Saturday, February 23Welcome khabarica24 Online

সংবাদ শিরোনাম

অচল হয়ে পড়েছে দেশের সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা

অচল হয়ে পড়েছে দেশের সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা

অবরোধের কারণে ভেঙ্গে পড়েছে সারাদেশের সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা, কোথাও যাত্রিবাহী বা পণ্য পরিবহণে যানবাহন খুব একটা দেখা যায়নি। রাজধানী থেকে ছেড়ে যায়নি কোনো দূরপাল্লার বাস, ঢাকার বাইরে থেকেও সকালে ছেড়ে আসেনি দূরপাল্লার কোনো বাহন। আটচল্লিশ ঘণ্টার অবরোধের প্রথম দিন। গাবতলী টার্মনালে সকাল থেকেই ছিল যাত্রীদের উপস্থিতি। তবে ছেড়ে যায়নি কোন দুরপাল্লার বাস। সায়দাবাদ আর মহাখালী বাস টার্মিনালেও ছিল একই চিত্র।  এছাড়া রাজধানীর বাইরেও দুরপাল্লার যনবাহন চলাচল ছিলো না বললেই চলে। নাশকতার আতঙ্কে রাজধানীর সড়কগুলোতে নগরপরিবহনের সংখ্যাও ছিল বেশ কম। এদিকে এই অবরোধে দোকানগুলো খোলা থাকলেও বিক্রেতারা দেখা পায়নি ক্রেতাদের। হরতাল আর অবরোধের পার্থক্য খুঁজতে থাকা মানুষের মধ্যে আতঙ্কটা ছিলো একই।
১৮-দলীয় জোট এর ডাকা অবরোধে দেশ অচল

১৮-দলীয় জোট এর ডাকা অবরোধে দেশ অচল

নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের দাবি না মেনে  দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার প্রতিবাদে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোটের ডাকা অবরোধে কার্যত দেশ অচল হয়ে পড়েছে।বিভিন্ন স্থানে ট্রেন লাইনে আগুন দেয়া ও অগ্নিসংোগের ঘটনায় সারাদেশে রেলের সিডিউল লন্ডভন্ড হয়ে যায়। ঢাকা থেকে দুরপাল্লার কোন বাস বা পণ্যবাহী ট্রাক কোথাও ছেড়ে যায়নি। অবরোধের প্রথম দিন দেশব্যাপী সংঘর্ষে ১ বিজিবি সদস্যসহ নিহত হয়েছে ৭ জন। এরমধ্যে কুমিল্লায় ২, সাতক্ষীরায় ২, বরিশালে ১ বগুড়া ও সিরাজগঞ্জে ২ যুবদল কর্মী নিহত হয়। সংঘর্ষে বিএনপি যুবদল, ছাত্রদল ও যুবলীগের শতাধিক নেতাকর্মী আহত হয়েছে। বিভিন্ন জেলা, উপজেলা এমনকি ইউনিয়ন পর্যায়ে সড়কপথে অগ্নিসংযোগ-গাছের গুড়ি ফেলে অবরোধ করে যান চলাচল এবং বিভিন্ন স্থানে রেলপথের স্লিপার তুলে নিয়ে ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে অবরোধকারীরা। পুলিশ বিভিন্ন জেলা থেকে শতাধিক ১৮ দলের নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে। মঙ
পরিস্থিতি বিবেচনায় যে কোন সময় সেনা মোতায়েন : জাবেদ আলী

