বুধবার, ১৯ জানুয়ারি ২০২২, ৬ মাঘ ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি

মস্তিস্কে শক দিয়ে অপরাধ নিয়ন্ত্রণ!

মস্তিস্কে শক দিয়ে অপরাধ নিয়ন্ত্রণ!

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
রাষ্ট্র বা সমাজে অপরাধ প্রবণতা কমানোর জন্য সংশ্লিষ্টদের ঘুম হারাম হবার অবস্থা। এরই মধ্যে গবেষকরা দিলেন নতুন এক তথ্য। মস্তিষ্কে বৈদ্যুতিক শক দেয়া হলে নাকি অপরাধ প্রবণতা কমে যায়। মানব মস্তিষ্কের যে অংশ সামাজিক বিধিবিধান মেনে চলার সিদ্ধান্ত নেয় সে অংশটি সুনির্দিষ্টভাবে শনাক্ত করতে পেরেছেন বিজ্ঞানীরা। এরপরই তারা এমন সিদ্ধান্ত জানিয়েছেন। তারা আরো দেখতে পেয়েছেন, মস্তিষ্কের এ অংশে বেদনাহীন মৃদু বৈদ্যুতিক শক দেয়ার মধ্য দিয়ে নিউরন বা পূর্ণ স্নায়ু কোষরাজিকে নিয়ন্ত্রণ করা যায়। খুলিতে ইলেক্ট্রোড বসিয়ে এ শক দেয়া হয়। বৈদ্যুতিক শক দিয়ে অপরাধ প্রবণতা নিয়ন্ত্রণের গবেষণায় অংশগ্রহণ করেছিলেন ৬৩ জন স্বেচ্ছাসেবী। তাদের নগদ অর্থ ভাগ করে নেয়াসহ নানা কাজ করতে দেয়া হয়েছে। কাজটি যাতে ন্যায়ভিত্তিক ও সুষ্ঠুভাবে করে সে জন্য কখনো বৈদ্যুতিক শক দেয়া হয়েছে। আর কখনো দেয়া হয়েছে কঠোর শাস্তির হুমকি। গবেষণার সঙ্গে জড়িত স্বে...
আইটি খাতে নতুন কর্মসংস্থানের সুযোগ

আইটি খাতে নতুন কর্মসংস্থানের সুযোগ

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
জাপানের আইটি খাতে কর্মসংস্থানের নতুন সুযোগ সৃষ্টির জন্যে তরুণ আইটি প্রফেশনাল এবং শিক্ষার্থীদের নিয়ে ‘আইটি ট্যালেন্ট কনটেস্ট-২০১৪’ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি জাপানভিত্তিক বাংলা বিজনেস পার্টনার (বিবিপি) এর উদ্যোগে এবং ড্যাফোডিল ইন্সটিটিউট অব আইটি (ডিআইআইটি) এর সার্বিক সহযোগিতায় এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। বুধবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়। এ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে বাছাইকৃত শীর্ষ ২০ জন প্রোগ্রামারকে জাপানভিত্তিক আইটি ফার্মগুলোতে চাকরি দেওয়া হবে।সংবাদ সম্মেলনে ডিআইআইটির নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ নুরুজ্জামান বলেন,“আমাদের দেশে আইটি ট্যালেন্ট থাকলেও তাদের কর্মসংস্থানের সুযোগ সীমিত। এ কারণে বাংলা বিজনেস পার্টনার (বিবিপি), জাপানের উদ্যোগে এবং ড্যাফোডিল ইন্সটিটিউট অব আইটির সহযোগিতায় দেশের তরুণ আইটি শিক্ষার্থীদের জাপানে কর্মসংস্থানের ল...
কৃষ্ণগহ্বর বলে কিছুই নাই : স্টিফেন হকিং

