সোমবার, ১৪ জুন ২০২১, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

খালেদা জিয়ার সমালোচনায় উত্তপ্ত সংসদ

52648_ss

 

কুমিল্লার জনসভায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার দেয়া বক্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছেন সরকারি দলের এমপিরা। সংসদে তারা বলেছেন, আওয়ামী লীগের নেতৃত্বেই মহান মুক্তিযুদ্ধ হয়েছে। আর জিয়া ছিলেন সরকারের একজন বেতনভুক্ত কর্মচারী। খালেদা জিয়া মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানেন না বলেও তারা মন্তব্য করেন। গতকাল সংসদে পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে এ আলোচনার সূত্রপাত করেন সাবেক মন্ত্রী আবুল কালাম আজাদ। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে শুরু হওয়া অধিবেশনে আলোচনায় আরও অংশ নেন সাবেক মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। আবুল কালাম আজাদ বলেন, দেশে যখন মুক্তিযুদ্ধ হয়েছে তখন তিনি (খালেদা জিয়া) পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর কাছে ছিলেন। সারা বিশ্ব জানে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধ হয়েছে। ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলন ’৭৯-এর গণ-অভ্যুত্থান ’৭০-এর নির্বাচন বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ বিজয়ী হয়েছে। এর পরেও যখন ক্ষমতা হস্তান্তর করেনি, তখন বঙ্গবন্ধু কিভাবে মুক্তিযুদ্ধ হবে, কিভাবে এ যুদ্ধ পরিচালিত হবে- এসব বিষয়ে ৭ই মার্চ রেসকোর্সের ময়দানে দিকনির্দেশনা দিয়েছিলেন। অথচ খালেদা জিয়া বলে বেড়াচ্ছেন আওয়ামী লীগ মুক্তিযুদ্ধের দল নয়। তিনি খালেদা জিয়ার উদ্দেশে বলেন, যদি আপনারা গণতন্ত্রে বিশ্বাস করেন, তাহলে আগামীতে যে নির্বাচন হবে তার জন্য জনগণের কাছে যান। তারা যদি ভোট দেন, তাহলে আপনি বিজয়ী হবেন। এরপর খালেদার বক্তব্যের তীব্র সমালোচনা করে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, খালেদা জিয়ার বক্তব্য শুনে মনে হলো যুবদল ও ছাত্রদলের কোন ক্যাডারের বক্তব্য। তার বক্তব্যে কোন সঠিক তথ্য ছিল না। এসময় মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস তুলে ধরে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধ হয়। মুক্তিযুদ্ধের সময় গঠিত সরকারের একজন বেতনভুক্ত কর্মচারী ছিলেন জিয়াউর রহমান। খালেদা এখন বলছেন আওয়ামী লীগ মুক্তিযুদ্ধের দল নয়। ক’দিন পরে হয়তো বলবেন জামায়াতে ইসলামী মুক্তিযুদ্ধের দল। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি ৯ মাস পাকিস্তানি সেনাবাহিনীদের আতিথেয়তায় ছিলেন। তাই তিনি রাজাকার, আলবদরদের মুক্তিযোদ্ধা মনে করতেই পারেন। খালেদা জিয়া বলেছেন, গত ৫ বছরে দেশে কোন উন্নয়ন হয়নি। দেশে যদি উন্নয়ন না হয় তাহলে গত ৬ বছরে যে ফ্লাইওভার ও ব্রিজ হয়েছে সেগুলো দিয়ে আপনি যাবেন না। ব্রিজের নিচে নৌকায় চলবেন।