বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৮ আশ্বিন ১৪২৭খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

সাহিত্য-সংগঠন

একান্তে :: এলিজা খাতুন

একান্তে :: এলিজা খাতুন

আমিরাত সংস্করণ, কবিতা ও গল্প, খবরিকা আর্কাইভ, খবরিকাকাগজ, বিনোদন, মুক্তাঙ্গন, সাহিত্য-সংগঠন, স্বজন, স্লাইড
মেঘমুক্ত রাত এলেই জ্যোৎস্না দেখতে বেরিয়ে পড়া মানুষেরা রূপসজ্জা শুরু করে দিন থাকতেই চাঁদের আলোর নিচে ওরা হয়ে ওঠে এক একটি অন্ধকার ভাসে নিজ নিজ আঁধারে এদিকে আমি অসজ্জিত অন্তরে জানালার পাশে মূলত সাজের মধ্যে প্রিয় ছিল কাজল বাড়ির উঠোনে সবজিবিহীন শূন্য মাচা বা শূন্য গোয়ালের মতো অতল শূন্যতায় পূর্ণ হৃদয় এখন কাজল বলতে- অন্ধকার ব্যতীত আর কিছু বুঝিনা বৃষ্টি ভালোবেসে বীজ বোনার স্বপ্ন সাজাই মধ্যরাত থেকে আকাশে দারুণ মেঘ ! নড়বড়ে চালের নিচে ঝড়ের উদ্বেগ যদি রৌদ্রে যাবার নিমন্ত্রণ পাই কোনো ভোরে নির্বাসিত হৃদয় ফিরে তাকাতেও পারে- পাথর-সময়ে চাপা পড়া নিজ অবয়বে অথবা রোদ লাগা একান্ত ছায়ায় । ।...
একান্তে :: এলিজা খাতুন

একান্তে :: এলিজা খাতুন

কবিতা ও গল্প, খবরিকা আর্কাইভ, গ্যালারি, বিনোদন, মুক্তাঙ্গন, সাহিত্য-সংগঠন, স্বজন, স্লাইড
মেঘমুক্ত রাত এলেই জ্যোৎস্না দেখতে বেরিয়ে পড়া মানুষেরা রূপসজ্জা শুরু করে দিন থাকতেই চাঁদের আলোর নিচে ওরা হয়ে ওঠে এক একটি অন্ধকার ভাসে নিজ নিজ আঁধারে এদিকে আমি অসজ্জিত অন্তরে জানালার পাশে মূলত সাজের মধ্যে প্রিয় ছিল কাজল বাড়ির উঠোনে সবজিবিহীন শূন্য মাচা বা শূন্য গোয়ালের মতো অতল শূন্যতায় পূর্ণ হৃদয় এখন কাজল বলতে- অন্ধকার ব্যতীত আর কিছু বুঝিনা বৃষ্টি ভালোবেসে বীজ বোনার স্বপ্ন সাজাই মধ্যরাত থেকে আকাশে দারুণ মেঘ ! নড়বড়ে চালের নিচে ঝড়ের উদ্বেগ যদি রৌদ্রে যাবার নিমন্ত্রণ পাই কোনো ভোরে নির্বাসিত হৃদয় ফিরে তাকাতেও পারে- পাথর-সময়ে চাপা পড়া নিজ অবয়বে অথবা রোদ লাগা একান্ত ছায়ায় । ।...
উর্দ্ধপানে  :: মা হ বু ব প লা শ

উর্দ্ধপানে :: মা হ বু ব প লা শ

আমিরাত সংস্করণ, কবিতা ও গল্প, খবরিকা আর্কাইভ, গ্যালারি, জাতীয়, প্রথম পাতা, বিনোদন, বিশেষখবর, মুক্তাঙ্গন, সাহিত্য-সংগঠন, স্বজন, স্লাইড
অশ্বখুরের বাজনা বাজছিল মস্তিস্কে ঘোড়ার লাগাম কখনো রাখাল বালকের হাতে বাঞ্চনীয় নয় ! এটুকুন বোঝার আগেই রক্তিম নীলিমায় অস্তমিত সূর্যের সাথে সাথে আমার সমস্ত সাম্রাজ্য আজ ঘোর অমানিশায়। তন্দ্রা থেকে জেগে উঠে দেখি- আমি আদি, আমি অন্ত। চোখ মেলে রোদের ঝলকানিতে দেখি জ্বলজ্বল করা শিলা রাশির উপর নোনাজলের ছলাৎ ছলাতে খেলছে অষ্টাদশি। ঢেউয়ের পর ঢেউ আচড়ে পড়ছে যুগল দেহে যেন পরিশোধিত হচ্ছে ওদের অতিত আর আগামী। অদূরে ঝাউতলে উর্দ্ধপানে বসে আমি কতোজনের আগমনী আর বিদায় দেখি। স্বপ্নবাজ আমি, বাস্তবে শূণ্য রাশি রাশি।...
খুব বেশি কিছু চাইনি  : সোমা মুৎসুদ্দী

