সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

একই ম্যাচে চারজনের অভিষেক

original
খবরিকা ডেস্ক: টি২০-তে একসঙ্গে বাংলাদেশের চার ক্রিকেটারের অভিষেক হয়েছে। বুধবার খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তৃতীয় টি২০ ম্যাচে একসঙ্গে অভিষেক হয় আবু হায়দার রনি, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, মোহাম্মদ শহীদ ও মুক্তার আলীর। ২০০৬ সালে বাংলাদেশের টি২০-তে যাত্রার দিনে একসঙ্গে অভিষেক হয়েছিল ১১ ক্রিকেটারের। কেনিয়ার বিপক্ষে দ্বিতীয় টি২০ ম্যাচে এক সঙ্গে ছয় ক্রিকেটারের অভিষেক হয়েছিল। এরপর সবচেয়ে বেশি সংখ্যক ক্রিকেটারের অভিষেক হল এই ম্যাচে। এই চারজনের মধ্যে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আগে খেলেছেন মোহাম্মদ শহীদ। গত বছর পাকিস্তানের বিপক্ষে খুলনাতেই টেস্ট অভিষেক হয়েছিল তার। বুধবার বাংলাদেশের ৫১তম ক্রিকেটার হিসেবে টি২০-তেও অভিষেক হলো এই ডানহাতি পেসারের। এছাড়া যথাক্রমে ৫২, ৫৩ এবং ৫৪তম ক্রিটোর হিসেবে টি২০-তে অভিষেক হয়েছে বাঁহাতি পেসার আবু হায়দার রনি, ডানহাতি স্পিন অলরাউন্ডার মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত এবং ডানহাতি পেসার মুক্তার আলীর। চার ক্রিকেটারের মধ্যে মোহাম্মদ শহীদকে শুরুতে ক্যাপ পরিয়ে দেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান আকরাম খান। আবু হায়দার রনিকে অধিনায়ক মাশাফি বিন মর্তুজা, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতকে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ও মুক্তার আলীকে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান ক্যাপ পড়িয়ে দেন। এর আগে গত শুক্রবার বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে চার ম্যাচের টি২০ সিরিজের প্রথম ম্যাচে অভিষেক হয়েছিল শুভাগত হোম চৌধুরী ও কাজী নুরুল হাসান সোহানের। গত বছরের নভেম্বরে জিম্বাবুয়ে বিপক্ষে টি২০-তে অভিষেক হয়েছিল লেগ স্পিনার জুবায়ের হোসেন লিখনের। অভিষেক ম্যাচ বাদে ২০০৬ সালে কেনিয়ার বিপক্ষে একসঙ্গে অভিষিক্ত ছয় ক্রিকেটার ছিলেন অলক কাপালি, মোহাম্মদ আশরাফুল, নাজিম উদ্দিন, সৈয়দ রাসেল ও তামিম ইকবাল।

খবর: বাংলানিউজের