কৃষ্ণগহ্বর বলে কিছুই নাই : স্টিফেন হকিং

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
বিজ্ঞান কি সত্যিই এমন যে, আজ যা প্রমাণিত হল কাল তা অন্যরকমভাবে প্রমাণিত হবে। নাকি প্রমাণিত সত্যটা শুধুই ধারণা? বিশ্বজগত সৃষ্টির রহস্য ও কারণ হিসেবে এতদিন আমরা যে ব্ল্যাকহোল বা কৃষ্ণগহ্বরের কথা জেনে আসছি সেটিও কি নিছক ধারণা ছাড়া আর কিছু নয়?বর্তমান বিশ্বের প্রখ্যাত পদার্থ বিজ্ঞানী স্টিফেন হকিং ঠিক এমনটিই বলেছেন। হকিং দাবি করে বলেন, "কৃষ্ণগহ্বর বলে আসলে এমন কোন কিছুরই অস্তিত্বই নাই। এটি শুধু কল্পনা ছাড়া আর কিছুই নয়। তবে তিনিই এতদিন বলে আসছেন কৃষ্ণগহ্বরই বিশ্ব জগত সৃষ্টির আদি কারণ।"আমরা জেনে আসছি, বিশ্ব জগতের অপার রহস্য, মানুষের অসীম মুগ্ধতা, আকর্ষণ আর অশেষ কল্পনার উৎস হল কৃষ্ণগহ্বর।তাহলে প্রশ্ন হল, মহাবিশ্বের অজানা রহস্য কি এসব কৃষ্ণগহ্বরই ধারণ করে? সময়ের পরিভ্রমণের প্রধান চাবিকাঠিও কি এই কৃষ্ণগহ্বর হতে পারে!আমরা আসলে নিশ্চিতভাবে কখনো এসব প্রশ্নের উত্তর হয়ত দিতে পারছি না। কারণ বিখ্যাত তত্...

বিআইবিএমটিতে কম্পিউটার প্রশিক্ষণ কোর্স

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
তথ্যপ্রযুক্তি প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব বিজনেস ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড টেকনোলজিতে (বিআইবিএমটি) তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক বিভিন্ন প্রফেশনাল কোর্সে ভর্তি চলছে। প্রশিক্ষণ কোর্সের মধ্যে রয়েছে- অফিস ম্যানেজমেন্ট, হার্ডওয়্যার অ্যান্ড নেটওয়ার্কিং, ওয়েব ডিজাইন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট, এএসপি ডটনেট (সি শার্প), গ্রাফিক্স ডিজাইন, প্রফেশনাল আউটসোর্সিং ও ল্যাপটপ সার্ভিসিং প্রভৃতি। বিআইবিএমটিতে প্রতিটি কোর্সে রয়েছে বাধ্যতামূলক রিয়েল লাইফ প্রজেক্ট ওয়ার্ক । সফলভাবে উত্তীর্ণদের কর্মসংস্থানের সহায়তা করা হয়। কর্মজীবীদের জন্য সান্ধ্যকালীন ক্লাসের সুবিধা রয়েছে। যোগাযোগ : ১৯/সি/৬, এন ইসলাম টাওয়ার, ৪র্থ তলা, রিংরোড, শ্যামলী, ঢাকা-১২০৭। ফোন : ০১৭৬৬৯২৪৭০০। -বিজ্ঞপ্তি...

আইফোনের জন্য আবশ্যক ৫ অ্যাপস

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
আইফোনের জন্য অ্যাপলের অ্যাপ স্টোরে লাখ লাখ অ্যাপস রয়েছে। গত বছরের অক্টোবরে অ্যাপ স্টোরে ১০ লাখ অ্যাপস থাকার ঘোষণা দেয় অ্যাপল। যেখানে ২০০৮ সালের জুলাইয়ে যাত্রা শুরুর প্রাক্কালে মাত্র ৮০০ অ্যাপ ছিল।আর অ্যাপ স্টোরের বৃহৎ তালিকা থেকে ব্যবহারকারীর প্রয়োজনীয় অ্যাপসটি পেতে খানিক সময় লাগতে পারে। তাই এখানে আইফোন ব্যবহারকারীদের জন্য আবশ্যক ৫টি অ্যাপস নিয়ে আলোচনা করা হল।গুগল ম্যাপসআইফোনের জন্য এখনও পর্যন্ত সেরা ও বিনামূল্যের ম্যাপ অ্যাপ হল ‘গুগল ম্যাপস’। অ্যাটলাস ও জিপিএস থাকার কারণে ব্যবহারকারী যেখানেই থাকুন না কেন পথ হারানোর ভয় নেই বললেই চলে। অ্যাপটির মাধ্যমে ঠিকানা অনুযায়ী একটি জায়গা থেকে আরেক জায়গায় অনায়াসেই যাওয়া যায়। ব্যবহারকারী নিজে তার অবস্থান জানতে পারেন ও কোনো পথে হাঁটছেন তা তাৎক্ষণিকভাবে (রিয়েল টাইম) জানতে পারেন। তাই চলার পথের নিত্যসঙ্গী হতে পারে এই অ্যাপটি।স্নাপসিডআইফোনে ছবি সম্পাদনার (এড...