Friday, September 21Welcome khabarica24 Online

স্লাইড

রেমিটেন্স প্রবাহে সৌদি আরবের পর দুবাইয়ের অবস্থান

রেমিটেন্স প্রবাহে সৌদি আরবের পর দুবাইয়ের অবস্থান

কামরুল হাসান জনি : প্রবাসী বাংলাদেশীদের প্রেরিত রেমিটেন্সের দিক থেকে বর্তমানে সৌদি আরবের পর দুবাইয়ের অবস্থান। কর্মাসিয়াল কাউন্সিলের হিসেব অনুযায়ী এ বছর দুবাই থেকে বাংলাদেশে ২.৮ বিলিয়ন ইউএস ডলার রেমিটেন্স প্রেরণ করা হয়েছে। গতবছর যার পরিমাণ ছিল ২.৪ বিলিয়ন ইউএস ডলার। ভিন্ন ভিন্ন পেশায় নিয়োজিত প্রায় সাড়ে ১২ লক্ষ প্রবাসী বাংলাদেশি প্রতিনিয়ত দেশে অর্থ প্রেরণ করলেও এর সিংহ ভাগ আসে ব্যবসা-বাণিজ্য খাত থেকে। তথ্য সূত্রে জানা যায়, বর্তমানে দুবাইয়ে প্রবাসী বাংলাদেশিদের চার হাজার ছোট বড় ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এছাড়াও দেড় হাজার এলএলসি লাইন্সেসধারী প্রতিষ্ঠান এখানে ব্যবসা-বাণিজ্য করছেন। কিন্তু বিমানে জায়গা সংকুলানের কারণে দেশ থেকে পণ্য আমদানি-রপ্তানিতে জটিলতা সৃষ্টি হওয়ায় ব্যবসায়ীরা উৎসাহ হারাচ্ছে। যার কারণে লাভের গতি অতি মন্থর। তবুও ব্যবসায়ীরা নিজ উদ্যোগে ব্যবসায় সফল হচ্ছেন বলে মন্তব্য করেন দু
‘যায় শপিংয়ে এসে বলে শো করে এসেছি!’

‘যায় শপিংয়ে এসে বলে শো করে এসেছি!’

মাহমুদ মানজুর: প্রথমবারের মতো পাশের দেশ ভারতে যাচ্ছেন আঁখি আলমগীর! কথাটা বিস্মিত হওয়ার মতোই। এটা কি করে সম্ভব? যেখানে আমাদের ছোট-বড় তারকা থেকে শুরু করে আমজনতারা এখন হাঁচি-কাশি দিতে হলেও ভারতে ভোঁ দৌড় দেন যখন-তখন। তার ওপর ইদানীং চলতি প্রজন্মের কণ্ঠশিল্পীরা তো কলকাতায় আসা-যাওয়া করছেন সপ্তাহান্তে। অনেকটা ঢাকা থেকে গ্রামের বাড়ি যাওয়ার মতোই দাঁড়িয়েছে বিষয়টা। কেউ সেখান থেকে অ্যালবাম বের করছেন, কেউ গাঁটের পয়সা খরচ করে কলকাতার মনোরম (!) লোকেশনে মিউজিক ভিডিও বানাচ্ছেন, আবার কেউবা কলকাতার শিল্পীদের সঙ্গে দু-একটা গান করে-ছবি তুলে ফেসবুকে এ আর রাহমান কিংবা সনু নিগম-শ্রেয়া ঘোষালের ফিল নিচ্ছেন। আফসোসের বিষয় হচ্ছে, চলতি সময়ের সংগীত শিল্পীদের কথায়-কাজে এই কলকাতা প্রীতির পুরোটাই একপক্ষ। ঠোটকাটা আঁখি এ প্রসঙ্গে বলেন, ওরা আমাদের গান শুনতে পায় না। কারণ, শোনার মতো কোন স্বাভাবিক অপশন নেই। আমাদের টিভি চ্য
ওডিআইতে সুযোগ চান মমিনুল

