সোমবার, ১৪ জুন ২০২১, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

এবোলা ভাইরাস প্রতিরোধে ব্যবস্থা গ্রহণে হাইকোর্টের নির্দেশ

image_142385.court_8126
এবোলা ভাইরাস প্রতিরোধে দেশের কয়েকটি হাসপাতালে বিশেষ চিকিৎসা ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট।
এ ভাইরাসের প্রয়োজনীয় ওষুধ সংগ্রহেরও নির্দেশ দেয়া হয়েছে। লাইবেরিয়া থেকে আগত বরিশালের গৌরনদী ও মাদারীপুরের কালকিনির ৬ জন এবোলা আক্রান্ত কিনা তা পরীক্ষা করার জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি নির্দেশ দিয়েছে আদালত। আগতদের পরীক্ষা করে আগামী ২ সপ্তাহের মধ্যে একটি প্রতিবেদন দাখিল করার জন্যও বলেছে আদালত।বিচারপতি মির্জা হোসেইন হায়দার ও বিচারপতি মো.আতাউর রহমান খানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের একটি ডিভিশন বেঞ্চ আজ এ আদেশ দেয়। মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) পক্ষে জনস্বার্থে দায়ের করা এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে এ আদেশ দেয় আদালত।রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মনজিল মোরশেদ এবং রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন এর্টর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও ডেপুর্টি এর্টনি জেনারেল কেএম মাসুদ রুমী।রিটে গত ১২ অক্টোবর দৈনিক কালের কণ্ঠে প্রকাশিত ‘অরক্ষিত বিমানবন্দর- ৬ লাইবেরিয়া প্রবাসী এবোলা পরীক্ষা ছাড়াই বাড়ি এলেন’ শীর্ষক প্রতিবেদনটি সংযুক্ত করায় আজ ওই ছয় জনের বিষয়ে এ আদেশ দেয়া হয়।অন্তবর্তী আদেশ ছাড়াও আদালত রুলও জারি করেছে। বিদেশ থেকে আগতদের এবোলা পরীক্ষা নিশ্চিতে যথাযথ পদক্ষেপ এবং কার্যকরি প্রতিরোধক ব্যবস্থা গ্রহণে কেন নির্দেশ দেয়া হবে না- রুলে তা জানতে চেয়েছে আদালত। আগামী ছয় সপ্তাহের মধ্যে স্বরাষ্ট্র সচিব, স্বাস্থ্য সচিব, সিভিল অ্যাভিয়েশনের চেয়ারম্যান ও পরিচালক (প্রশাসন), স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি) এবং ইমিগ্রেশন বিভাগের মহাপরিচালকে (ডিজি) রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।মনজিল মোরশেদ সাংবাদিকদের বলেন, আফ্রিকা থেকে দেশে আসা ছয়জনকে পরীক্ষা করে নিশ্চিত হতে হবে যে, তাঁদের শরীরে এবোলা ভাইরাস আছে কি না। আর তাঁদের পরীক্ষা করে দুই সপ্তাহের মধ্যে আদালতে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে। এ ছাড়া, আদালত ভাইরাসের প্রয়োজনীয় ওষুধপত্র ও যন্ত্রপাতি অতি দ্রুত সংগ্রহের নির্দেশ দিয়েছে।