মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

তোবার শ্রমিকদের মে জুন মাসের বেতন ৬ আগস্ট

toba-0220140803113553_129843

আগামী ৬ আগস্ট বুধবার তোবা শ্রমিকদের দুমাসের বেতন ও ওভারটাইম পরিশোধ করা হবে। রোববার বিকেলে বিজিএমইএ ভবনে নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মালিক-শ্রমিক ও সরকার এই ত্রিপক্ষীয় বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয় মে ও জুন মাসের বেতন বিজিএমএই কার্যালয়ে পরিশোধ করা হবে। বৈঠক শেষে নৌ পরিবহন মন্ত্রী জানান,শ্রমিকদের বকেয়া জুলাই মাসের বেতনও ১০ আগস্ট পরিশোধ করা হবে। এসময় শ্রম প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু এবং বিজিএমইএর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এস এম মান্নান উপস্থিত ছিলেন। এসময় বিজিএমএইর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জানান, বকেয়া বোনাসও পরিশোধ করা হবে।এদিকে ত্রিপক্ষীয় বৈঠক শেষে তোবা গ্রুপের আন্দোলনরত শ্রমিকরা সিদ্ধান্ত প্রত্যাখ্যান করে সব পাওনা এক সাথে পরিশোধের দাবি জানিয়েছে। সন্ধ্যায় বাড্ডায় আন্দোলনরত শ্রমিকরা এ ঘোষণা দেন।বকেয়া বেতন-ভাতা আদায় এবং এমডি দেলোয়ার হোসেনের জামিন বাতিল ও ফাঁসির দাবিতে রোববার সপ্তম দিনের মতো অনশন পালন করেন তোবা গ্রুপের পোশাক শ্রমিকেরা। হাইকোর্ট এলাকায় মানববন্ধন করছেন তারা। বাণিজ্য মন্ত্রী তোফায়েল আহমদ দুপুরে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের বলেছেন, দু একদিনের মধ্যেই শ্রমিকদের বকেয়া বেতন পরিশোধ করা হবে।তবে রোববার বিকেলে আন্দোলনরত শ্রমিকরা ২৪ ঘন্টার আল্টিমেটাম দিয়ে মঙ্গলবার সকাল ১১টায় বিজিএমইএ ভবন ঘেরাও কর্মসূচি ঘোষণা করে।সংবাদ সম্মেলন করে সংগ্রাম কমিটির নেতৃবৃন্দ বলেছেন, বাণিজ্যমন্ত্রীর আশ্বাসের উপর আমাদের আস্থা নেই। এর আগে শ্রম প্রতিমন্ত্রীও আশ্বাস দিয়ে রক্ষা করেননি। তারা এই মুহুর্তে বেতন ভাতা পরিশোধের দাবি জানান।এজন্য মংগলবার বিজিএমইএ ভবন ঘেরাওয়ের পর ৬ আগস্ট বুধবার দেশের সকল শিল্পাঞ্চলে শ্রমিক সমাবেশের কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।
রোববার বেলা ১১টার দিকে রাজধানীর হাইকোর্ট সংলগ্ন জাতীয় ঈদগাঁ ময়দানের সামনে গার্মেন্টস শ্রমিক সংগ্রাম পরিষদ নামক একটি সংগঠনের ব্যানারে তোবার শ্রমিকরা মানববন্ধন করেন। এসময় জাতীয় পোশাক শ্রমিক ইউনিয়ন নেতা সাখাওয়াত হোসেন, শ্রমজীবী সংঘের সভাপতি আবদুল আলী, গার্মেন্টস শ্রমিক সংহতির সমন্বয়ক তাসলিমা আক্তার লিমা, বাংলাদেশ টেক্সটাইল গার্মেন্টস ফেডারেশনের নেতা মাহমুদুর রহমান ইসমাইল, সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সুব্রত চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।তিন মাসের বকেয়া বেতন ও বোনাসের দাবিতে ঈদের আগের দিন থেকে টানা সাতদিন ধরে তোবা গ্রুপের পাঁচটি কারখানার শ্রমিকরা অনশন চালিয়ে যাচ্ছেন। ঈদের দিনও তারা অনশন করেন। অনশন চলাকালে বিভিন্ন কারখানার শ্রমিক ও বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠন তাদের আন্দোলনের প্রতি সংহতি প্রকাশ করে সেখানে অবস্থান করছে। রোববার পর্যন্ত ৯৭ জন শ্রমিক অসুস্থ হয়েছেন বলে জানিয়েছেন আন্দোলনে অংশগ্রহণকারীদের জন্য কর্মরত চিকিৎসক দল। তাঁদের মধ্যে ১৪ জন বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিত্সাধীন। রোববার পাঁচজন শ্রমিককে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।প্রসঙ্গত, ২০১২ সালের ২৪ নভেম্বর সন্ধ্যায় তোবা গ্রুপের তাজরীন ফ্যাশনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ১১২ জন শ্রমিক আগুনে পুড়ে মারা যান এবং আহত হন আরো দুইশতাধিক শ্রমিক।