খুব বেশি কিছু চাইনি : সোমা মুৎসুদ্দী

কবিতা ও গল্প, খবরিকা আর্কাইভ, গ্যালারি, বিনোদন, মুক্তাঙ্গন, সাহিত্য-সংগঠন, স্বজন, স্লাইড
  তোমার কাছে খুব বেশি কিছু চাইনিতো পুকুর পাড়ে খুনসুটি ময় একটি পূর্ণিমা রাতই তো তুমি এনে দিলে প্রাচীণ ভারতের শিল্পকলার কারুকাজ ময় একজোড়া রূপোর বালা এরপর চলে গেলে দিল্লি আমি কি তবে রুপোর মাঝখানে ফাঁকা গোল বৃত্তটাকে পূর্ণিমার চাঁদ ভেবে নেবো তোমার আসার সে আর কতো বাকি মাঝখানে কিছু সময় হারিয়ে যায় মূল্যবান সোনার আংটির মতো তুমি ছাড়া খোঁপায় গোঁজা হয়না রুপোর কাঁটা অনেকদিন ছাদেও উঠিনা কাপড় মেলে দিতে নির্মলাই সব সেরে নেয়, আর বলে আমি দিয়ে আসি বৌ দিদি তুমি তো জানো, তুমি আসলে সব হবে সন্দেশ বানানো, খোঁপায় কাঁটা গোজা ছাদে বসে বা পুকুর পাড়ে বসে পূর্ণিমার চাঁদ দেখা লাল, সাদা শাড়িতে নিজেকে মোড়ানো কানে রুপোর ঝুমকা, হাতে বালা পায়ে, রুপোর নূপুরের ছন্দে রিনিক ঝিনিক শব্দ সব হবে সব ।...
মন খারাপের জীবন্ত কবর : পারভীন লিয়া

মন খারাপের জীবন্ত কবর : পারভীন লিয়া

আমিরাত সংস্করণ, কবিতা ও গল্প, খবরিকা আর্কাইভ, জনপদ, জাতীয়, মুক্তাঙ্গন, সাহিত্য-সংগঠন, স্বজন, স্লাইড
মন খারাপের দরজাটা আজ তালাবন্ধ চাবি নিয়ে উড়ে গেছে গাঢ় রঙের গাংচিল, তোমার মুখের প্রশারিত পুস্পিত ছবি আঁকে- তবুও বিভৎস অন্ধকারের একটি স্বচ্ছ তুলি। সুগন্ধি মাখা শরীর বাতাসে খেলে দোলে একা আবদ্ধ জেলখানায় চিন্তা শক্তির মগজে রক্ত, শিকলে বন্দী দিশেহারা স্বপ্ন স্নিগ্ধ পৃথিবী ভাজে- ডানা ভেঙে পরে থাকে নিথর রক্তাক্ত পাখি। চলে যাওয়ার পথে বিষন্নতার সু-দীর্ঘ নিঃশ্বাস তোমার বিদায় মনে করিয়ে দেয় বিবেকবান আত্মা, পরন্ত বিকেলে দূর থেকে দেখি ছিন্ন ভীন্ন স্মৃতি কেউ কথা রাখে না, কিংবা রাখতে পারেনা-স্বভাবে। নিশ্চিহৃ হয়ে যাক দুঃখ কষ্টের সব যন্ত্রণার রাত অন্ধ হয়ে যাক সব অসভ্য প্রতারণার লম্পট চোখ, ভালবাসার হাত ধরে বন্ধ হয়ে যাক ব্যথার দরজা- আড়ষ্ট চোখে অশ্রু নেমে যাক- থেমে যাক দীর্ঘ পথ। তুমি ফিরবে একদিন, সেদিন বুঝি আসবে না আর স্বপ্ন ভাঙনের ধর্ষণ দুস্বপ্নের অঙ্গীকার করে নিঃশ্বব্দ, আলিঙ্গিত চ...
মীরসরাইয়ে ৩য় বারের মত পরিচালনা কমিটির সভাপতি মোস্তফা মানিক

মীরসরাইয়ে ৩য় বারের মত পরিচালনা কমিটির সভাপতি মোস্তফা মানিক

খবরিকা আর্কাইভ, গ্যালারি, জনপদ, মীরসরাই, সংবাদ শিরোনাম, সারা-দেশ, সাহিত্য-সংগঠন, স্বজন, স্লাইড
জিয়াউর রহমান জিতু : মীরসরাই উপজেলার ঐতিহ্যবাহী আবুরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতি হিসেবে পূন: মনোনীত হয়েছেন উত্তর জেলা আওয়ামী যুবলীগের সহ সভাপতি মোস্তফা মানিক। এ নিয়ে পর পর ৩য় বারের মত সভাপতি মনোনীত হয়েছেন তিনি। ২৭ জুলাই চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ড বিদ্যালয় চট্টগ্রাম উপজেলা বিদ্যালয়ের এডহক কমিটি অনুমোদন নিশ্চিত করেছেন। চার সদস্য বিশিষ্ট কমিটির পদাধিকার হিসেবে সদস্য সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল্লাহ খান, শিক্ষক প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন সুনীল চন্দ্র নাথ ও অভিভাবক প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন কামরুল ইসলাম হুমায়ুন। চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ড কর্তৃক ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কর্তৃক মনোনীত ম্যানেজিং কমিটির সকল কর্মকান্ড পরিচালনা করবেন উক্ত কমিটির দায়িত্ব প্রাপ্ত সভাপতি ও প্রতিনিধিগন। সভাপতি মোস্তফা মানিক বলেন, আমরা সর্বাত্বক চেষ্টা...
প্রশ্নের মুখে উৎসবের দিনগুলি : স্বর্ণালী দত্ত

