শুক্রবার, ২৫ জুন ২০২১, ১১ আষাঢ় ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

গাজায় ইসরাইলের নতুন হামলায় নিহত ১২

3_138637

হামাসের রকেট হামলায় শিশুসহ দুই ইসরাইলি নাগরিক নিহত হওয়ার জের ধরে গাজায় নতুন করে হামলা জোরদার করেছে ইসরাইল। শনিবার মধ্যাঞ্চলের একটি বাড়িতে ইসরাইলি সেনাদের বিমান হামলায় একই পরিবারের পাঁচজনসহ ১২ জন নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে দুই শিশু ও দু’জন নারী রয়েছেন। এর আগে শুক্রবার হামাসের রকেট হামলায় শিশুসহ দুই ইসরাইলি নাগরিক নিহত হন। গাজায় ৪৭ দিন ধরে যুদ্ধাবস্থা বহাল আছে। মাঝে দু’পক্ষ বেশ কয়েকবার যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হলেও তা বেশি সময় তা টেকেনি। শনিবার ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস নতুন করে যুদ্ধবিরতির জন্য আলোচনা করতে দু’পক্ষকে আহ্বান জানান। আল জাজিরা ও এএফপি।খবরে বলা হয়, সকালের মধ্য গাজার একটি বাড়িতে বিমান হামলা চালায় ইসরাইলি সেনারা। এতে ওই পরিবারের পাঁচ সদস্য নিহত হন। গাজার দেইর আল-বালাহ এলাকায় অবস্থিত আল-আকসা হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানান, নিহতদের মধ্যে ২৮ বছর বয়সী এক ব্যক্তি, তার স্ত্রী (২৬) ও তাদের ৩ ও ৪ বছর বয়সী দুই ছেলে রয়েছে। তাদের সঙ্গে বাড়িতে থাকা ওই ব্যক্তির ৪৫ বছর বয়সী ফুপুও নিহত হন। এছাড়া নুসিরাত শরণার্থী শিবিরের কাছে আল-জাওয়াদা এলাকায় আরেকটি হামলায় আরও ৫ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। এভাবে পরবর্তী আরও হামলায় নিহতের সংখ্যা বাড়তে থাকে। গণমাধ্যমের ছবি ও ভিডিওতে ইসরাইলি বিমান হামলায় বিস্ফোরণের প্রচণ্ড শব্দ শোনা গেছে এবং ধ্বংসস্তূপ থেকে ধোঁয়া উড়তে দেখা গেছে। ইসরাইলি সেনাবাহিনী জানায়, এদিন গাজায় তারা প্রায় ২০টি বিমান হামলা চালিয়েছে। হামাসের তিনটি রকেট হামলার জবাবে তারা এ হামলা চালায় বলে দাবি করে তারা। তারা জানায়, এর আগে শুক্রবার হামাস ইসরাইলি ভূখণ্ডে প্রায় ৮০টি রকেট হামলা চালিয়েছে।ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্যানুযায়ী, এ পর্যন্ত ইসরাইলি হামলায় কমপক্ষে ২০৯২ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। ইউনিসেফের তথ্যানুযায়ী নিহত ফিলিস্তিনিদের মধ্যে ৪৬৯ জন শিশু। এদের মধ্যে ৩২০ জনের বয়স ১২ বা তার চেয়েও কম। অন্যদিকে হামাসের হামলায় প্রাণ হারিয়েছেন ৬৮ ইসরায়েলি। এদের মধ্যে ৬৪ জন সেনাসদস্য, তিনজন বেসামরিক নাগরিক ও একজন থাই কর্মী।দুই ইসরাইলি নিহত : শুক্রবার ইসরাইলের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় নেগেভ মরুভূমির কাছে রকেট হামলা চালায় হামাস। এ হামলায় চার বছর বয়সী এক শিশু হয়েছে। হামাসের সামরিক শাখা ইজ্জাদ্দিন আল-কাসসাম এ হামলা চালায়। এছাড়া ইসরাইলের বন্দরনগরী আশদোদে অপর একটি রকেট হামলার ঘটনা ঘটে। এতে আরও একজন ইসরাইলি নাগরিক নিহতসহ কয়েকজন আহত হয়েছেন। শিশু মৃত্যুর পর ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু বলেছেন, হামাসকে এর কঠিন মূল্য দিতে হবে। তিনি গাজায় হামলা আরও তীব্র করার ঘোষণা দেন।