারা দেয়ারও অঙ্গীকার করে। বিক্ষোভকারীদের দাবি, পরবর্তী সরকারের ক্ষমতার অপব্যবহার রোধ এবং সত্যিকারের ভোট হতে হলে প্রথমে সংস্কার প্রয়োজন। ২ ফেব্র“য়ারির নির্বাচনে যারা বিভিন্ন কারণে ভোট দিতে পারবেন না তাদের জন্য রোববার ২৬ জানুয়ারি আগাম ভোট নেয়া হয়। তবে বিক্ষোভকারীরা ভোট কেন্দ্রের বাইরে অবস্থান নেয়ায় ভোট গ্রহণ ব্যাপকভাবে বাধাগ্রস্ত হয়।এদিকে, বৃহস্পতিবার ব্যাংককে লুমপিনি মঞ্চে বিক্ষোভকারীদের উদ্দেশ্যে দেয় এক বক্তৃতায় সরকারবিরোধী আন্দোলনের নেতা সুথেপ থাগসুবান বলেন, আমরা চাই, থাই সরকারি কর্মকর্তারা তাদের অফিসের কাজকর্ম বন্ধ করে সরকারপতনর আন্দোলনের সঙ্গে একত্মতা প্রকাশ করুন। আমরা নিশ্চিত করতে চাই যে আমাদের “ব্যাংকক বন্ধ” আন্দোলন কোনাভাবেই অর্থহীন করা যাবে না।অন্যদিকে, থাই সেনাপ্রধান জেনারেল প্রায়ুথ চ্যান ওচা বলেছেন তাকে অভ্যুত্থান ঘটানোর জন্য কেউ বলেনি। এ ব্যাপারে তিনি কারো মতামতও গ্রহণ করবেন না বরং সাংবিধানিক আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থাকবেন। জ্যেষ্ঠ সেনা কর্মকর্তাদের অনেকেই ভেতরে ভেতরে অভ্যুত্থান ঘটানোর জন্য চাপ-বলয় সৃষ্টি করছেন। কিন্তু তিনি সেসবে কর্ণপাত করছেন না। তিনি আরও বলেন- ‘আমি একজন পূর্ণবয়স্ক মানুষ, আমাকে চাপ প্রয়োগ করে ভিন্ন পথে টলানো যাবে না।