প্রশ্নের মুখে উৎসবের দিনগুলি : স্বর্ণালী দত্ত

আমিরাত সংস্করণ, কবিতা ও গল্প, খবরিকা আর্কাইভ, খবরিকাকাগজ, গ্যালারি, জনপদ, জাতীয়, বিজ্ঞান-প্রযুক্তি, বিশেষখবর, মুক্তাঙ্গন, সারা-দেশ, সাহিত্য-সংগঠন, স্বজন, স্লাইড
সারা বিশ্ব যখন থমকে গেছে, যখন প্রাণ ভরে বাতাস নিতেও মন ভীত তখন সবকিছুই কেমন যেন সরে সরে যাচ্ছে আমাদের জীবন থেকে। দিনের পর দিন বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। সেই সঙ্গে বৃদ্ধি পাচ্ছে মৃতের হার। মানুষ আজ বড়ই অসহায় এবং বিভ্রান্ত। রোজকার জীবন অনিশ্চয়তার মুখোমুখি। অনেই কাজ হারিয়ে আজ বেকার। অন্ধকারে দিন গুনছেন এরা প্রতি নিয়ত। কাল তাদের জন্য কি নিয়ে আসবে তাতেও তারা সন্দিহান। এহেন পরিস্থিতিতে বাহ্যিক কর্ম জগৎ যতটা জটিল রূপ নিয়েছে তাতে মানুষ দিন দিন ভেঙে পড়ছে। মনকে ভালো রাখার সব উপায়গুলো কেমন করে যেন কুয়শায় ঢাকা পড়ছে। ঠিক যেমন ঢাকা পড়ছে উৎসবগুলো। বাঙালি নমঃ নমঃ করে সেরেছে পয়লা বৈশাখ, রমজানের ঈদ, লক ডাউনের সমস্ত পার্বণ। উরিশ্যার রথও নিয়মের কবলে আটক। আসন্ন ঈদুল আযহা, জন্মাষ্টমী, গণেশ চতুর্থী, মহরম সবই অনিশ্চয়তার মধ্যে। গৃহবন্দী হয়েই বোধ হয় পালন করতে হবে সব নিয়ম। যেভাবে করোনা ছড়াচ্ছে তাতে কাছের লোকজ...
ফিরিয়ে দাও সকল উৎসব : পিউলি খাতুন

ফিরিয়ে দাও সকল উৎসব : পিউলি খাতুন

কবিতা ও গল্প, খবরিকা আর্কাইভ, গ্যালারি, জনপদ, জাতীয়, প্রথম পাতা, বিনোদন, মুক্তাঙ্গন, সাহিত্য-সংগঠন, স্বজন, স্লাইড
আমরা সদ্য পার করে এসেছি ঈদ-উল-ফিতর। প্রতি বছরের মত খুশী জোটেনি এবার। এই ঈদে খুশী খুঁজে নেওয়ার মত মানসিকতাও ছিলনা কারোর। প্রতি বছর রমজান শুরুর সাথে সাথেই প্রতিদিন ইফতারের সময় গোনা হয় - আজ চারটে রোজা,কাল পাঁচটা,পরশু ছ'টা.... এই করে করে একদিন আসে সাতাশ রোজা, বিশেষ দিন। এই সাতাশ রোজার সারারাতের নামাজের পর একটা ঈদ - ঈদ গন্ধ নেমে আসে মহল্লায়। এ বছর সাতাশ রোজার সমবেত নামাজ বা ঈদের গন্ধ কোনোটাই ছিলনা; ছিলনা চাঁদ ওঠার খবরের অপেক্ষা বা অপেক্ষার আনন্দ। আবার ও আসলো ঈদুল আযহা। সমস্ত অশুভকে কোরবানী করে নতুন করে আলো জ্বালানোর উৎসব। এবারও চাঁদ রাত হবে বটে, কিন্তু চাঁদরাতে দল বেঁধে মেয়েদের মেহেন্দী পরাটা বোধ হয় আবারও হবেনা; মায়েদের আগের দিন থেকে রান্নার জোগার করতেও দেখতে পাবনা হয়তো। একমাস আগে থেকে ঈদের বাজার, দর্জির দোকানে জামা বানানোর লড়াই,ম্যাচিং জুতোর জন্য পরিবার শুদ্ধ শপিংমল; নাহ্, কোনোটাই হয়নি এব...