পরিস্থিতি বিবেচনায় যে কোন সময় সেনা মোতায়েন : জাবেদ আলী

 নির্বাচনে সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত হয়েছে। তবে কতদিনের জন্য সেনা মোতায়েন হবে তা নির্দিষ্ট করা হয়নি। পরিস্থিতির উপর নির্ভর করে যে কোন সময় সেনা মোতায়েন করা হতে পারে। মঙ্গলবার নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) মো. জাবেদ আলী এ কথা বলেন। সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য সেনা মোতায়েন করা হবে উল্লেখ করে জাবেদ আলী বলেন, সেহেতু যতদিন প্রয়োজন ততদিন সেনা মোতায়েন থাকবে। প্রয়োজনে সেনা মোতায়েন দীর্ঘ মেয়াদী হবে। বিদ্যমান পরিস্থিতি নিয়ে তিনি বলেন, আমরা শীঘ্রই আইন শৃংখলা বাহিনীর সাথে বৈঠক করবো। আইন শৃংখলা বাহিনী ও গোয়েন্দা সংস্থার রিপোর্টের উপর ভিত্তি করে ব্যবস্থা নেয়া হবে। আগুন দেয়া বা অন্য কোনভাবে আইন শৃংখলা পরিস্থিতির অবনতি হলে আইন শৃংখলা বাহিনী ব্যবস্থা নিতে পারবে। আওয়ামী লীগের প্রচার প্রচারণার বিষয়ে জানতে চাইলে নির্বাচন কমিশনার বলেন, প্রচারণার বিষয়ে প
দেশে নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ নেই: এরশাদ

দেশে নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ নেই: এরশাদ

দেশে নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ নেই উল্লেখ করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। মঙ্গলবার রাজধানীর বনানীতে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এরশাদ বলেন, আমরা নির্বাচনের প্রস্তুত নিয়েছি। কতটুকু সুষ্ঠু নির্বাচন হবে জানি না। নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েনের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে তিনি বলেন, সেনাবাহিনীকে ম্যাজিস্ট্রেসি ক্ষমতা দিতে হবে।বিরোধীদলকে উদ্দেশ্য করে এরশাদ বলেন, আপনাদের এত আহ্বান জানালাম, শুনলেন না। নির্বাচনে অংশ না নিলে পার্টি থাকে না। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার আমাকে নির্বাচনে অংশ নিতে দেয়নি। তবু আমার দল নির্বাচন করেছে। নির্বাচন না করলে পার্টি থাকে না। আমি কারও পক্ষ হয়ে নয়- সংবিধানে যেভাবে আছে, সেভাবেই নির্বাচন হবে বলেও মন্তব্য করেন সাবেক এ রাষ্ট্রপতি।লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড প্রসংগে এরশাদ বলেন, ডিসি-এসপি-জাজ-ডাক্তার সবাই দুই দিকে। চলমান পরি
মীরসরাইতে অবরোধ পালিত ঃ ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কটি আজ জনমানবহীন

মীরসরাইতে অবরোধ পালিত ঃ ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কটি আজ জনমানবহীন

খবরিকা ২৪ ডেক্স : সারাদেশে অবরোধের প্রথম দিনে মিরসরাই উপজেলার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক সহ সর্বত্র ছিল আতংকভাব, রাস্তাঘাটে যান চলাচল ছিল প্রায় শূন্য।  চিরচেনা ব্যস্ততম মহাসড়কের এই অংশে থাকতো শুধু গাড়ি আর গাড়ি, কোলাহল আর ব্যস্ততা। আবার লাইন ধরে লেগে থাকা যানজট ও ছিল নিত্যদিনের । আজ এই  জনপদ ভিন্নরুপে। জনমানবহীন সড়ক যেন এক অচেনা জনপদ। অগ্রহায়নের এই মৌসুমে প্রত্যহ ভোরে সবজি বিক্রেতারা প্রত্যুষে মহাসড়কে নিয়ে আসে তাদের নানান মৌসুমী সবজি। আজ রাস্তায় এসে পাইকার না আসায় বিপাকে কৃষকরা। অন্যসময় হরতাল হলে ও কোন না কোনভাবে চলে যেত। আজ অচল সবাই। বারইয়ারহাট বাজারের উত্তরে ধুমঘাট ব্রীজ এলাকায় ভোররাতে প্রায় অর্ধশত কার্ভ্যাড ভ্যান, বাস ও প্রাইভেট কার ভাংচুর করেছে ১৮ দলের নেতাকর্মীরা। তফশীল ঘোষণার প্রতিবাদে বিএনপি ও শিবির কর্মীরা তখন ১টি কার্ভ্যাড ভ্যান ও ১ টি ট্রাকে অগ্নিসংযোগ করে। গাড়ি ভাংচুরের সময় প্রায় ১০