ওডিআইতে সুযোগ চান মমিনুল

বিশেষ প্রতিবেদক : ম্যান অব দ্য ম্যাচ আর সিরিজের পুরস্কার হাতে নিয়ে হাসি মুখে ফটো সেশন করা মমিনুলকে দেখে একবারও মনে হয়নি তিনি অসুস্থ। অবশ্য মিরপুর টেস্টের ৪র্থ দিনে সেঞ্চুরি করেছিলেন জ্বর নিয়ে। সেই জ্বরটা যে এতটা ভোগাচ্ছে তাকে সেটা বোঝা গেল গতকাল মমিনুলের সঙ্গে কথা বলে। বাইরে ঝির ঝির বৃষ্টি আর আগে থেকেই বলা ছিল শনিবার অনুশীলন নেই। ক্রিকেটাররা হোটেলে অলস সময় কাটাচ্ছেন। কিন্তু মমিনুল ব্যস্ত নিজেকে ওডিআই সিরিজের জন্য ফিট করতে। বলেন, ‘খুবই অসুস্থ আমি। অ্যাপোল হাসপাতালে আজ রক্ত পরীক্ষা করতে যাচ্ছি।’ তাহলে কি টেস্টে সিরিজের সেরা ব্যাটসম্যানটিকে বাংলাদেশ দল ওডিআই সিরিজে মিস করবে? জবাবে মমিনুল বলেন, ‘বুঝতে পারছি না। আমি তো আশা করছি ওডিআই খেলব। সেভাবেই চেষ্টা চলছে। আমার সঙ্গে ড. দেবাশীষ চৌধুরী আছেন।’ চট্টগ্রামে ১৮১, ২২ আর মিরপুরে ৪৭ আর অপরাজিত ১২৬ রানের ইনিংস খেলা মমিনুল এখন দেশের ক্রিকেটের
চট্টগ্রামে জামায়াত নেতা আটক : ব্যাপক ককটেল বিস্ফোরণ

চট্টগ্রামে জামায়াত নেতা আটক : ব্যাপক ককটেল বিস্ফোরণ

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম মহানগরীর হালিশহর থানা জামায়াতের সেক্রেটারি ফখরে জাহান সিরাজীকে আটক করেছে পুলিশ। শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে নগরীর হালিশহর বি-ব্লক এলাকা থেকে হালিশহর থানা পুলিশ তাকে আটক করে। এদিকে ঘটনার পর রাত সাড়ে ৮টার দিকে নগরীর জামালখান, আন্দরকিল্লা, স্টেশন রোড দেওয়ানবাজার পাহাড়তলীর অলঙ্কার এলাকায় ব্যাপক ককটেল বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। এ সময় এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়লে যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায়। হালিশহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহজাহান কবীর জানান, সন্ধ্যায় হালিশহর বি-ব্লক এলাকা থেকে জামায়াতে সেক্রেটারিকে ধরে আনা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে। আমরা যাচাই-বাচাই করে দেখছি। নগর জামায়াতের প্রচার সম্পাদক মোহাম্মদ উল্লাহ জানান, সন্ধ্যায় মাগরিবের নামাজ পড়ে মসজিদ থেকে বের হওয়ার সময় পুলিশ কোন কারণ ছাড়াই সেক্রেটারি সিরাজীকে ধরে নিয়ে গেছে। তার বিরুদ্ধে থানায় কোনো মামলা নেই।
হরতাল প্রত্যাহারের অনুরোধ প্রত্যাখ্যান খালেদার

হরতাল প্রত্যাহারের অনুরোধ প্রত্যাখ্যান খালেদার

ঢাকা : হরতাল প্রত্যাহার করে আলোচনা বসতে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া প্রস্তাবকে প্রত্যাখ্যান করে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, নির্দলীয় সরকারের দাবি  গণদাবিতে পরিণত হয়েছে । এর প্রতি যদি আপনি নীতিগতভাবে সম্মত হন তাতে করে হরতাল অবরোধ তুলে দিয়ে আলোচনায় বসতে রাজী আছি। চেয়ারপারসনের প্রেস সচিব জানান, কর্মসূচি প্রত্যাহার প্রসঙ্গে খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রীকে বলেন ,অনেক দেরি করে ফেলেছেন, সময় মত ফোন করলে ভাবা যেত। তাই হরতাল বহাল থাকবে। হরতাল কর্মসুচি শেষ হলে যেকোনো সময় আলোচনার প্রস্তাব দিলে আলোচনার জন্য প্রস্তত আছি। প্রধানমন্ত্রী হরতাল স্থগিত করে দিয়ে আলোচনায় বসতে চাইলে খালেদা জিয়া জনান, এটি কেবল বিএনপির নয় ১৮ দলের পূর্বঘোষিত কর্মসুচি। তাছাড়া আপনার পুলিশ বাহিনী যেভাবে ১৮ দলীয় জোটের নেতাকর্মীদের তারা করে যাচ্ছেন। এই মূহুর্তে  ১৮ দলের সবাইকে এক সঙ্গে কাজ করার সুযোগ নেই। কর্মসূচি প্রত্যা
জনগণ হাসিনার সরকারকে ৩ তালাক দিয়েছে : নোমান

