শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ৪ আষাঢ় ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

জঙ্গি তৎপরতা নিয়ে ঢাকাকে সতর্ক করেছে নয়া দিল্লি

image_137113.sm6_24284
পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমানে একটি বাড়িতে বিস্ফোরিত বোমা বাংলাদেশে হামলার জন্য বানানো হচ্ছিল জানিয়ে এ বিষয়ে ঢাকাকে নয়া দিল্লি সতর্ক করেছে বলে হিন্দুস্তান টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। গত ২ অক্টোবর বর্ধমানে ওই বিস্ফোরণে নিহত দুজনই বাংলাদেশি এবং বোমা বানানোর সময় বিস্ফোরণ ঘটে বলে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়। এতে বলা হয়, নিহত দুজন ও তাদের সহযোগীরা নিষিদ্ধ সংগঠন জামায়াতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) একটি শাখার সদস্য। বিস্ফোরণে নিহত শামীম শাকিল আহমেদের স্ত্রী রুবি বিবি নিরাপত্তা বাহিনীকে জানিয়েছেন, গত তিন মাসে চার দফায় কুরিয়ারে বাংলাদেশে বোমা পাঠিয়েছেন তাঁরা। ভারতে হামলার জন্য তাঁরা বোমা বানাচ্ছিলেন না বলেও নিরাপত্তা বাহিনীকে বলেন তিনি।
এ বিষয়ে বাংলাদেশের জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থা (এনএসআই) ও ডিজিএফআইকে ভারতীয় শীর্ষ গোয়েন্দা কর্মকর্তারা অবহিত করেছেন বলে হিন্দুস্তান টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়। প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, ওই বিস্ফোরণের ঘটনায় নিহত দুজন ও তাদের সহযোগীরা বাংলাদেশের নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন জামায়াতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) সদস্য। এদের সঙ্গে মৌলবাদী দল জামায়াতে ইসলামীর ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে। প্রতিবেদন আরও উল্লেখ করা হয়, ভারতীয় শীর্ষ গোয়েন্দা কর্মকর্তারা এরইমধ্যে এই তথ্য বাংলাদেশের জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থা এনএসআই ও সামরিক গোয়েন্দা সংস্থা ডিজিএফআইকে জানিয়েছে। বিস্ফোরণের ওই ঘটনার সূত্র ধরে গত বৃহস্পতিবার আমিনা বিবি নামে আরেক নারীকেও আটক করে ভারতীয় গোয়েন্দারা।এদিকে ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থাগুলো বলছে, স্থানীয় পুলিশের সাহায্য নিয়ে গত রবিবার পশ্চিমবঙ্গের তিনটি স্থানে তারা জেএমবি ক্যাডারদের ধরতে অভিযান চালায়। তবে এই অভিযানে আমিনা বিবি ও রুমি বিবি ছাড়া আর কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে কিনা তা জানানো হয়নি। যদিও পুলিশ মাদ্রাসাভিত্তিক এক ধর্মীয় নেতাকে খুঁজছে বলে দাবি করেছে একটি সূত্র। এর আগে বাংলাদেশ সরকারবিরোধী কর্মকাণ্ডে জড়িত তিন জেএমবি সদস্যের নাম ভারতকে দেয়। এরা বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গে অবস্থান করছে বলে জানা‌‌‌নো হয়।
ভারতের পুলিশ ও নিরাপত্তা সংন্থাগুলো বর্তমানে নিহত শোভন মণ্ডলের স্ত্রী আকিনা, বাড়িটির মালিক হাসান চৌধুরী, আমিনা ও তার বাবাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। এরমধ্যে মুর্শিদাবাদে বসবাসকারী অামিনার বাবা গত গ্রাম পঞ্চায়েত নির্বাচনে ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী ছিলেন। ভারতীয় গোয়েন্দা সূত্র জানায়, ২ নভেম্বর যে বাড়িটিতে এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে সেখান থেকে পুলিশ ২৫টি হ্যান্ড গ্রেনেড, ১০টির মতো ব্যবহার উপযোগী বিস্ফোরক ডিভাইস (আইইডি), বিপুল পরিমাণ অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট, আয়রন অক্সাইড, হাইড্রোজেন পারক্সাইড এবং বোমা তৈরির অন্যান্য সরঞ্জামসহ লেদ মেশিন উদ্ধার করা হয়। এই লেদ মেশিন দিয়ে জঙ্গিরা পিস্তল তৈরি করতো। জিজ্ঞাসাবাদে রুমি বিবি জানান, বোমা তৈরির এসব সরঞ্জাম তারা কোলকাতা থেকে কেনেন।