মঙ্গল ,বুধ ও বৃহস্পতি সারা দেশে অবরোধ

কাল মঙ্গলবার ভোর ছয়টা থেকে বৃহস্পতিবার ভোর ছয়টা পর্যন্ত সারা দেশে রাজপথ, রেলপথ ও নৌপথ অবরোধের ঘোষণা দিয়েছে ১৮-দলীয় জোট। আজ সোমবার রাতে গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন। আজ সন্ধ্যায় আগামী নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর তাত্ক্ষণিক সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল তফসিল স্থগিতের দাবি জানান। মির্জা ফখরুল বলেন, নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে এই সরকার চরম কাণ্ডজ্ঞানহীনতার পরিচয় দিয়েছে। নির্বাচনের নামে কোনো প্রহসনে ১৮-দলীয় জোটসহ বিরোধী অন্য দলগুলো অংশ নেবে না। আমরা নির্দলীয় ও নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে একটি সুষ্ঠু নির্বাচন চাই। নির্বাচনের নামে প্রহসনের এই প্রক্রিয়ায় অংশ না নেওয়ার জন্য দেশবাসীসহ সবাইকে আহ্বান জানান তিনি। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব বলেন, একতরফাভাবে নির্বাচনের প্রক্রিয়া শুরু হওয়ায় তাঁদের আন্দোলন আগের চে

ভোট ৫ জানুয়ারি

আগামী ৫ জানুয়ারি, রোববার দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আজ সোমবার রাতে জাতির উদ্দেশে দেওয়া এক ভাষণে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী রকিব উদ্দীন আহমেদ নির্বাচনের এ তফসিল ঘোষণা করেন। তফসিল অনুযায়ী মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ২ ডিসেম্বর, সোমবার। প্রার্থিতা যাচাই-বাছাই হবে ৫ থেকে ৬ ডিসেম্বর। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ১৩ ডিসেম্বর। এক দিনে সারা দেশে এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।সিইসি বলেন, ‘আমাদের এ জনবহুল দেশে ভোটার সংখ্যা বিশাল। এ বিরাট কর্মযজ্ঞ সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষা করা অতি দুরূহ। তাই প্রতিবারের মতো এবারও দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে, ভিডিপি, আনসার, পুলিশ, র্যাব, বিজিবি ও কোস্টগার্ড বাহিনীর সঙ্গে সবার প্রিয় ও আস্থাভাজন সশস্ত্র বাহিনীকেও নির্বাচনের জন্য দেশব্যাপী মোতায়েন করার সিদ্ধান্ত আমরা গ্রহণ করেছি।’ তিনি বলেন, দায়িত্বভার গ্রহণ করার পর বলেছিলাম আমরা আমাদ
২৪ ডিসেম্বর মতিঝিলে হেফাজতের সমাবেশ

২৪ ডিসেম্বর মতিঝিলে হেফাজতের সমাবেশ

২৪ ডিসেম্বর মতিঝিলের শাপলা চত্বরে সমাবেশের ডাক দিয়েছে হেফাজতে ইসলাম। এছাড়া ২৯ নভেম্বর সারাদেশে জেলায় জেলায় বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল করার ঘোষণা দেয় হেফাজতে ইসলাম। এরপর প্রতিটি জেলায় সম্মেলন করবে সংগঠনটি। রোববার হাটহাজারীতে এক সংবাদ সম্মেলনে এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন সংগঠনটির মহাসচিব জুনাইদ বাবুনগরী।গত ৫ মে মতিঝিলে সমাবেশের পর ১৫ নভেম্বর সেখানে পুনরায় সমাবেশের ডাক দিয়েছিল হেফাজত। পরে ইজতেমা ও আশুরাকে কারণ দেখিয়ে সমাবেশ স্থগিতের সিদ্ধান্ত জানানো হয়।