রবিবার, ১৩ জুন ২০২১, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

গুগল আপাতত ঢাকায় অফিস চালু করছে না

36418_f1

বিশ্ববিখ্যাত সার্চ ইঞ্জিন গুগল ঢাকায় অফিস স্থাপনের কাজ প্রায় সম্পন্ন করেছিল। কিন্তু হঠাৎ তারা এর কার্যক্রম স্থগিত করে দিয়েছে। কি কারণে স্থগিত করেছে তা নিশ্চিত করে কেউ বলছেন না। তবে বাংলাদেশ সরকার সম্প্রতি যে সম্প্রচার নীতিমালা প্রণয়ন করেছেন তারই প্রেক্ষাপটে গুগল এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে- এমন খবর চাউর হয়ে আছে সংশ্লিষ্ট নানা মহলে। উল্লেখ্য, এ নীতিমালার খসড়ার ব্যাপারে গুগলের কর্মকর্তারা আগেই অবহিত হন। বিষয়টি পরীক্ষা করেই তারা চলতি বছর ঢাকায় অফিস স্থাপনের পরিকল্পনা স্থগিত করে দিয়েছেন। বাংলাদেশের গণমাধ্যম ব্যক্তিরা সম্প্রচার নীতিমালার সমালোচনা করছেন। তারা বলছেন, গণমাধ্যমকে নিয়ন্ত্রণ করার জন্যই এ নীতিমালা প্রণয়ন করা হয়েছে। নীতিমালা বাতিলের জন্য সাংবাদিক ও বিরোধী রাজনীতিবিদেরা দাবি করে আসছেন। অবশ্য সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, গণমাধ্যম নিয়ন্ত্রণের জন্য এ নীতিমালা প্রণয়ন করা হয়নি। বরং এ নীতিমালা গণমাধ্যম বিকাশে সহায়ক হবে। সম্প্রচার নীতিমালা নিয়ে সরকার যখন সমালোচনার মুখে রয়েছে তখন অনলাইন নীতিমালা প্রণয়নেও কাজ চলছে। শিগগিরই এ ব্যাপারে নীতিমালা প্রণয়ন করা হবে। এতে অনলাইন সংবাদমাধ্যমগুলোর ওপর নিয়ন্ত্রণ আরোপ করা হতে পারে। এর আগে বাংলাদেশে দীর্ঘদিন সরকারি সিদ্ধান্তে ইউটিউব বন্ধ ছিল। এ বিষয়টিও গুগলের শীর্ষ কর্মকর্তাদের বিবেচনায় রয়েছে। বাংলাদেশে প্রায় ১০ লাখ লোক ইউটিউব ব্যবহার করে থাকেন। এ অঞ্চলে ভারত, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড ও সিঙ্গাপুরে গুগলের অফিস রয়েছে। তবে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কায় গুগলের কোন অফিস নেই। ২০১২ সালে দুই বছরের মধ্যে বাংলাদেশে গুগলের অফিস স্থাপনের কথা শোনা গিয়েছিল। সে সময় গ্রামীণ ফোনের প্রধান যোগাযোগ কর্মকর্তা বাংলাদেশের নাগরিক কাজী মনিরুল কবীরকে কান্ট্রি কনসালটেন্ট হিসেবে নিয়োগ দেয় গুগল। তিনি ওই বছরের ৫ই নভেম্বর গুগলের সিঙ্গাপুর অফিসে যোগদান করেন। কিছুদিনের মধ্যে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে চলে যাচ্ছেন বলে সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে। সূত্র জানায়, বাংলাদেশে গুগলের অফিস খোলার বিষয়টি কৌশলগত বিষয়ের ওপর নির্ভরশীল। ওই কৌশলগুলো অনুকূলে না এলে সাধারণত অফিস খোলা হয় না। গুগলের নীতি হলো স্থানীয় আইন মেনে চলা। স্থানীয় আইন গুগলের স্বাধীনতা ও ব্যবসায়িক পলিসির ওপর প্রভাব ফেললে গুগল শুরু থেকে বিষয়টি ভেবে দেখে। এর আগে গুগল বাংলাদেশের প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট), ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে নিয়োগ দেয়ার জন্য পরীক্ষা নেয়। ১৯৯৬ সালে গবেষণা প্রকল্প হিসেবে ক্যালিফোর্নিয়ার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের দু’জন পিএইচডি কোর্সের ছাত্র ল্যারি পেইজ ও সের্গেই ব্রিন নতুন কৌশলে সার্চ ইঞ্জিন বানানোর কাজ শুরু করেন। গুগল প্রতিষ্ঠান মাধ্যমে তাদের প্রচেষ্টা সফলতা লাভ করে। গুগল ইনকর্পোরেটেড মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি বহুজাতিক ইন্টারনেট এবং সফটওয়ার কোম্পানি। বিশেষভাবে গুগল সার্চ ইঞ্জিন, অনলাইন বিজ্ঞাপন সেবা এবং ক্লাউড কম্পিউটিং’র জন্য তারা বিশ্বখ্যাত। প্রাথমিকভাবে তারা বিজ্ঞাপন থেকে অর্থ আয় করে থাকে। গুগলের অপ্রাতিষ্ঠানিক মূলমন্ত্র হলো-ডোন্ট বি ঈভ্‌ল্‌। গুগল প্রথম ইনকর্পোরেট হয় প্রাইভেট কোম্পানি হিসেবে ১৯৯৮ সালের ৪ঠা সেপ্টেম্বর। কোম্পানিটি অনলাইন সেবা যেমন ইমেইল সেবা, গুগল ডকস এবং বিভিন্ন সামাজিক নেটওয়ার্কিং সেবা দিয়ে থাকে।