জনগণ হাসিনার সরকারকে ৩ তালাক দিয়েছে : নোমান

চট্টগ্রাম : বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান বলেন, হাসিনা সরকারের আর ক্ষমতায় থাকার অধিকার নেই। তাদেরকে এদেশের মানুষ তিন তালাক দিয়েছে। তাই তালাক দেওয়া সরকারের সঙ্গে জনগণ আর কোনো সংসার করতে পারে না। শনিবার বিকালে নগরীর নাসিমন ভবনস্থ বিএনপির নহানগর কার্যালয়ে হরতালের সমর্থনে বিক্ষোভ মিছিল পূর্ব সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। রাজপথে অবস্থান নিয়ে তিন দিনের হরতাল সফল করার আহ্বান জানিয়ে নোমান বলেন, এখন ফাইনাল পরীক্ষা হচ্ছে এ সরকারকে হঠিয়ে সে পরীক্ষায় আমাদের উর্ত্তীণ হতে হবে। আমাদের গণতন্ত্র, ভোটাধিকার ও রাজনৈতিক স্বাধীনতা এখন বিপন্ন। মেয়াদ শেষ হওয়ার পরও আওয়ামী লীগ অবৈধভাবে রাষ্ট্র পরিচালনা করছে। শেখ হাসিনা ক্ষমতাকে কুক্ষিগত করার জন্য নিজেদের অধীনে নীল নকশার নির্বাচন অনুষ্ঠানের অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে। সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সাবেক মন্ত্রী মীর মোহাম্ম
খালেদাকে প্রধানমন্ত্রীর ফোন, আমন্ত্রন জানালেন গণভবনে

খালেদাকে প্রধানমন্ত্রীর ফোন, আমন্ত্রন জানালেন গণভবনে

অনলাইন ডেস্ক : অবশেষে শত জল্পনা কল্পনা শেষে বিরোধীদলীয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে ফোন দিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এসময় প্রধানমন্ত্রী ফোনালাপে বেগম খালেদাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।ফোনালাপে প্রধানমন্ত্রী হরতাল প্রত্যাহারের আহ্বান করেন। এসময় তিনি বেগম খালেদা জিয়াকে সংলাপের জন্য আগামী সোমবার ২৮ অক্টোবর গণভবনে আমন্ত্রন জানান। আজ সন্ধায় ৬.২৫ মিনিটে বহুল প্রত্যাশিত ফোনলাপ হয় দুই নেত্রীর মাঝে।
মিরসরাইয়ের শতবর্ষী ‘মহুয়া’ নিয়ে যত কথা

মিরসরাইয়ের শতবর্ষী ‘মহুয়া’ নিয়ে যত কথা

মিঠানালায় দু’শ বছরের পুরোনো বিরল প্রজাতির ফলসহ মহুয়া গাছ এনায়েত হোসেন মিঠু মিরসরাই উপজেলার মিঠানালা রাম দয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ের পুকুর পাড়ে প্রায় দু’শ বছরের একটি গাছ। এটি দাঁড়িয়ে আছে কালের সাক্ষী হয়ে। বছরের পর বছর এ গাছ নিয়ে এলাকার মানুষের কৌতুহলের অন- নেই। স'ানীয়দের দেওয়া ‘হানজ্‌ ফল’ নামেই এটি পরিচিত। এ প্রতিবেদক ২০১২ সালের জুন (বাংলা আষাঢ়) মাস থেকে চলতিবছর পর্যন- বিভিন্ন ঋতুতে গাছটির আচরণ, প্রাকৃতিক বিবর্তন, ফুল, ফল এবং বীজের তথ্য ও ছবি সংগ্রহ করে ব্যাপক পর্যবেক্ষণের পর বিশেষজ্ঞদের মতামতের ভিত্তিতে প্রতিবেদনটি তৈরি করেছে। বের করা সম্ভব হয়েছে এটির প্রকৃত নাম, গুনাগুন এবং আদি-অন-  রহস্য।জানা গেছে, নন্দ কেরানী নামে এক ব্যবসায়ী  সখের বসে নিজেদের পুকুর পাড়ে এ গাছটি লাগিয়েছিলেন। এটি আনা হয়েছিল মায়ানমারের কোন এক শহর থেকে। স'ানীয় লোকজনের কাছে গাছটির প্রাকৃতিক আচরণ রহস্যময়। তাদের ধারণামত